আগের রূপে ফিরল মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী

মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারাম এবং মদিনার মসজিদে নববীতে সামাজিক দূরত্বের বজায় রাখার নিয়ম তুলে দেওয়া হয়েছে। ফলে দীর্ঘদিন পরে আবারও কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নামাজ আদায়ের সুযোগ পাচ্ছেন মুসল্লিরা।

শনিবার সৌদি আরবের মিনিস্ট্রি অব হজ অ্যান্ড উমরাহ এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যৌথভাবে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে নতুন এই নির্দেশনা দেয়।

এতে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক ওমরাহ যাত্রীরা বাস এবং প্রাইভেট কারের সম্পূর্ণ সিট ব্যবহার করতে পারবেন। তবে হোটেলের ক্ষেত্রে প্রতি রুমে সর্বোচ্চ ২ জনের অবস্থান বলবৎ থাকবে।

আগে যাত্রীরা বাস ও গাড়ির ৫০ শতাংশ সিট ফাঁকা রেখে চলাচল করতেন।

ওমরাহ করতে যাওয়া যাত্রীদের জন্য উন্মুক্ত স্থানে মাস্ক পড়া আর বাধ্যতামূলক থাকবে না কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া। তবে বদ্ধ যায়গায় মাস্ক পড়তে হবে।

মক্কার মসজিদুল হারাম  এবং মদিনার মসজিদে নববীতে ধারণক্ষমতার সম্পূর্ণ অংশে মুসল্লিরা যেতে পারবেন ও নামাজ আদায় করতে পারবেন। এখানে কর্মরত কর্মী এবং আগত ভিজিটরদের অবশ্যই সার্বক্ষণিক মাস্ক পড়তে হবে।

রোববার সকালের বিভিন্ন ফুটেজে দেখা গেছে, লোকজন সারি বেঁধে নামাজ আদায় করছেন। করোনা মহামারি শুরুর পর প্রথমবার এমন দৃশ্য দেখা গেলো।

গ্র্যান্ড মসজিদে সামাজিক দূরত্বের জন্য ফ্লোরে যে স্টিকার লাগানো ছিল এদিন সেগুলো তুলে ফেলতে দেখা গেছে।

ওমরাহ, নামাজ, জিয়ারতের জন্য আগের মতোই ওমরাহ কোম্পানি থেকে তাসরিয়া বা তাওক্কালনা অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে হবে।

তবে টিকার সম্পূর্ণ ডোজ গ্রহণ ছাড়া কিংবা তাওয়াক্কালনায় অ্যাপয়েন্টমেন্ট ছাড়া কেউ এসব জায়গায় যেতে পারবেন না।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.