কাশ্মীরে গণহত্যার কালো দিবসে পাকিস্তান হাইকমিশনের সামনে মানববন্ধন

মানববন্ধনসহ বিভিন্ন আয়োজনে ১৯৪৭ সালে কাশ্মীর দখলে নেওয়ার জন্য পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গণহত্যা স্মরণ করেছে বিভিন্ন সংগঠন।

শুক্রবার পাকিস্তান হাইকমিশনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি ওপেন ডায়লগ বাংলাদেশ ।

কর্মসূচিতে উপস্থিত নেতারা বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার জন্য পুরো এশিয়া উপমহাদেশে সহিংসতা ও দ্বিধাদ্বন্দ্ব ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য এই ঘৃণ্য নীলনকশা বাস্তবায়ন করেছিল পাকিস্তান।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বাংলাদেশে পাকিস্তানি বাহিনী দ্বারা পরিচালিত ‘অপারেশন সার্চলাইট’ নামক গণহত্যার কোডের সমান্তরালে তৈরি হয়েছিল এই আয়োজন।

মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, ২২ অক্টোবর, ১৯৪৭ সালে ৪০ হাজারের বেশি কাশ্মীরি মুসলমান, শিখ ও হিন্দু বর্বর পাক সেনাদের হাতে নিহত হয়েছিল।

১০ হাজার নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছিল এবং দুই হাজার নারীকে জোর করে পাকিস্তান নিয়ে গিয়েছিল বর্বর বাহিনী। এ আক্রমণ রাতারাতি ঘটেনি, এটি পাকিস্তানের কৌশলগত পরিকল্পনা।

হানাদার বাহিনী দ্বারা বড় আকারের নৃশংসতা চালানো হয়েছিল। বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা ও তাদের সম্পদ লুট করা হয়েছিল, এমনকি হাসপাতালগুলোকেও রেহাই দেওয়া হয়নি।

অপারেশন গুলমার্গ নামে পাকিস্তান নেতৃত্বাধীন উপজাতীয় বাহিনী বা কাবালিওয়ালীদের ১৯৪৭ সালে নিরীহ কাশ্মীরি জনগোষ্ঠীর ওপর ২২ অক্টোবর আক্রমণের কোড জম্মু ও কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ নিতেই এই আক্রমন চালানো হয়ে ছিল।

ওপেন ডায়লগ বাংলাদেশের সমন্বয়কারী মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট লেখক, সাংবাদিক ও রাজনীতিক গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, রাজনীতিক হামদুল্লাহ আল মেহেদী, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশনের বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের কার্যকর সভাপতি এ টি এম মমতাজুল করিম, নারী নেত্রী মিতা রহমান, আন্তর্জাতিক প্রবাসী মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এইচ এম মনিরুজ্জামান, বাংলাদেশ নাগরিক পরিষদ সভাপতি আবদুল আহাদ, সমাজকর্মী আর কে রিপন, মানবাধিকার সংগঠক এ জে আলমগীর প্রমুখ।

এদিকে ১৯৪৭ সালে কাশ্মিরে পাকিস্তানের আগ্রাসনের ‘কালো দিবস’ উপলক্ষে শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘অপারেশন গুলমার্গ এবং অপারেশন সার্চলাইট : পাকিস্তানের পরিকল্পিত গণহত্যা’ শীর্ষক এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মুক্তচিন্তা ও যুক্তিবাদ চর্চা ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএসএমএমইউ এর অধ্যাপক ডা. অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল, ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা ভুঁইয়া। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সিনিয়র সাংবাদিক বাসুদেব ধর এবং সঞ্চালনা করেন সিনিয়র সাংবাদিক আমিনুল হক ভুইয়া।

বাংলাদেশ সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্টস ফোরাম , বাংলাদেশ হাদিস পার্ক, খুলনা এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহীতে ‘কালো দিবস’ উপলক্ষে মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এদিকে ১৯৪৭ সালের ২২ অক্টোবর কাশ্মীরে পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীর আগ্রাসনের ‘কালো দিবস’ উপলক্ষে পথনাটক ‘অপারেশন গুলমার্গ’ মঞ্চস্থ হয়েছে। শুক্রবার ২২ অক্টোবর সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই নাটক মঞ্চস্থ হয়।

পথ নাটকে কাশ্মীরে পাকিস্তানের গণহত্যা এবং ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ ঢাকায় পাকিস্তানি বাহিনীর অপারেশন সার্চলাইট এর মাধ্যমে গণহত্যার বিষয়টি ফুটিয়ে তোলেন নাটকের কলাকূশলীরা।

অনুষ্ঠানটি জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। নাটকের পাশাপাশি পরিবেশন করা হয় গণসংগীত।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.