পেট্রল ডিজেলের চেয়ে বিমানের জ্বালানির দাম কম

পেট্রল ও ডিজেলের দাম ছাড়িয়ে গেছে বিমানের জ্বালানির দামকেও। ভারতে বৃহস্পতিবার প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ১০৮ রুপি ৭৮ পয়সায়। ডিজেলের দরও ১০০ রুপির উপরে।

প্রতি লিটার ডিজেল বিক্রি হয়েছে ১০০ রুপি ১৪ পয়সায়। অথচ বৃহস্পতিবার বিমানের জ্বালানি এয়ার টারবাইন ফুয়েল- এর দর লিটার প্রতি ৭৬ রুপি ৫৯ পয়সা।

ফলে লিটার প্রতি জ্বালানির দর অনুযায়ী এমনটা মনে হতেই পারে, মোটরসাইকেল চালানোর চেয়ে উড়োজাহাজে ওড়া সস্তার।

বর্তমানে ভারতের কেন্দ্রীয় যে পরিমাণে কর চাপায় তাতে প্রতি লিটার পেট্রলে কেন্দ্র বিক্রি হয় ৩২.৮০ রুপি আর ডিজেলের ক্ষেত্রে ৩১.৮০ রুপি। এর উপরে বিভিন্ন রাজ্য সরকার বিভিন্ন হারে কর, সেস, ভ্যাট বসায়।

যার ফলে পেট্রল, ডিজেল কেনার সময় জ্বালানির মূল দামের থেকে কর দিতে হয় বেশি। মোটামুটি এই দুই জ্বালানিতে কেন্দ্র ৬৩ শতাংশ এবং রাজ্য ৩৭ শতাংশ কর চাপায়। আর এই করের হারটাই বিমানের জ্বালানির ক্ষেত্রে অনেকটা কম।

তবে অনেক দেশের তুলনায় ভারতে বিমান-জ্বালানির দাম বেশি। এর পিছনেও কারণ করের হার। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ১১ শতাংশ কর তো রয়েছেই তার উপরে বিভিন্ন রাজ্য সরকার মোটামুটি শূন্য থেকে ৩০ শতাংশ হারে ভ্যাট বসায়।

এছাড়া করোনাকালে বিমান সংস্থাগুলো লোকসানে চলায় সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রণালয় সব রাজ্যকে ভ্যাট কমানোর আর্জি জানিয়েছে।

আর্জিতে বলা হয়, সর্বত্র ১ থেকে ৪ শতাংশ করা হোক ভ্যাটের পরিমাণ। কেরালা সরকার ভ্যাটের হার কমিয়ে ১ শতাংশ করেছে। এর ফলে সেই রাজ্যে এখন বিমানের জ্বালানি অন্য রাজ্যের তুলনায় সস্তা।

 

 

 

 

Edited By: K F

 

 

 

গুগল-ফেসবুকের বকেয়াসহ রাজস্ব আদায়ের নির্দেশ

 

সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব, ইয়াহু, অ্যামাজনসহ অন্যান্য ইন্টারনেটভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বকেয়াসহ সব ধরনের রাজস্ব আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

পাশাপাশি এসব প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল এবং বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দিয়েছিলেন।

আদালতে রিট আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব। তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার, ব্যারিস্টার মো. মাজেদুল কাদের, ব্যারিস্টার মোজাম্মেল হক ও ব্যারিস্টার সাজ্জাদুল ইসলাম।

২০১৮ সালে একটি পত্রিকার প্রতিবেদন সংযুক্ত করে ট্যাক্স ফাঁকি দেওয়ার বিভিন্ন ঘটনা তুলে ধরেন ব্যারিস্টার মো. হুমায়ন কবির পল্লব, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ মাজেদুল কাদের, ব্যারিস্টার মো. সাজ্জাদুল ইসলামসহ ছয় জন আইনজীবী। তারা জনস্বার্থে রিট পিটিশন দাখিল করেছিলেন।

 

 

 

Edited By: K F

 

 

পদোন্নতি পেয়ে সচিব হলেন ছয়জন কর্মকর্তা

 

প্রশাসনের অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার ছয়জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিয়ে সচিব করেছে সরকার। আর বদলি করা হয়েছে তিন সচিবকে।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকারকে পদোন্নতি দিয়ে ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান  করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. শাহনাজ আরেফিনকে পদোন্নতি দিয়ে পরিসখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব করা হয়।

কেন্দ্রীয় ওষুধাগারের পরিচালক আবু হেনা মোরশেদ জামান পদোন্নতি পেয়ে বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব হয়েছেন।

ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমানকে পদোন্নতি দিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব করা হয়েছে। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী এনামুল হাসানকে পদোন্নতি দিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব করা হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সোলেমান খানকে পদোন্নতি দিয়ে ভূমি সংষ্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে।

বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তীকে পরিকল্পনা বিভাগের সচিব, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইয়ামিন চৌধুরীকে মস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেনকে বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সচিব হিসেবে বদলি করা হয়।

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমানকে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেনকে সিলেট বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

এছাড়া, স্থানীয় সরকার বিভাগের যুগ্মসচিব মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান সরকারকে কেন্দ্রীয় ওষুধাগারের পরিচালক করা হয়েছে।

 

 

 

 

Edited By: K F

 

 

 

শীতকালে করোনাভাইরাস আবার দেখা দিতে পারে, প্রধানমন্ত্রী

 

আসন্ন শীতকালে দেশে আবারও করোনাভাইরাস যাতে মাথাচারা দিয়ে উঠতে না পারে, সেজন্য সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার এবং মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার বিকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে তার ত্রাণ গুদামের জন্য কম্বল গ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, দেখা যাচ্ছে, যখনই শীতকাল আসছে পৃথিবীর সব দেশেই কিন্তু আবার করোনাভাইরাস দেখা দিচ্ছে। ইউএসএ, ইংল্যান্ড বা ইউরোপের দেশগুলোতে এর প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কাজেই বাংলাদেশের সবাইকে সতর্ক থাকার জন্য আমি অনুরোধ করছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, শীতকাল আসলেই একটু ঠাণ্ডা লাগে, সর্দি, কাশি হয়। আর এটা হলেই এই করোনাভাইরাসটা আমাদের সাইনাসে গিয়ে বাসা বানাতে পারে। কাজেই, সেইদিকে সবাইকে একটু সতর্ক থাকতে হবে।

সবাইকে মাস্ক পড়তে হবে এবং খাদ্য তালিকায় ভিটামিন সি যাতে একটু বেশি থাকে এবং যাতে ঠাণ্ডা না লাগে সেদিকে নজর দিতে হবে।

তিনি এ সময় মৌসুমি ফলমূল, শাকসবজি এবং তরিতরকারি বেশি করে খাওয়ার পরামর্শ দেন।

শীত মৌসুমের আগে তার ত্রাণ গুদামের জন্য বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকের দুঃস্থদের জন্য ২৬ লাখ ৪৫ হাজার কম্বল গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস ৩৭টি বেসরকারি ব্যাংকের কাছ থেকে এই কম্বল গ্রহণ করেন।

মুখ্যসচিব প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলের জন্য ১০ লাখ টাকার চেকও গ্রহণ করেন।

বিএবি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার বিভিন্ন ব্যাংক চেয়ারম্যানদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, টিকা দেওয়ার পরে কারও করোনা হলে তার হয়তো ক্ষতির পরিমাণটা বেশি হবে না। তবে তার থেকে ছড়াতে পারে, তাই মাস্কটা ব্যবহার করতেই হবে।

তিনি এ ব্যাপারে প্রচার-প্রচারণার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, সবাইকে সতর্ক করার বিষয়ে প্রচার-প্রচারণাটা দরকার। একটু সতর্ক হলে এই করোনাভাইরাস আর বাংলাদেশের মানুষের কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।

তিনি এ সময় ব্যাংক কর্মকর্তাদের মাধ্যমে সমগ্র দেশের জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, করোনাভাইরাসকে আমরা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি। টিকা সংগ্রহ করে সারা দেশে টিকদান অব্যাহত রয়েছে এবং আজকেও সারা দেশে ৮০ লাখ টিকাদানের কার্যক্রম চলছে।

ছাত্রসমাজ এবং স্কুলের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি তার সরকারের রয়েছে। কেউ বাদ যাবে না, নীতিমালা অনুযায়ী যারা টিকা পাওয়ার যোগ্য বাংলাদেশের সেই সব মানুষই টিকা পাবে এবং আগামী বছরের মাঝামাঝি সময় নাগাদ আমরা সব মানুষকেই টিকা দিতে সক্ষম হব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাকালে বিশ্বব্যাপী ব্যবসা-বাণিজ্যে স্থবিরতা নেমে আসলেও তার সরকার চেষ্টা করেছে বাংলাদেশে কোনোকিছু যাতে স্থবির না হয় এবং সচল থাকে। সেদিক থেকে আমি মনে করি, বাংলাদেশ যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছে।

