রজনীর রংবদল? দিল্লি হিংসায় ব্যর্থতার আঙুল তুললেন অমিত শাহের দিকে

রজনীকান্তের মতে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফর চলাকালীন গোয়েন্দাদের আরও সতর্ক থাকা উচিত ছিল। ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির জন্য যারা ধর্মকে ব্যবহারকার কঠোর ভাষায় নিন্দা করেন সিনেমা থেকে রাজনীতিতে পা রাখা দক্ষিণের এই নেতা। দিল্লির হিংসায় মৃতের সংখ্যা ইতোমধ্যে ২৭ ছাড়িয়ে গিয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: হিংসার আগুনে জ্বলছে রাজধানী দিল্লির একাংশ। উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য অমিত শাহের নিয়ন্ত্রণে থাকা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ব্যর্থতার দিকে আঙুল তুললেন বিজেপির কাছের লোক হিসেবে পরিচিত দক্ষিণী অভিনেতা-রাজনীতিক রজনীকান্ত। গোয়েন্দাদের ব্যর্থতার জন্য এই ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে বুধবার মন্তব্য করেছেন তিনি। একইসঙ্গে কঠোর হাতে হিংসা মোকাবিলার দাবি জানিয়েছেন এই দক্ষিণী অভিনেতা-রাজনীতিক।

উত্তরপূর্ব দিল্লিতে চলতি হিংসায় মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বুধবার সন্ধ্যায় পাওয়া সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে, অন্তত ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। জখম দু’শতাধিক ব্যক্তি। এর মধ্যে বেশ কয়েকজনের আঘাত গুরুতর। দিল্লি পুলিশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের হাতে। রজনীকান্তের মতে, চলতি হিংসার ঘটনা আসলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ব্যর্থতার দিকে আঙুল তোলে।

বুধবার চেন্নাইতে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘দিল্লিতে চলতি বিক্ষোভ আসলে গোয়েন্দাদের ব্যর্থতা। আমি এর নিন্দা করছি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো নেতা যখন এদেশে সফরে এসেছেন তখন গোয়েন্দাদের আরও সচেতন হওয়া উচিত। তারা তাদের কাজ ঠিকমতো করেনি। আমার প্রত্যাশা, অন্তত এখন তাঁরা সক্রিয় হবেন। কঠোর হাতে পরিস্থিতির মোকাবিলা করা প্রয়োজন। আর এটা যদি গোয়েন্দা ব্যর্থতা হয়, তবে তা একইসঙ্গে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ব্যর্থতা। রাজনৈতিক লাভের জন্য যারা ধর্মকে ব্যবহার করে তাদের কঠোর ভাষায় নিন্দা করছি।’

কেন্দ্রীয় সরকার এখনই কড়া হাতে পরিস্থিতি র মোকাবিলা না করে তবে আগামিদিনে বিপদ আরও বাড়বে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রজনীকান্ত।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.