তামাক কোম্পানি পুরস্কারের অযোগ্য

তামাক ও তামাকজাতীয় পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কারের জন্য অযোগ্য ঘোষণা করে অতিসম্প্রতি নতুন নীতিমালা প্রকাশ করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়। এমন এক সময় শিল্প মন্ত্রণালয় এই পদক্ষেপ নিল যখন বাংলাদেশ করোনাভাইরাস মহামারি অতিক্রম করছে এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তামাককে করোনা সংক্রমণ সহায়ক হিসেবে চিহ্নিত করে এর ব্যবহার নিরুৎসাহিত করার আহ্বান জানিয়েছে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের এই পদক্ষেপ অত্যন্ত সময়োপযোগী এবং প্রশংসনীয়। প্রজ্ঞা সহ তামাকবিরোধী সংগঠনসমূহের তীব্র প্রতিবাদ সত্ত্বেও বিগত কয়েক বছর ধরে বহুজাতিক তামাক কোম্পানি ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ এই পুরস্কার পেয়ে আসছিল। উল্লেখ্য, মহামান্য রাষ্ট্রপতির পদের বিপরীতে ০.৬৪ শতাংশ শেয়ার থাকার সুবাদে সরকারের কাছ থেকে নানা ধরনের ব্যবসায়িক সুবিধা আদায় করে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে কোম্পানিটির বিরুদ্ধে।

এবিষয়ে প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের বলেন, শিল্প মন্ত্রণালয়ের এই দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে অন্যান্য মন্ত্রণালয়েরও উচিত হবে প্রাণঘাতী তামাক পণ্য উৎপাদনকারী কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত না করা। বাংলাদেশে প্রতিবছর ১ লক্ষ ২৬ হাজার মানুষ তামাক ব্যবহারের কারণে অকালে মারা যায়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তামাক ব্যবহারের ভয়াবহতা উপলব্ধি করেই ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.