মিয়ানমার জলসীমায় ‘ভুতুড়ে জাহাজ’

0 105

 

ডেস্ক :মানুষ নেই, জন নেই। নেই কোনো চালক। এমনটি একটি রহস্যময় জাহাজ এসে ভিড়েছে মিয়ানমার উপকূলে। স্থানীয় জেলেরা এর নাম দিয়েছে ‘ভুতুড়ে জাহাজ’।

জাহাজটি মিয়ানমারের জলসীমায় প্রথম আবিষ্কার করে দেশটির জেলেরা। লোকজনহীন পরিত্যক্ত জাহাজ দেখে তারা ভয় পেয়ে যায়। পরে তারা স্থানীয় পুলিশকে খবর দেয়।

মিয়ানমারের বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গনের উপকূলে একটি চরে আটকা পড়েছে জাহাজটি। এখন দেশটির কর্তৃপক্ষ জাহাজটি তদন্ত করে দেখছে।

জাহাজটির নাম ‘স্যাম রাতুলাঙ্গি পিবি ১৬০০’। এটি একটি পরিত্যক্ত পণ্যবাহী জাহাজ। গত সপ্তাহের প্রথমদিকে জাহাজটি মিয়ানমার জলসীমায় লোকজনহীন ছাড়াই চলন্ত অবস্থায় ভাসমান দেখতে পায় জেলেরা।

ইয়াঙ্গন পুলিশ জানিয়েছে, জাহাজটিতে কোনো নাবিক কিংবা পণ্য ছিল না।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার জাহাজটিতে আরোহণ করে মিয়ানমার নৌবাহিনী ও ইয়াঙ্গন কর্তৃপক্ষ। তারা এখন জাহাজটি তদন্ত করে দেখছে।

ইয়াঙ্গন পুলিশ ফেসবুকে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, জাহাজটি ভাসতে ভাসতে মিয়ানমার জলসীমায় ইয়াঙ্গনের কাছে একটি চরে এসে ভিড়ে। জাহাজটিতে ইন্দোনেশিয়ার পতাকা ছিল।

মিয়ানমার সমুদ্রসফরকারীদের স্বাধীন ফেডারেশনের মহাসচিব অং কিয়ো লিন জানান, জাহাজটি এখনো চালু রয়েছে। হয়তো কোনো কারণে কেউ জাহাজটি পরিত্যাগ করেছে।

বিশ্বব্যাপী জাহাজ চলাচল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ম্যারিন ট্রাফিক তাদের ওয়েবসাইটে বলেছে, ২০০১ সালে তৈরি জাহাজটি ৫৮০ ফুটের বেশি লম্বা।

এর আগে ২০০৯ সালে তাইওয়ান উপকূলে জাহাজটি সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল। এর পর থেকে নিখোঁজ ছিল জাহাজটি। মিয়ানমার জলসীমায় পরিত্যক্ত জাহাজ চোখে পড়ার ঘটনা এটিই প্রথম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.