৫ টাকা বেশি নেয়ার অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির ম্যাজিস্ট্রেট

ঘটনাস্থল হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ছবিতে যে তরুণকে দেখছেন তিনি আফতাব উদ্দিন। বিমানবন্দরে এসেছিলেন বিদেশ থেকে আসা বাবাকে নিয়ে যেতে। বাবার জন্য অপেক্ষার একপর্যায়ে তিনি ক্যানপি সংলগ্ন একটি দোকান থেকে হাফ লিটার পানি কিনলেন। পানির বোতলের গায়ে লেখা আছে-‘সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৫ টাকা’। কিন্তু বিক্রেতা আফতাব উদ্দিনের কাছ থেকে ২০ টাকা আদায় করলেন দোকানদার।

সচেতন মানুষ আফতাব উদ্দিন দৃঢ়ভাবে জানালেন যে, সর্বোচ্চ খুচরা মূল্যের অতিরিক্ত দাম রাখা অপরাধ এবং এর জন্য তিনি ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে যাবেন। বিক্রেতা তার এ কথায় তাচ্ছিল্য করলেন। বললেন, ‘মাত্র ৫ টাকার জন্য ম্যাজিস্ট্রেট আসবে এখানে?’

আফতাব উদ্দিন দমলেন না। ম্যাজিস্ট্রেটকে ফোন করে বিস্তারিত জানালেন। ম্যাজিস্ট্রেট ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় বিক্রেতাকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করলেন। অভিযোগকারী আফতাব উদ্দিন আদায়কৃত জরিমানার ২৫ শতাংশ বুঝে নিলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) শাহজালাল বিমানবন্দরে এ ঘটনা ঘটে। আর বিক্রেতাকে এ জরিমানা করেন বিমানবন্দরের ম্যাজিস্ট্রেট। পরে ম্যাজিস্ট্রেটস অল এয়ারপোর্টস অব বাংলাদেশ নামে একটি ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন ওই ম্যাজিস্ট্রেট। তিনি লিখেছেন, ‘বিমানবন্দরের অনেক ব্যবসায়ী হয়তো এখনো বুঝে উঠতে পারেননি যে, মানুষ এখন অনেক সচেতন। ক্রেতার অসহায়ত্বকে পুঁজি করে ব্যবসা করার দিন শেষ হয়ে গেছে।’

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.