ইংল্যান্ডের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে বাংলাদেশ

করোনাকালে ক্রিকেট কাভারের ঝক্কি অনেক। ক্রিকেটের আবহে থাকা হয় ঠিকই,  কিন্তু সামগ্রিক পরিবেশ থেকে অনেক দূরে থাকতে হয় সংবাদকর্মীদের।

সাধারণত বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে, দ্বিপাক্ষিক সিরিজে দেশে-বিদেশে সাংবাদিকদের নিয়ম করেই টিম হোটেলে যেতে হয়।

বিশেষ করে অনুশীলন ছুটির দিনগুলোতে। করোনা ভাইরাস সেই রীতি-নিয়মকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে। টিম হোটেলের পাশে ঘুর-ঘুর করার সুযোগ নেই।

দূর থেকেই মোবাইল ফোনে খোঁজখবর রাখার চেষ্টা করতে হয় সাংবাদিকদের। গতকাল যেমন বাংলাদেশ দলের অনুশীলনে ছুটি ছিল।

দুবাইয়ের ফেস্টিভ্যাল সিটির হোটেল ক্রাউন প্লাজাতে বিশ্রামের দিনটাতে ক্রিকেটাররা হোটেলবন্দি ছিলেন। জৈব সুরক্ষা বলয়ে বসবাস বলে কেউ বাইরে যেতে পারেননি।

স্বাভাবিকভাবে সাংবাদিকদেরও যাওয়ার সুযোগ ছিল না টিম হোটেলে। শ্রীলঙ্কার কাছে হারের ধকল কাটানোর চেষ্টারত বাংলাদেশ দলকে তাই স্বচক্ষে দেখার উপায় ছিল না।

তবে দলের প্রতিনিধি হয়ে পড়ন্ত বিকালে ভিডিও বার্তায় নাঈম শেখ জানিয়েছেন, আশাহত নয় টাইগার শিবির। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিন বিভাগেই ভালো করতে হবে বাংলাদেশকে।

তবে জয়ের সুযোগও বাড়বে পরের ম্যাচগুলোতে। আগামীকাল সুপার-১২ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি, শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায়।

ওয়ানডে, টেস্টে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু মজার বিষয় ক্রিকেটের খুদে সংস্করণে ইংলিশদের বিপক্ষে কখনোই খেলেনি টাইগাররা

দৃশ্যত তাই অচেনা ইংল্যান্ডের জন্যই প্রস্তুত হচ্ছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। অন্তত টি-২০ তে ইংল্যান্ড নতুন প্রতিপক্ষই সাকিব-মুস্তাফিজদের জন্য। এবং প্রথম ম্যাচ হেরে যাওয়ায় কালকের ম্যাচটি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ।

ইংল্যান্ড বড় প্রতিপক্ষ হলেও কাল বাংলাদেশ জয়ের জন্যই খেলবে। গত রবিবার ম্যাচের পর মুশফিকুর রহিম বলেছিলেন, এটা সত্যি খারাপ লাগে যে ভালো খেলে হারলে সেই ভালো খেলার কোনো মানে নেই।

তবে আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে, এই ফরম্যাটে বড় দল বা ছোট দল বলে কিছু নেই। সামনে একইভাবে আমরা এগোতে চাই। আগামী ম্যাচে আমরা জয়ের জন্যই খেলব।

লঙ্কানদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ৬২ রান করা নাঈম শেখ বলেছেন, কন্ডিশনে মানিয়ে নিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলতে চায় বাংলাদেশ।

গতকাল এ বাঁহাতি ওপেনার বলেছেন, আমরা রবিবার কোনো একটা ভুলের কারণে জিততে পারিনি। ইনশাআল্লাহ আমাদের ফোকাস থাকবে সামনের ম্যাচগুলোতে যেন তিনটা ডিপার্টমেন্টে ভালো করতে পারি।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে হারিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। মাত্র ৫৫ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ক্যারিবিয়ানরা। তাই বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট ইংল্যান্ডকে হারাতে হলে সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.