কয়েদি নম্বর এন৯৫৬

মুম্বাই কেন্দ্রীয় কারাগারে এক সপ্তাহ পূর্ণ করেছেন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। কারাগারটি আর্থার রোড জেল নামেও পরিচিত।

এদিকে বৃহস্পতিবার মাদককাণ্ডে জামিন পাননি আরিয়ান। তার জামিনের আবেদনের রায় স্থগিত রেখেছে মুম্বাই সেশন কোর্ট।  অর্থাৎ আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত কারাবন্দিই থাকতে হবে শাহরুখপুত্রকে।

জেল সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, কারাগারে আরিয়ান খানের কয়েদি নম্বর এন৯৫৬। কারাগারের ফার্স্ট ফ্লোরের কোয়ারেন্টিন ব্যারাকে রাখা হয়েছে তাকে। কারাগারে বেশ বিরক্ত আরিয়ান।

স্টার কিড হওয়ায় ও মুম্বাই ড্রাগস মামলার সব অভিযুক্তকে নিরাপত্তার কারণে অন্য কয়েদিদের থেকে আলাদা ব্যারাকে রাখা হয়েছে আরিয়ানকে।

স্টারকিড হওয়াতেও কোনো ভিআইপি ট্রিটমেন্ট পাচ্ছেন না আরিয়ান। বাকি সব কয়েদির মতো তিনিও একই সুবিধা পাচ্ছেন। তাদের জন্য বরাদ্দ খাবারের মেন্যু আরিয়ানের জন্যেও। তবে ক্যান্টিন থেকে খাবার আনার ব্যবস্থা রয়েছে। এরজন্য টাকা খরচ করতে হবে।

আর সেই লক্ষ্যেই আরিয়ান খানের পরিবারের কাছ থেকে আর্থার রোড জেল কর্তৃপক্ষ গত ১১ অক্টোবর ৪,৫০০ টাকার একটি মানি অর্ডার পেয়েছিল।

জেলের নিয়ম অনুযায়ী, একজন বন্দীকে প্রতি মাসে ৪,৫০০ টাকার একটি মানি অর্ডার পাঠানোর অনুমতি দেওয়া হয়। তাই ছেলেকে এই অর্থের বেশি দিতে পারেননি শাহরুখ খান।

আর্থার রোড জেলে আরিয়ান খানকে প্রতিদিন সকাল ৬টার বেশি ঘুমাতে দেওয়া হয় না। সকাল ৭টায় নাস্তা এবং সকাল ১১টায় মধ্যাহ্নভোজন সরবরাহ করা হয়। সন্ধ্যা ৬টায় রাতের খাবার দেওয়া হয়। এরপর ব্যারাক বন্ধ করে দেওয়া হয়।

বিকেলে, বন্দীদের জেলের মাঝখানে অবস্থিত খোলা এলাকায় ঘুরে বেড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়।

সূত্র অনুযায়ী, কারা কর্মকর্তারা আরিয়ান খানের উপর ২৪ ঘণ্টা নজর রাখছেন।

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.