ইউটিউব চ্যানেল ও আইনজীবীর নামে মামলা করলেন সামান্থা

বিবাহবিচ্ছেদের পর সমালোচনা সহ্য করেই দিন পার করে দিচ্ছেন দক্ষিণ ভারতের তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু।

তার ব্যক্তিজীবন নিয়ে নানা জল্পনা–কল্পনার শেষ হচ্ছে না। নাগা চৈতন্যের সঙ্গে কেন বিচ্ছেদ ঘটালেন সামান্থা – তার কারণ খোঁজা হচ্ছে।

বিষয়টিকে বাড়াবাড়ির পর্যায়ে নিয়ে গেছে ভারতের বেশ কয়েকটি ইউটিউব চ্যানেল।

মাত্রা ছাড়িয়ে কয়েকটি চ্যানেলের বিষয়বস্তু তো রীতিমতো সভ্যতার সীমা অতিক্রম করে ফেলেছিল।

এতে মনক্ষুণ্ন হয়ে কয়েকটি চ্যানেলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন অভিনেত্রী সামান্থা।

ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপি আনন্দ জানিয়েছে, মিথ্যা খবর রটানোর কারণে সুমন টিভি, তেলেগু পপুলার টিভিসহ একাধিক ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন অভিনেত্রী সামান্থা রথ প্রভু।

শুধু ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধেই নয়, একজন আইনজীবীর বিরুদ্ধেও মানহানির মামলা করেছেন তিনি। ভেংকট রাও নামের ওই আইনজীবী সামান্থার দাম্পত্য জীবন এবং সামান্থার প্রেম নিয়ে গুজবের বিষয়ে মন্তব্য করেছিলেন।

এর আগে অবশ্য গুজবে কান দেন না বলেই জানিয়েছেন সামান্থা। এ পর্যন্ত যত গুজব রটেছে, সব উড়িয়ে দিয়েছেন সামান্থা।

এক টুইটে তিনি লিখেছিলেন, আমার ব্যক্তিগত সংকট নিয়ে আপনাদের আগ্রহ আমাকে অভিভূত করেছে। আমার ব্যাপারে সহানুভূতি ও উদ্বেগ দেখানোর জন্য, গুজব এবং মিথ্যা গল্পগুলো থেকে আমাকে রক্ষা করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

তারা বলছে, আমার নাকি আরেকটা সম্পর্ক ছিল, আমি নাকি কখনই সন্তান নিতে চাইনি, আমি একজন সুবিধাবাদী এবং আমার নাকি বাচ্চা নষ্ট হয়েছে।

তালাক একটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক প্রক্রিয়া। আমাকে সেই বেদনা থেকে বেরিয়ে আসার সময় দিন। আমার ওপর আক্রমণ অনেক হয়েছে। প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, আমাকে নিয়ে যা খুশি বলেন, কিন্তু আমাকে ভাঙতে পারবেন না।

তবে এবার মনে হচ্ছে ঠিকই ভেঙে পড়েছেন সামান্থা। এসব গুজব থামাতে মামলাই করে বসলেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.