বিশ্বব্যাপী ফেলানী দিবস পালনের আহ্বান

0 14

 

ডেস্ক: বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে ৭ জানুয়ারি ফেলানী দিবস পালন করার আহ্বান জানিয়েছে সামাজিক সংগঠন নাগরিক পরিষদ।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে সংগঠনটি এ দাবি জানায়। এ সময় ফেলানী হত্যার বিচার দ্রুত শেষ করার দাবিও জানায় নাগরিক পরিষদ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী থানার অনন্তপুর সীমান্তে তার বাবা নুরুল ইসলামের সামনে ফেলানীকে গুলি করে হত্যা করে বিএসএফ। অথচ এখন পর্যন্ত হত্যাকারী বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষের কোনো বিচার হয়নি।

তারা আরো বলেন, বিএসএফের হাতে নৃশংসভাবে নিহত কৃষককন্যা ফেলানীর মৃত্যুর আট বছর অতিবাহিত হলেও তার বিচার কাজ এখনো শেষ হয়নি। কবে শেষ হবে তাও জানে না তার পরিবার।

মানববন্ধন করার সময় সংগঠনের পক্ষ থেকে কিছু দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো- ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ফেলানী দিবস পালন, ফেলানীর পরিবারকে কমপক্ষে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে, ফেলানী হত্যাকারী বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষের ফাঁসি ও ফেলানী পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে, সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন বন্ধ করতে হবে, সীমান্ত হত্যা বন্ধ করতে হবে।

এ সময় বক্তারা বলেন, মানবাধিকার ও সংবাদ মাধ্যমের প্রকাশিত রিপোর্ট মতে ২০০০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বিএসএফ সীমান্তে দেড় হাজারের অধিক বাংলাদেশীকে হত্যা করেছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন লেবার পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, নাগরিক পরিষদের সদস্য সচিব হিফজুর রহমান, দুর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলনের আহ্বায়ক মো. হারুন অর রশিদ খান প্রমুখ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.