দুধ কিনতে না পেরে, নবজাতককে ‘লবণ খাইয়ে হত্যা’

0 29

ডেস্ক: ঢাকার দোহার উপজেলায় দুই মাসের নবজাতককে ‘লবণ খাইয়ে হত্যা’র অভিযোগ উঠেছে এক মায়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় শিশুটির মা সাথী আক্তারকে (২১ সেপ্টেম্বর) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। স্থানীয়দের দাবি, অভাবের সংসারে সন্তানের জন্য ‘দুধ জোগাড় করতে না পেরে’ ওই পথ বেছে নিয়েছেন ওই নারী।

অভিযুক্ত সাথী আক্তার দোহার উপজেলার উত্তর জয়পাড়া মিয়াপাড়া এলাকার মো. বাচ্চুর স্ত্রী। আর নিহত নবজাতকের নাম মো. সায়েম।

দোহার থানায় এসআই মো. হাফিজুর রহমান জানান, নিহত নবজাতকের বাবা বাচ্চু গত সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে তার স্ত্রী সাথীকে আসামি করে দোহার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার সাথীকে আদালতে পাঠানো হয়।

মামলার বরাত দিয়ে এসআই হাফিজ জানান, বাচ্চু পেশায় একজন দিনমজুর। বছর তিনেক আগে সাথীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। সাবিহা আক্তার নামে দুই বছরের একটি মেয়েও রয়েছে তাদের।

তিনি আরো জানান, রোববার সায়েমের জন্য স্বামীকে দুধ আনতে বলেছিলেন সাথী। কিন্তু সন্ধ্যায় স্বামী দুধ না নিয়ে বাড়ি ফিরলে দুধের টাকা জোগাড় করার জন্য প্রতিবেশীদের কাছে ধর্না দেন তিনি। টাকা জোগাড় করতে না পেরে রাত ৮টার দিকে রাগে ক্ষোভে দুই মাসের সন্তানকে তিনি লবণ খাইয়ে দেন। এরপর সায়েমের শ্বাসকষ্ট শুরু হলে সাথী নিজেই তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। দায়িত্বরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান এসআই হাফিজ।

গত সোমবার খবর পেয়ে পুলিশ উত্তর জয়পাড়ার মিয়াপাড়া এলাকা থেকে সাথীকে আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি সায়েমকে লবণ খাওয়ানোর বিষয়টি স্বীকার করেন।

সাথীর স্বামী বাচ্চু বলেন, আমাদের সংসারে অভাব অনটন লেগেই থাকে। আমার স্ত্রী ছেলের জন্য দুধ আনতে বলেছিল, আনতে পারিনি। দুধের টাকা জোগাড় করতে না পেরে রাগে কষ্টে সে ছেলেকে মেরে ফেলেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.