কঙ্গোতে ৫০টিরও বেশি গণকবরের সন্ধান জাতিসংঘের

0 218

 

ডেস্ক: মধ্য আফ্রিকার দেশ কঙ্গোর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ মাই নোদোম্বের ইয়ুম্বি শহরে ৫০টিরও বেশি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। জাতিসংঘের যৌথ মানবাধিকার কার্যালয় (ইউএনজেএইচআরও) শনিবার এ গণকবরগুলো শনাক্ত করে।

গেল মাসে ওই অঞ্চলটিতেই তিনদিনের জাতিগত সহিংসতায় অন্তত ৮৯০ জন নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছিল জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেট গত ১৬ জানুয়ারি একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন। সেখানে বলা হয়েছিল, জাতিসংঘ কার্যালয় বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পেরেছে ১৬ ডিসেম্বর থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত তিনদিনে ইয়ুম্বির চারটি জাতিগত সহিংসতায় ৮৯০ জন নিহত হয়েছে।

জাতিগত গোষ্ঠী বানুনু ও বাতেন্দের মধ্যে এ সহিংসতা হয়। ১৩ ডিসেম্বর রাতে বানুনু সম্প্রদাযের এক নেতাকে বাতেন্দেদের ভূমিতে সমাহিত করাকে কেন্দ্র করে জাতিগত সংঘাতের শুরু হয়। সে সময় ৪৬৫টি বাড়ি ও ভবনে অগ্নিসংযোগ ও লুঠতরাজ করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে, দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র, একটি মার্কেট ও নির্বাচন কমিশনের কার্যালয়।

জাতিসংঘের যৌথ মানবাধিকার কার্যালয় (ইউএনজেএইচআরও) এর পরিচালক আব্দুল আজিজ থিওয়ে জানান, শনিবার ইয়ুম্বি শহরে ৫০টিরও বেশি গণকবর শনাক্ত করেছেন তারা।

তিনি বলেন, এর মধ্য দিয়ে বোঝা যাচ্ছে প্রাণহানির সংখ্যা অনেক বেশি। কারণ আকারের ওপর ভিত্তি করে এসব গণকবরে পাঁচটি, দশটি এমনকি ১০০টি কিংবা চার গুণ বেশি মরদেহ থাকতে পারে।

কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের পশ্চিমাঞ্চলীয় সেনাপ্রধান জেনারেল ফল সিকাবোয়ে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, এ ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.