যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সম্পদ বাজেয়াপ্তের কাজ চূড়ান্ত: আইনমন্ত্রী

0 95

 

ডেস্ক: যুদ্ধাপরাধীদের পরিবারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের পরিবারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার কাজ গত বছর থেকেই শুরু হয়েছে। এখন এটা চূড়ান্ত করার পালা।

এসময় বিএনপির এখনো সংসদে যাওয়ার সময় আছে উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী বলেন, তারা যে একেবারেই সংসদে যাবে না, তা মনে করি না। আমার মনে হয়, বিএনপির শুভবুদ্ধির উদয় হবে। এখনো যে সময় আছে, সে সময়ের মধ্যেই দলটি সংসদে যাবে। তবে যদি না যায়, তাহলে জনগণই দেখবে তাদের কি পরিণতি হয়। আমার এ বিষয়ে বলার কিছু নাই।

সকালে কসবায় গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মহানগর প্রভাতী ট্রেনে করে ঢাকা থেকে আখাউড়ায় আসেন আনিসুল হক। সেখান থেকে সড়কপথে তিনি কসবায় যান। এসময় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীরা মন্ত্রীর হাতে কাগজের নৌকা তুলে দেন। পাশাপাশি নৌকা থেকে ফুল ছিটিয়ে মন্ত্রীকে বরণ করে তারা।

এসময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন, আখাউড়া পৌরসভার মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট রাশেদুল কায়সার ভূঁইয়া, আবুল কাসেম ভূঁইয়া, মো. সেলিম ভূঁইয়া, যুবলীগ নেতা আতাউর রহমান নাজিম, উপজেলা মহিলা নেত্রী মঞ্জুয়ারা বেগম, পিয়ারা বেগম পিওনা, পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. মনির খান, সাধারণ সম্পাদক আবু কাউসর ভূইয়া, আব্দুল মমিন বাবুল, ছাত্রলীগ নেতা শাহবুদ্দিন বেগ শাপলু, শাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ।

মন্ত্রী বিকেলে কসবায় এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। এছাড়া আখাউড়াবাসী ও আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শুক্রবার উপজেলা পরিষদ মাঠেও এক গণসংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে জয়লাভের পর দ্বিতীয় মেয়াদে আইনমন্ত্রী হিসেবে এই প্রথম নির্বাচনী এলাকায় আসেন আনিসুল হক। দুই দিনের সফরে তিনি সেখানে অবস্থান করবেন।

এ উপলক্ষে আইনমন্ত্রীকে বরণ করতে নানা প্রস্তুতি নিয়েছে আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনসমূহ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.