জীবননগরে ইট ভাটার মাটির স্তুপে বিদ্যুতায়িত:দুই মাদ্রাসা আহত

0 25

 

জীবননগর: জীবননগর বাঁকা আঁশতলাপাড়ায় অবস্থিত এ এন জে এম ইটভাটায় গড়ে তোলা মাটির স্তুপের উপর বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে বদরুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসার দু’ছাত্র গুরুতর আহত হয়েছে। ঘটনাটি শুক্রবার বিকালে সংগীত হয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগের অবহেলা আর অবেবস্থার কারণেই একই স্থানে ইতিপূর্বে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মানুষ ও গরু মৃত্যুর পাশাপাশি আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

জীবননগর পৌর এলাকার মধ্যে ইটভাটা স্থাপন অবৈধ হলেও আইন অমান্য করে পৌর এলাকা জনবসতি ও ফসলি জমিতে আইন অমান্য করে একের পর এক ইট ভাটা গড়ে তোলা হচ্ছে। এসব ইট ভাটার কারনে পরিবেশ দূষণের পাশাপাশি প্রায়ই নানা অঘটনের জন্ম দিচ্ছে। একই ভাবে পৌর এলাকার বাঁকা আঁশতলাপাড়ায় পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম এ এন জে এম নামে একটি ইটভাটা গড়ে তোলেন।

এ ইটভাটার কোল ঘেঁষে রয়েছে জনবসতি ও ফসলি জমি। ইট ভাটা থেকে চারশ গজ দুরে রয়েছে বাঁকা দারুল ইলুমিনাতি ইসলামীয়া মাদ্রাসা ও একশ গজ দুরে বাঁকা ইউনিয়ন পরিষদ । ইট ভাটা কর্তৃপক্ষ মৌসুম শুরুর আগেই মাটির স্তুপের পাহাড় গড়ে তুলেছে। গড়েতোলা মাটির স্তুপ থেকে তিন-চার ফুট উপর দিয়ে বিদ্যুতের মেইন লাইন চলে গেছে। মাটির ওই স্তুপ থেকে সহজেই বিদ্যুতের তার ছোঁয়া যাওয়ার কারনে মাটির স্তুপটি এলাকাবাসীর জন্য মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

এ অবস্থায় শুক্রবার বিকালে বাঁকা দারুল উলুম ইসলামীয়া মাদ্রাসার কেরাত বিভাগের ছাত্র আবু সাইদ (১২) ও সিজান (১২) খেলার ছলে মাটির ওই স্তুপের উপর উঠলে তারা তারে বিদ্যুৎ স্পিষ্ট হয়ে মারাত্নকভাবে আহত হয়ে পড়ে। আহতদের শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে যায়। আহতদের উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাটি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ স্বীকার করে বলেন, ইতিপূর্বেও একই ঘটনাস্থলে এধরনের ঘটনা ঘটলেও ইটভাটা কিম্বা পল্লী বিদ্যুৎ কতৃপক্ষ কার্যকরী কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।

উল্লেখ্য একই ঘটনাস্থলের তারে ইতিপূর্বে বিদ্যুৎ স্পিষ্ট হয়ে একজন মানুষ ও একটি গরু মারা যায় এবং চারজন আহত হয় বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

এব্যাপারে ইটভাটা কর্তৃপক্ষ পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন,ঘটনা সম্পর্কে আমার কোনোকিছু জানা নেই। তবে আমি খোঁজখবর দিয়ে দেখছি।

জীবননগর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের এজিএম মনিরুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,ঘটনার বিষটি আমি শুনেছি এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে|

Leave A Reply

Your email address will not be published.