চীনাদের ৯৩৬টি একাউন্ট বন্ধ করেছে ফেসবুক-টুইটার

বিতর্কিত অপরাধী প্রত্যর্পণ বিল ইস্যুতে শুরু হওয়া হংকংবাসীর বিক্ষোভ এখন রূপ নিয়েছে অধিকার আন্দোলনে। এ আন্দোলন নিয়ে চলছে নানা ষড়যন্ত্র। আন্দোলন নিয়ে ‘ভুল তথ্য’ ছড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। হংকং আন্দোলন নিয়ে ‘ভুল তথ্য’ ছড়ানোর অভিযোগে চীনা নাগরিকদের ৯৩৬টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। থেমে নেই ফেসবুক কর্তৃপক্ষও। তারাও বন্ধ করেছে ফেসবুকের সাতটি পেজ, তিনটি গ্রুপ ও পাঁচটি একাউন্ট। মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) এমন তথ্যই জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

টুইটার কর্তৃপক্ষ বলছে, হংকং আন্দোলন নিয়ে ‘ভুল তথ্য’ ছড়াচ্ছে চীন। যেটিকে ‘চীনা সমর্থিত ভুল তথ্য ছড়ানোর ক্যাম্পেইন’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে টুইটার। এরই জেরে ওই ৯৩৬টি একাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়। একইসঙ্গে চীনা সরকার পরিচালিত সংবাদমাধ্যম থেকে বিজ্ঞাপন নেয়াও বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার।

টুইটার কর্তৃপক্ষ জানান, বন্ধ করে দেয়া ওই অ্যাকাউন্টগুলো মূলত চীনা নাগরিকদের। সেগুলো ব্যবহার করেই হংকং আন্দোলনের ‘বৈধতা ও রাজনৈতিক অবস্থান’ এর ক্ষতির প্রচেষ্টাই চালানো হচ্ছিল। ওই ৯৩৬টি একাউন্ট ছাড়াও আরো অন্তত দুই লাখ একাউন্ট সক্রিয় হওয়ার আগেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছে টুইটার। কারণ ওই একাউন্টগুলোও হংকং আন্দোলন নিয়ে ‘ভুল তথ্য’ ছড়ানোর উদ্দেশ্যেই খোলা হচ্ছিল। অন্যদিকে, টুইটার কর্তৃপক্ষের এমন পদক্ষেপের পর থেমে নেই ফেসবুক কর্তৃপক্ষও। তারাও ফেসবুক থেকে সাতটি পেজ, তিনটি গ্রুপ ও পাঁচটি একাউন্ট সরিয়ে নিয়েছে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.