চুয়াডাঙ্গায় ৬ বিজিবি’র ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

চুয়াডাঙ্গায় ৬ বিজিবি’র ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। শনিবার বিকালে চুয়াডাঙ্গার জাফরপুরে ৬ বিজিবি ব্যাটালিয়নে জাকজমকপূর্ণভাবে পালিত হয় বিজিবি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী।

 

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার, কুষ্টিয়া সেক্টর কমাণ্ডার কর্ণেল মহিউদ্দীন মোঃ জাবেদ, এসইউপি, পিএসসি, জি, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড: মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানসহ রিজিয়ন সদর দপ্তর, যশোর এর অধিনস্থ বিভিন্ন অফিসারবৃন্দ, স্থানীয় সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

এসময় অতিথিবৃন্দ ৬ বিজিবি’র ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটেন। পরে এক প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়।

 

চুয়াডাঙ্গাস্থ-৬ বিজিবি’র পরিচালক মোহাম্মদ খালেকুজ্জামান, পিবিজিএম, পিএসসি জানান, ১৯৭৫ সালের ০১ লা জানুয়ারী রংপুর সেক্টরের অধীনস্থ কুড়িগ্রামে এই ব্যাটালিয়ন প্রতিষ্ঠা লাভ করে।

 

৬ বছর কুড়িগ্রামে সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালন করার পর ১৯৮০ সালের ৩০ জুন এই ব্যাটালিয়ন খাগড়াছড়িতে স্থানান্তর পূর্বক বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চিহ্নিতকরণের এক গুরত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োগ করা হয়।

 

সীমান্তে চিহ্নিত করণের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে খাগড়াছড়ির শীলছড়ি নামক স্থানে তথাকথিত শান্তিবাহিনীর সাথে সংঘর্ষে অত্র ব্যাটালিয়নের ০৬ জন অকুতোভয় সৈনিক শাহাদত বরণ করেন এবং অন্য ০৩ জন সৈনিক গুরুতর আহত হন।

১৯৮৩ সালে পূনরায় ব্যাটালিয়ন তার পূর্বের স্থান কুড়িগ্রামে স্থানান্তর হয়। ব্যাটালিয়ন দ্বিতীয়বারের মত কুড়িগ্রামে দায়িত্ব পালনকালে ১৯৮৪ সালে ভারত কর্তৃক নোম্যান্স ল্যান্ডে জোর পূর্বক কাঁটা তারের বেড়া নির্মাণ কাজ প্রতিহত করতে গিয়ে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অত্র ব্যাটালিয়নের সিপাহী আতাউর রহমান শাহাদত বরণ করেন এবং নায়েক মেহের আলী গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন।

 

৩১ মার্চ ১৯৮৯ সালের অত্র ব্যাটালিয়ন চট্টগ্রাম সেক্টরের অধীনস্থ বলিপাড়ায় স্থানান্তির হয়ে পার্বত্য এলাকার সন্ত্রাস দমন কাজে নিয়োজিত ছিল।

 

পাবর্ত্য এলাকায় সাফল্যজনকভাবে উক্ত দায়িত্ব পালন শেষে সময়ের পরিক্রমায় নওগাঁ, বরকল, চাপাইনবাবগঞ্জ ও জামালপুরে দায়িত্ব পালন শেষে ২০১৩ সালের ২৩ মার্চ জামালপুর হতে কুষ্টিয়া সেক্টরের অধীনস্থ চুয়াডাঙ্গায় স্থানান্তিরত হয় ।

 

চুয়াডাঙ্গা ব্যাটালিয়ন চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুর জেলার দায়িত্বপূর্ণ ১১৩ কিঃ মিঃ সীমান্ত এলাকায় জনসাধারণের আস্থা অর্জনসহ সীমান্তবর্তী এলাকায় সকল প্রকার অপরাধ প্রতিহত করার লক্ষ্যে নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

 

তিনি আরো জানান, করোনা কালীন সময়েও চুয়াডাঙ্গা ব্যাটালিয়ন এর অকুতোভয় সদস্যগণ সীমান্ত সুরক্ষায় মহান দায়িত্বের পাশাপাশি জনসাধারণকে করোনার মহামারি প্রকোপ থেকে বিরত থাকা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে স্থানীয় আইন শৃক্সখলা বাহিনীর সাথে দায়িত্ব পালন করে।

 

এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন ও আভ্যন্তরীন আইন শৃক্সখলা রক্ষার্থে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করে ভূয়শী প্রংশসিত হয়।

 

গত ৩ বছরে ৬ বিজিবি  ২৮ হাজার ৭১৮ বোতল মদ, ১ হাজার ৮৩.৬৮২ কেজি গাঁজা, ১লক্ষ ৪০হাজার ৫২৬ বোতল ফেন্সিডিল, ৯৭.৫৫৮ কেজি স্বর্ণ, ৩৫৯.৫৯ কেজি রোপ্যসহ অন্যান্য মালামাল/ আসামী আটক করতে সক্ষম হয়।

 

 

আরও পড়ুন

শিক্ষা  অপরাধ  স্বাস্থ্য  অর্থনীতি  রাজনীতি  আন্তর্জাতিক  খেলাধুলা  লাইফস্টাইল  সারাদেশ

চুয়াডাঙ্গায় চুয়াডাঙ্গায় 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.