ইরান ছাড়লেন ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত

বিক্ষোভকারীদের উস্কানি দেয়াসহ বিভিন্ন বিতর্কের পর নিজ দেশে ফিরে গেছেন ইরানস্থ ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত রব ম্যাকায়ার। দেশটির বিভিন্ন মহল থেকে তাকে বহিষ্কারের দাবি ও অবাঞ্চিত ঘোষণার মধ্যেই তেহরান ত্যাগ করেন তিনি। রব ম্যাকায়ার সব ধরনের প্রটোকল শেষ করে আনুষ্ঠানিক ভাবেই দেশে ফিরেছেন বলে জানানো হয়। খবর ইরনা।

৮ জানুয়ারি ‘ভুলবশত’ ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে অংশ নেয়ায় শনিবার তাকে আটক করে কিছুক্ষণ পর ছেড়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইরানের কঠোর সমালোচনা করে বলেন, এটি আন্তর্জাতিক আইন ও জাতিসংঘ চার্টারের লঙ্ঘন। যদিও ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত দাবি করেন, তিনি সেখানে নিহতদের স্বরণে অনুষ্ঠিত একটি অনুষ্ঠানে মাত্র ৫ মিনিট অবস্থান করেছিলেন। 

এর আগে মঙ্গলবার ইরানের আইনের প্রতি অসম্মান দেখানোর অভিযোগে ইরানস্থ ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতের কুশপত্তলিকা দাহ করে বিক্ষোভকারীরা।  বিকেলে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ম্যাকায়ারের কুশপত্তলিকা ও ব্রিটিশ পতাকা পুড়ানো হয়। খবর এএফপি।

এএফপি জানায়, মঙ্গলবার দুই শতাধিক মুখোশধারী বিশ্বিবিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ‘ব্রিটিশ নিপাত যাক’ স্লোগান দেয় এবং কুশপুত্তলিকা ও পতাকা পোড়ায়।

ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতের ওই পদক্ষেপে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তেহরানের বিক্ষোভে অংশ নেয়া ‘বেআইনি, অপেশাদার ও সন্দেহজনক। রাষ্ট্রদূতের এই ঘটনা ইরানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ এবং কূটনৈতিক শিষ্টাচারের পরিপন্থি। এছাড়াও তার কর্মকাণ্ড যুক্তরাষ্ট্রের অবৈধ চাপ প্রয়োগের ব্যর্থ পদক্ষেপে ব্রিটিশ সরকারের সহযোগিতার অনুমান স্পষ্ট করে।’

এদিকে ইরানের বিচার বিভাগীয় মুখপাত্র গোলাম হোসেইন ইসমাইলি ইরানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগে ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত ম্যাকিয়ারকে অবাঞ্চিত করে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.