বড় পরিসরে কাজ করতেই নির্বাচনে: মাশরাফি

0 22

 

নড়াইল: ক্রীড়াঙ্গনের পাশাপাশি রাজনীতির মাঠেও সরব হতে চান মাশরাফি বিন মর্তুজা। খেলোয়াড়ি তকমার সঙ্গে এবার জুড়েছে রাজনীতি। মাশরাফি তার এ অর্জনকে বলছেন একটা বড় পরিসরে পদার্পণ।

নিজের ভালোলাগা থেকেই আওয়ামী লীগের হয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোটের মাঠে লড়বেন নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সফল অধিনায়ক মাশরাফি। ১৪ ডিসেম্বর থেকেই নির্বাচনী এক্সপ্রেস নিয়ে মাঠে নামবেন তিনি।

নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন কেনার দীর্ঘ তেইশ দিন পর মঙ্গলবার মিরপুরে শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন মাশরাফি।

রাজনীতিতে আসা প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, মানুষের জন্য কাজ করতে চেয়েছি। তাই এ সুযোগ হাতছাড়া করিনি। বিশ্বকাপের পর অবস্থা আনক্লিয়ার। রিটায়ার্ড (অবসর) করবো কিনা, তাও বলতে পারছি না। আর আমি তো লারা-টেন্ডুলকার নই যে, সারাজীবন মানুষ আমাকে মনে রাখবে।

রাজনীতিতে আসলেও রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগ কেন বেছে নিলেন- এমন প্রশ্নে মাশরাফি বলেন, এটা গোপন রাখা উচিত না বলে আমি বিশ্বাস করি। দলটার প্রতি ভালোলাগা থেকেই এসেছি। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধুর প্রতি।

তবে নির্বাচনে জিতলে কি করবেন, জেলা ও দেশের জন্য- এর উত্তরেও তিনি বলেন, নির্বাচনি আচরণবিধির বেড়াজালে সেটা এখন যেমন বলতে মানা, ঠিক তেমনি নিজেও কোনো প্রতিশ্রুতি দেবো না। আর ধারা বদলে ফেলবো সেটাও বলবো না। ভালো উদ্যোগের শুরু করতে চাই, এটাই বলতে পারি। যা আমি সব সময় পছন্দ করি।

এ প্রেক্ষিতে নিজ দল ক্ষমতায় না আসলে কি হবে বা পালাবদল, এসব কিছু ভেবে রাজনীতিতে যোগ দেইনি বলেও জানান এই ক্রিকেটার।

এদিকে জাতীয় দলের সতীর্থদের সঙ্গে নির্বাচন ইস্যুতে এখনো কোনো কথা হয়নি বলে জানালেন মাশরাফি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত নড়াইলেও যাওয়া হয়নি। ১৪ ডিসেম্বর উইন্ডিজদের বিপক্ষে শেষ ওয়ানডে খেলেই প্রচারণায় নামবো।

বলা হচ্ছে, এই সিরিজটিই হয়তো হতে পারে দেশের মাটিতে মাশরাফির শেষ ওয়ানডে। শুধু এ কারণেই নয়, অন্য দশটা সিরিজের মতো এটিকেও গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি।

আগামীকাল বুধবার থেকে ওয়ানডের প্রস্তুতি ম্যাচ আর মূল ওয়ানডে সিরিজের মিশনে ক্রিকেটে নিজেকে এতোটাই মনোনিবেশ করবেন যে, সেখানে যেন কোনো নির্বাচনী আলাপ প্রভাব ফেলতে না পারে, সেজন্যই এই আগাম সংবাদ সম্মেলন।

এর আগে গেল ১১ নভেম্বর আওয়ামী লীগের হয়ে দলীয় মনোনয়ন কেনেন মাশরাফি। এর পর থেকেই দেশের আপমর জনগোষ্ঠীর আলোচনার কেন্দ্রে ভিন্ন ভাবে চলে আসেন তিনি। রাজনীতিতে যোগদানের বিষয়ে এবার প্রথম প্রকাশ্যে মুখ খুললেও এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছিলেন মাশরাফি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.