স্বাগতিক সিলেটকে পাত্তাই দিলো না কুমিল্লা

0 135

 

ডেস্ক: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) সিলেট পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচ ও সবমিলিয়ে ১৬তম ম্যাচে একপেশে লড়াইয়ে সিলেট সিক্সার্সকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে স্বাগতিক সিলেটের ব্যাটিং লাইনআপ রীতিমত মুখ থুবড়ে পড়ে। স্কোরবোর্ডে ১০ রান যোগ হওয়ার আগেই সাজঘরে ফেরেন ব্যাটিং অর্ডারের চার ব্যাটসম্যান।

এই ধাক্কা সামলানো দূরে থাক, নিজেদের দর্শকে ভরপুর গ্যালারিকে সাক্ষী রেখে সিলেট সিক্সার্সের ব্যাটিং লাইনআপ তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে। দলীয় ২২ রানের মধ্যেই ৭ উইকেট হারিয়ে বসে ডেভিড ওয়ার্নারের দল। এমন ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয় সামাল দেয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করেন অলক কাপালি। সিলেটে জন্ম নেয়া এই ক্রিকেটারের ব্যাটে চড়েই ৬৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় দলটি।

অলকের ৩৩ রানের অপরাজিত ইনিংস ছাড়া বাকি ব্যাটসম্যানদের কেউই দুই অঙ্কের দেখা পায়নি। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান মাত্র ৬! যা কিনা এসেছে লিটন দাস ও সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে।

কুমিল্লার তরুণ স্পিনার মেহেদী হাসান এদিন যেন বল হাতে তাণ্ডব চালিয়েছেন। ৪ ওভার বল করে ১৮ রানের খরচায় তিনি একাই তুলে নেন চার উইকেট। এছাড়া তিনটি উইকেট শিকার করেন পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। এছাড়া লিয়াম ডসন দুটি এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন নেন একটি করে উইকেট।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতে দুটি উইকেট হারালেও এরপর আর বিপদ ঘটেনি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। দলীয় ১ রানে আইকন ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও ১০ রানে আরেক দেশি ওপেনার এনামুল হক বিজয়কে হারায় দলটি। তবে শামসুর রহমানের ৩৪ ও অধিনায়ক ইমরুল কায়েসের ৩০ রানের অপরাজিত ইনিংস দুটিতে ভর করে কুমিল্লা জয় পায় ৫৩ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

সিলেট সিক্সার্স ৬৮ (১৪.৫ ওভার)

অলক ৩৩*, সাব্বির ৬, লিটন ৬

মেহেদী ১৯/৪, ওয়াহাব ১৫/৩

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৬৯/২ (১১.১ ওভার)

শামসুর ৩৪*, ইমরুল ৩০*

তানভীর ১০/১

ফল: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৮ উইকেটে জয়ী।

Leave A Reply

Your email address will not be published.