আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলে ৬০ বছর বয়সে রেকর্ড

কনকাকাফ লিগের একটি ম্যাচে খেলতে মাঠে নেমে রেকর্ড গড়েছেন সুরিনামের ভাইস-প্রেসিডেন্ট রনি ব্রান্সভিক। রাজনৈতিক দায়িত্ব থেকে কিছু সময়ের জন্য মুক্তি পাবার আশায় ৬০ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক ক্লাব পর্যায়ের ম্যাচ খেলতে কাল তিনি মাঠে নেমেছিলেন।

মঙ্গলবার লিগে হন্ডুরাসের ক্লাব সিটি অলিম্পিয়র বিপক্ষে মাঠে ইন্টার মোয়েনগোটাপের অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন ব্রান্সভিক। এই ক্লাবের মালিকও তিনি। ম্যাচটিতে তিনি সর্বমোট ৫৪ মিনিট মাঠে ছিলেন। ম্যাচটিতে হন্ডুরাসের ক্লাবটি ৬-০ গোলে জয়ী হয়ে শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে। ১৯৬১ সালে জন্মগ্রহণ করা বান্সভিক ৬১ নম্বর জার্সি গায়ে মাঠে নেমেছিলেন। ফরোয়ার্ড পজিশনেই তিনি কাল খেলেছেন। ব্রান্সভিকের সাথে তার ছেলে ডামিয়ানও কাল মাঠে নেমেছিলেন।

পেশাদার ফুটবলে সবচেয়ে বেশি বয়সে মাঠে নামার রেকর্ডটি এজেলদিন বাহাদেরের। ৭৫ বছর বয়সী এই মিশরীয় পুরকৌশলে ক্যারিয়ার গড়েছেন, খেলেছেন অপেশাদার ফুটবল। কিন্তু পেশাদার ফুটবলার হতে না পারার আক্ষেপ ভুলেছেন ২০২০ সালের মার্চে। মিশরের তৃতীয় বিভাগে সিক্স অক্টোবর দলের হয়ে নেমে গোলও করেছিলেন এই স্ট্রাইকার। পরে অক্টোবরে নিজের ৭৫তম জন্মদিনের এক মাস আগে গিনেস বুকে নামও লিখিয়েছেন সবচেয়ে বেশি বয়সী ফুটবলার হিসেবে।

বাহাদেরের সে ঘটনা রেকর্ড হলেও সেটি ছিল তৃতীয় স্তরের ফুটবল। কিন্তু গতকাল ইন্টার মোয়েনগোটাপে ও অলিম্পিয়ার ম্যাচটি ছিল মহাদেশীয় প্রতিযোগিতায়। এমন পর্যায়ে ৬০ বছর বয়সী কোন খেলোয়াড়ের ৫৪ মিনিট মাঠে থাকা সত্যিই বিস্ময়কর। ১০ বছর পর মাঠে নেমেছিলেন ব্রান্সভিক। ম্যাচ শেষে প্রতিপক্ষ দলের খেলোয়াড়দের ১০০ ডলার করে উপহারও দিয়েছেন ব্রান্সভিক।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.