ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসকদের অবস্থান কর্মসূচি ও স্মারকলিপি প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার: বৃহস্পতিবার ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাধীনতা দেশজ চিকিৎসক পরিষদ-স্বাদেচিপ’র ব্যানারে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শতাধিক চিকিৎসক অবস্থান কর্মসূচী পালন করে। এ সময় বক্তারা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ঘোষিত পদক্ষেপ অনুযায়ী বিইউএমএস ও বিএএমএস ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসকগন প্রান্তিক অঞ্চল থেকে শুরু করে দেশের সর্বত্র সাধারন মানুষের চিকিৎসা সেবা প্রদানে বদ্ধ পরিকর। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনি ইস্তেহার অনুযায়ী এই চিকিৎসা ও শিক্ষা ব্যবস্হার ব্যাপক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড হাতে নিয়েছেন এবং প্রথম শ্রেণির পদমর্যাদায় প্রায় তিন শতাধিক বিইউএমএস ও বিএএমএস ডিগ্রিধারী চিকিৎসকগণকে মেডিকেল অফিসার পদে বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়োগ দিয়েছেন। দেশের করোনাকালীন এই ক্রান্তিলগ্নে অন্যান্য চিকিৎসকগণের সাথে বিএএমএস ও বিইউএমএস চিকিৎসকগণ কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, সরকারি কর্মচারী হাসপাতালসহ বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোষ্টার ভিত্তিক ডিউটি করেছেন। বিইউএমএস ও বিএএমএস ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসকগণ নিজস্ব পদ্ধতির চিকিৎসার পাশাপাশি তাদের কোর্স কারিকুলামের অংশ হিসেবে যে কোন জরুরী ও আধুনিক চিকিৎসা দিতে সক্ষমতা রাখে।


বিইউএমএস ও বিএএমএস ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসকদের সফলতা ও সক্ষমতার ঈর্ষান্বিত হয়ে কিছু ষড়যন্ত্রকারী আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে ভুল বুঝিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাকে ব্যাহত করতে বিইউএমএস ও বিএএমএস চিকিৎসকদের হয়রানি করছে এবং বিভিন্ন সময়ে দেশের বেসরকারি হাসপাতালে বৈধভাবে কর্মরত বিইউএমএস ও বিএএমএস চিকিৎসকদের প্রাতিষ্ঠানিক সনদ ও তথ্য-প্রমাণাদি থাকা সত্বেও তাদের যোগ্যতাকে খাট করে অনুমান নির্ভর অসামাঞ্জস্যপূর্ণ তথ্য বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ করে জনমনে ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক চিকিৎসাকে হেয় প্রতিপন্ন করা হচ্ছে। এ সময় স্বাধীনতা দেশজ চিকিৎসক পরিষদ (স্বাদেচিপ) এর পক্ষ থেকে এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়। পাশাপাশি বিইউএমএস ও বিএএমএস চিকিৎসকদের জন্য বাংলাদেশ ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডেকেল কাউন্সিল গঠনের জন্য জোর দাবী করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা দেশজ চিকিৎসক পরিষদ (স্বাদেচিপ) এর সভাপতি ডাঃ আ জ ম দৌলত আল মামুন, মহাসচিব ডাঃ এ কে এম মামুন উর রশিদ চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ জ্যোতিষ চন্দ্র মন্ডল ও ডাঃ ইউসুফ, সাংগাঠনিক সম্পাদক ডাঃ আবু বকর সিদ্দিক, ডাঃএ এইচ এম কামরুজ্জামান সুমন, ডাঃ সোহরাব হোসেন বাদল, ডাঃ রুহুল আমিন ভূঁইয়া, ডাঃ অনাদি হোসেন মামুন, ডাঃ মমিনুল ইসলাম রানাসহ অনেকে। বাংলাদেশ ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক গ্রাজুয়েট চিকিৎসক সমন্বয় পরিষদের আহবায়ক ডাঃ আলমগীর হোসেন, সরকারী ইউনানি আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্নি চিকিৎসকবৃন্দ ও বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে আগত চিকিৎসকবৃন্দরাও অংশ নেন অনুষ্ঠানে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.