খলুনায় কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ১০ জনের যাবজ্জীবন

0 62

 

খুলান প্রতিনিধি:খুলনার তেরখাদায় কলেজছাত্র শেখ বদরুদ্দৌজা হত্যা মামলায় ১০ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনার বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এমএ রব হাওলাদার এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- নবির হোসেন, তবিবুর রহমান, আকা মিয়া শেখ, খাজা মিয়া, বুলু মিয়া, অসিকার শেখ, চাঁন মিয়া শেখ, মনির শেখ, এহিয়া ও কামাল শেখ।

তাদের বাড়ি খুলনার তেরখাদা উপজেলার কুমিরডাঙ্গা পূর্বপাড়া এলাকায়। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে এজাহারে অভিযুক্ত সুলতান আহমেদ ও আব্বাসুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেওয়া হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর জোহরের নামাজের সময় ছোট ছেলে-মেয়েদের হট্টগোলে মসজিদের মুসল্লিদের নামাজে বিঘ্ন ঘটানোর প্রতিবাদ করায় কলেজছাত্র শেখ বদরুদ্দৌজাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। বদরুদ্দৌজা স্থানীয় বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই শেখ আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে তেরখাদা থানায় ১২ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। তেরখাদা থানার উপপরিদর্শক মিজানুর রহমান এ ঘটনায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলাটি চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের পর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে রায় ঘোষণা করা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শাকেরিন সুলতানা জানান, এই হত্যা মামলার পাল্টা হিসেবে বাদী শেখ আসাদুজ্জামানসহ চারজনের বিরুদ্ধে আসামিরা পাল্টা মামলা করেন। ওই অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় বৃহস্পতিবার একইসঙ্গে বিচারক পাল্টা মামলার রায়ে অভিযুক্ত সকলকে খালাস দিয়েছেন।

এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের অপর আইনজীবী এনামুল হক বলেন, এই রায়ের ফলে একজন নিরাপরাধ শিক্ষার্থী হত্যার বিচার হয়েছে। আগামীতে সমাজে এমন হত্যাকাণ্ড না ঘটে এই রায় তার প্রতিফলন হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

নিহতের ছোট ভাই গোলাম রব্বানী বলেন, অনেকদিন পরে হলেও আমরা বিচার পেয়েছি। এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট। উচ্চ আদালতে এই রায় বলবৎ থাকবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.