লালগালিচায় দাঁড়িয়ে বোমা নিক্ষেপ বন্ধ করার আহ্বা

কানে এখন সূর্য ডুবে রাত ৯টায়! বুধবারও (১৫ মে) ব্যতিক্রম হয়নি। পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে এদিন রাত ১০টায় ছিল ব্রাজিলিয়ান দুই নির্মাতা ক্লেবার মেনদোসা ফিলো ও জুলিয়ানো দোরনেলিস পরিচালিত ‘বাকুরাউ’।
এ উপলক্ষে ছিল লালগালিচা। অনেকে পা মাড়িয়েছেন সেখানে।
আলাদাভাবে দৃষ্টি কেড়েছেন সিরিয়ার নারী নির্মাতা ওয়াদ আল কাতিব, চিকিৎসক হামজা আল কাতিব ও ব্রিটিশ পরিচালক ‌এডওয়ার্ড ওয়াটস। তারা আলাদা তিনটি কাগজে একটি আহ্বান জানিয়েছেন।
এডওয়ার্ড ওয়াটসের হাতে ছিল ‘স্টপ’। ওয়াদ আল কাতিব দেখিয়েছেন ‘বোম্বিং’। তার স্বামী হামজার দুই হাত উঁচু করে দেখানো কাগজে লেখা ‘হসপিটালস’। তিনটি শব্দকে একত্র করলে দাঁড়ায় ‘স্টপ বোম্বিং হসপিটালস’, অর্থাৎ হাসপাতালে বোমা নিক্ষেপ বন্ধ করুন।
আলেপ্পোর শেষ হাসপাতালে শিশু-কিশোরদের বাঁচাতে সংশ্লিষ্টদের লড়াই ক্যামেরায় ধারণ করেন ওয়াদ। তার এই প্রামাণ্যচিত্রকে সিরিয়ার সংকটকালীন গোপন ডায়েরি বলা যেতে পারে। যুদ্ধ ও মাতৃত্বের নিবিড় প্রতিকৃতি হিসেবে এটি সাজিয়েছেন তিনি। একসময় তার মনে হতো, বোমায় হয়তো বাঁচবেন না। তাই মেয়ের জন্য ভয়েস রেকর্ড করে রাখতেন। তার একটি কথা ছিল এমন, মেয়ের জীবন বাঁচাতে আলেপ্পো ছেড়ে দেবেন নাকি যে স্বাধীনতার জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন সেই আশায় থাকবেন।
‘ফর সামা’ ওয়াদ আল কাতিব ও এডওয়ার্ড ওয়াটসের প্রথম প্রামাণ্যচিত্র। তাই প্রতিযোগিতা বিভাগের বাইরে প্রদর্শিত হলেও ক্যামেরা দ’র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হচ্ছেন এই দু’জন। যে কোনও পরিচালকের প্রথম নির্মাণের ওপর ভিত্তি করে এটি দেওয়া হয়

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.