পাকিস্তানে ভারী বৃষ্টি-ভবন ধসে নিহত ২০

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে বজ্রপাত ও ভারী বৃষ্টিতে কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন। একই ঘটনায় আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে শনিবার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার থেকে আফগান সীমান্তবর্তী অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতে অনেকগুলো ঘর ভেঙে পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ত্রাণ কর্মকর্তা তাইমুর আলী জানিয়েছেন, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে “বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট ঘটনায়” ১৭ জন নিহত হয়েছিলেন। এদের মধ্যে ১৪ শিশু এবং ৩ নারীও রয়েছেন।

সবচেয়ে খারাপ যে ঘটনা, উত্তর দারগাই শহরে এক ঘটনায় বাড়ির ছাদ ধসে ৫ শিশু মারা গেছে।

জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বেলুচিস্তান প্রদেশে আরও ৩ জন মারা গিয়েছিলেন।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পাকিস্তান-শাসিত কাশ্মীরে বৃষ্টিপাতের ফলে ৫১ টি বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তুষারপাতের কারণে কয়েকটি সড়ক বন্ধ হয়ে গেছে। সামনের কয়েকদিন আবহাওয়া আরও খারাপ হয়ে উঠতে পারে।

দেশজুড়ে সাধারণভাবে নির্মিত বাড়িগুলি, বিশেষত গ্রামাঞ্চলে- বসন্তের বৃষ্টির সময় ধসের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

এর আগে, জানুয়ারিতে মুষলধারে বর্ষণ, তুষারপাত, বন্যা এবং শীতের আবহাওয়ার কারণে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান জুড়ে ১৩০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছিল।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.