সিরিয়ায় বিমান হামলায় শতাধিক নিহত

জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান মিশেল ব্যাচলেট শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সিরিয়ায় দেশটির সরকারি বাহিনী এবং তাদের মিত্রদের বিমান হামলায় গত ১০ দিনে ২৬ শিশুসহ অন্তত ১০৩ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান জানিয়েছেন, স্কুল-কলেজ, হাসপাতাল, মার্কেট এবং মুদির দোকানসহ অন্যান্য বেসামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে এসব হামলা চালিয়েছে মিত্রদের সামরিক জোট।

মিশেল ব্যাচলেট শুক্রবারের ওই বিবৃতিতে বলেন, ‘এসব হলো বেসামরিক স্থাপনা। তবে এসব হামলাকে যদি তারা বলে যে দুর্ঘটনা, তাহলে সেটা মেনে নেয়া সম্ভব নয়। কারণ হামলার ধরনগুলো ছিল ভয়াবহ। আন্তর্জাতিক উদাসীনতার সঙ্গে সঙ্গে দিন মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে দেশটিতে।’

দীর্ঘ আট বছর ধরে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ চলছে। দেশটির এই গৃহযুদ্ধে লাখ লাখ মানুষ নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত পাঁচ লাখ। দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন সিরিয়ার প্রায় অর্ধেক মানুষ। দেশটির মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা উদ্বেগ জানালেও তা থামানো যায়নি।

গত ৪০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা বাশার আল আসাদ সরকার পতনের লক্ষ্যে ২০১১ সালের জুলাইয়ে সামরিক বাহিনীর বিদ্রোহীরা ফ্রি সিরিয়ান আর্মি গঠনের ঘোষণা দেয়। এ ঘোষণার মধ্য দিয়েই সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। কিছুদিনের মধ্যেই সশস্ত্র সংঘাত ভয়ংকর রূপ নেয়

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.