মেয়ে পটাতে’ গিয়ে যে ভুলের মাসুল দিচ্ছেন রাসেল

মেয়ে পটাতে’ গিয়ে যে ভুলের মাসুল দিচ্ছেন রাসেল

টিনএজ বয়স থেকেই মেয়েদের চোখে নিজেকে আকর্ষণীয় হিসেবে তুল ধরার জন্য অনেক চেষ্টা করে যায় ছেলেরা। উইন্ডিজের দানবীয় অল-রাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলও এর ব্যতিক্রম নন। নারী মহলে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে শরীরের উপরের অংশ অর্থাৎ কাঁধ, পেটের পেশির ব্যায়াম যে রকম নিষ্ঠা মেনে করতেন, সে ভাবে হাঁটুর ব্যায়ামে জোর দেননি। যে কারণে পরবর্তী সময়ে তাকে হাঁটুর যন্ত্রণায় ভূগতে হয়েছে। এই তথ্য নিজেই স্বীকার করেছেন এই ক্যারিবিয়ান দানব।
সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি ক্রিকেট অনুষ্ঠানে গিয়ে রাসেল উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এসব বলেন। রাসেলের ভাষায়, ‘যারা আগামী দিনের রাসেল হতে চাও, তারা কখনও আমি যা ভুল করেছি তা করতে যেও না। আমার বয়স যখন ২৩-২৪, তখন থেকেই হাঁটুর ব্যথা আমার সঙ্গী। ছোটবেলায় কেউ যদি বলত, হাঁটুকে শক্ত ও মজবুত করার জন্য কিছু সাধারণ ব্যায়াম করলেই হবে। তা হলে বড় হওয়ার পরে হাঁটুর যন্ত্রণা বয়ে বেড়াতে হত না আমাকে। এমনকি পরবর্তী কালে হাঁটুর অস্ত্রোপচারও করাতে হত না। আমি এই বয়সে এসে আরও ফিট থাকতে পারতাম।’

রাসেল আরও বলেন, ‘তখন অল্প বয়স ছিল, তাই হাঁটুর যন্ত্রণাকে গুরুত্ব দেইনি। ব্যথা কমানোর ওষুধ খেয়ে চালিয়ে নিতাম। সেভাবেই মেয়েদের চোখে আকর্ষণীয় থাকার জন্য জিমে গিয়ে কাঁধ ও পেটের পেশি সুগঠিত করার জন্য মন দিতাম। কিন্তু হাঁটুর ব্যায়াম না করায় পা দুর্বল হয়ে পড়ে। হাঁটু নিয়ে যত্নশীল হলে হয়তো আরও বড় বড় রেকর্ড গড়তে পারতাম। তবে হাঁটুর ব্যথা থাকা সত্ত্বেও এই বয়সে এসেও অবলীয়ায় বড় বড় চার-ছক্কা মারতে পারি। এটাই বা কম কীসে?’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.