সবজি উৎপাদনে জৈব পদ্ধতি

0 17

 

ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে কোনো ধরনের রাসায়নিক সার বা কীটনাশক ছাড়াই উৎপাদিত হচ্ছে নিরাপদ সবজি। ভালো ফলন ও খরচ কম হওয়ায় পাওয়া যাচ্ছে ভালো দাম।

উপজেলার তিন শতাধিক কৃষক জৈব পদ্ধতিতে উৎপাদন করছেন বারোমাসি টমেটো, পেপে, বেগুন, লাউ, শিম। কখনো বাজার থেকে আবার কখনো জমি থেকেই সরাসরি সবজি কিনছেন ক্রেতারা।

১২টি গ্রামের কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘বিকশিত বাংলাদেশ। অতি দ্রুত এসব সবজি বিদেশে রফতানি করা হবে বলে আশা করছে সংস্থাটি।

জগন্নাথপুরের কৃষক মাহমুদুল হাসান বলেন, আমি ৩৩ শতাংশ জমিতে জৈব সার ব্যবহার করে ফুলকপি চাষ করি। একেকটি ফুলকপির ওজন প্রায় ৫০০ গ্রাম। উৎপাদন খরচ কম হওয়ায় দামও পেয়েছি ভালো।

বিকশিত বাংলাদেশের কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম টিটো বলেন,আমরা প্রতিনিয়ত বিষাক্ত সবজি খেয়ে নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছি। তাই বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন করতে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার অর্থায়নে কালীগঞ্জের ৩০০ জন কৃষককে জৈব সার উৎপাদনের প্রশিক্ষণ দিয়েছি। এতে কৃষকরা ভালো ফল পেয়েছেন।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা জাহিদুল করিম বলেন, ১২টি গ্রামের ৩০০ জন কৃষক একযোগে নিরাপদ সবজি উৎপাদন করছেন। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর নিয়মিত তাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.