পাপিয়ার মামলা লড়ছে বিএনপির আইনজীবী

অস্ত্র, মাদক ও জাল টাকার পৃথক তিনটি মামলায় গ্রেপ্তার নরসিংদীর জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়ার আইনজীবী হয়ে মামলা লড়ছেন বিএনপির আইনজীবী ইলতুতমিস এ্যানি।

গত ২২শে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ পুলিশের বিশেষ বাহিনী র‍্যাব ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে পাপিয়া এবং তার স্বামীকে আটক করে। পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী দুজন সহযোগী সহ এই দম্পতি ভারতে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন, তখন তাদের ধরা হয়।

পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত শামীমা নূর পাপিয়া এবং তাঁর স্বামী মফিজুর রহমানের ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে এই আদেশ দেন।

পাপিয়ার আইনজীবী হয়ে মামলা লড়ছেন বিএনপির আইনজীবী ইলতুতমিস এ্যানি। তিনি ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে ইলতুতমিস এ্যানি সেচ্ছাসেবক দল করে এবং জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতা।

র‌্যাব বলছে, অবৈধ অস্ত্র ও মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, অনৈতিক কর্মকাণ্ড, জাল নোট সরবরাহ, রাজস্ব ফাঁকি, অর্থ পাচারসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকায় পাপিয়া সহ তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। গত ১২ অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে এই দম্পতি পাঁচ তারকা হোটেলের কয়েকটি বিলাসবহুল কক্ষে অবস্থান করেন। এ জন্য তাঁরা পরিশোধ করেন ৮১ লাখ ৪২ হাজার টাকা। র‌্যাবের দাবি, এই অর্থের উৎস সম্পর্কে সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেননি এই দম্পতি।

র‍্যাব জানায়, পাপিয়া ও তাঁর স্বামীর মালিকানায় ইন্দিরা রোডে দুটি ফ্ল্যাট, নরসিংদীতে দুটি ফ্ল্যাট ও ২ কোটি টাকা দামের দুটি প্লট, তেজগাঁওয়ে এফডিসি ফটকের কাছে গাড়ির শোরুমে ১ কোটি টাকার বিনিয়োগ এবং নরসিংদী জেলায় ‘কেএমসি কার ওয়াশ অ্যান্ড অটো সলিউশন’ নামের প্রতিষ্ঠানে ৪০ লাখ টাকা বিনিয়োগ আছে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.