জেএমবির শীর্ষ জঙ্গি সালেহীনের ফাঁসি বহাল

ধর্মান্তরিতের অভিযোগে গণি গোমেজকে হত্যা করেন জেএমবির শীর্ষ জঙ্গিরা। ওই হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড হয় জঙ্গি সালাউদ্দিন সালেহীনরাকিব হাসানের। সেই মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখে হাইকোর্ট

 

হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে তাদের আপিল বিচারাধীন ছিল। কিন্তু জঙ্গি হামলা সংক্রান্ত এক মামলায় গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে আদালতে নিয়ে যাওয়ার সময় তাদেরকে ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা।

 

পরে পুলিশের অভিযানে জঙ্গি রাকিব নিহত হন। কিন্তু পালিয়ে যান জঙ্গি সালেহীন। এই দুই জঙ্গির বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের দাখিলকৃত তথ্য পর্যালোচনা করে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ সালেহীনের আপিল খারিজ করে দেয়। অপর জঙ্গি রাকিব নিহত হওয়ায় তার আপিল বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ মঙ্গলবার এই রায় দেন।

 

বেঞ্চের অপর সদস্যরা হলেন- বিচারপতি মুহাম্মদ ইমান আলী, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান ও বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

 

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান চৌধুরী। আদালত বলেন, পলাতকদের আইনের আশ্রয়লাভের সুযোগ নাই।

 

২০০৪ সালে জামালপুরে গণি গোমেজকে হত্যা করেন জেএমবির জঙ্গিরা। ওই মামলায় ২০০৬ সালে সালেহীন ও রাকিবকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

 

সেই মামলায় ওই বছরই ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ তাদের মৃত্যুদণ্ড দেন। পরে ফাঁসি বহাল রাখে হাইকোর্ট। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে এই জঙ্গিরা।

 

গত সপ্তাহে ওই আপিলের শুনানিতে আসামি পক্ষে শুনানি করেন রাষ্ট্রনিযুক্ত কৌসুলি নাহিদ মাহতাব। শুনানির এক পর্যায়ে আপিল বিভাগ আসামিদের বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য জানতে চান।

 

এরপরই অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মেহেদী হাসান চৌধুরী আসামিদের বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য আদালতকে অবহিত করেন। সেখানে বলা হয়, ২০১৪ সালে ত্রিশালে প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে তিন জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা। তার মধ্যে সালেহীন ছিল।

 

আজ পর্যন্ত তার কোনো খোজ পাওয়া যায়নি। সে এখনো পলাতক। তবে জঙ্গি রাকিবকে গ্রেফতার করতে গেলে তিনি পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন। এরপরই আপিল বিভাগ জঙ্গি সালেহীনের আপিল খারিজ করে দেন। আর জঙ্গি রাকিবের আপিল অ্যাবেটেট (বাতিল) ঘোষণা করা হয়।

 

প্রসঙ্গত ২০০৬ সালে গ্রেফতার হন জঙ্গি সালেহীন ও রাকিব। রাকিবের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই বছরই সিলেট থেকে জেএমবির শীর্ষ নেতা শায়খ আব্দুর রহমানকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

 

পরে দুই বিচারক হত্যা মামলায় শায়খ আব্দুর রহমান, সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইসহ ছয় জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে সরকার।

 

 

জেএমবি জেএমবি জেএমবি জেএমবি

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.