মানুষের দুঃসময়ে সবসময় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ব্যাংক এগিয়ে আসে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী তাদেরকে এবারও শীতার্ত জনগণের সহায়তায় এগিয়ে আসায় ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোটাই বড় কথা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদেরকে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। কাজেই এই দেশ উন্নত সমৃদ্ধ হোক, দারিদ্র মুক্ত হোক এবং তৃণমূলের মানুষটির পর্যন্ত যাতে ক্রয় ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

তিনি বলেন, যত বেশি মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে তত বেশি ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। নতুন বাজার সৃষ্টি হবে এবং আমরা নিজের পায়ে দাঁড়াব এবং বিশ্ব দরবারে আমাদের একটা অবস্থান আমরা করে নেব। কারণ আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী জাতি, কাজেই সবসময় মাথা উঁচু করেই আমরা চলব।

সরকারপ্রধান বলেন, তার সরকার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার পরেই বিভিন্ন ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে বেসরকারি খাতে উন্মুক্ত করে দেন, যাতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতও আরও শক্তিশালী হয় এবং তারা দেশের মানুষের সেবা করতে পারে এবং দেশের মানুষের আরও কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়।

তার এই পদক্ষেপ দেশের মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে যথেষ্ট ভূমিকা রেখে যাচ্ছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

 

 

 

Edited By: K F

 

 

গুলশান থানার মামলায় গ্রেফতার আরজে নীরব

 

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকমের হেড অব সেলস অফিসার হুমায়ুন কবির ওরফে আরজে নীরবকে এবার গুলশান থানার একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী তাকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেন।

এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার এসআই আজিজুল হক আসামি আরজে নীরবকে গ্রাহকের ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

এরআগে গত ৮ অক্টোবর নীরবকে রাজধানীর আদাবর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ওইদিনই তেজগাঁও থানার মামলায় নীরবের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

রিমান্ড শেষে ১০ অক্টোবর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর ১৮ অক্টোবর লালবাগ থানার একটি মামলায় তার আরও একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

ওই মামলায় রিমান্ড শেষে ২৫ অক্টোবর তাকে আবার কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর গুলশান থানার মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদন করা হয়।

 

 

 

Edited By: K F

 

 

 

পদ ছাড়লেন সৌরভ গাঙ্গুলী

 

ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দল মোহনবাগানের পরিচালক পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলী।

মোহনবাগান দলের মালিক আরপিএসজি গ্রুপ আইপিএলের নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি লক্ষ্ণৌকে কিনে নেওয়ার দুই দিন পর এ সিদ্ধান্ত জানালেন সৌরভ।

সম্ভাব্য স্বার্থের সংঘাত এড়াতেই মোহনবাগানের ডিরেক্টর পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সৌরভ।

ইন্ডিয়ান সুপার লিগে মোহনবাগানের ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক হিসেবে আছে আরপিএসজি গ্রুপ। এ দলটির ডিরেক্টর ছিলেন বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী।

সম্প্রতি আরপিএসজি গ্রুপ আইপিএলের নতুন দল লক্ষ্ণৌয়ের ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানা পাওয়ার পর থেকেই সৌরভের বিরুদ্ধে স্বার্থের সংঘাতের প্রশ্ন উঠে।  সেই প্রশ্নের মুখে পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সৌরভ।

আরপিএসজি গ্রুপের কর্ণধার সঞ্জীব গোয়েনকা বলেন, আমি মনে করি তিনি মোহনবাগান থেকে পুরোপুরি সরে যাচ্ছেন। তবে এটা সৌরভের জন্য ঘোষণা করা ঠিক হবে। আমি দুঃখিত। আগেই বলে দেওয়ার জন্য।

এর আগে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের সভাপতি থাকা অবস্থায় আইপিএলের দল দিল্লি ক্যাপিটালসের মেন্টর হওয়ায় সৌরভের বিরুদ্ধে স্বার্থের সংঘাতের অভিযোগ উঠেছিল।

 

 

 

 

Edited By: K F

 

 

গাইবান্ধায় মা হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড

 

গাইবান্ধায় মাকে হত্যার দায়ে ছেলে জিয়াউল হককে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি গাইবান্ধা সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামের নুরুল ইসলাম খন্দকারের ছেলে মো. জিয়াউল হক। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ফারুক আহম্মেদ বলেন, মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক এ রায় দেন।

তিনি আরও জানান, আসামিকে মৃত্যু পর্যন্ত ফাঁসিতে ঝুলিয়ে কার্যকর করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের ১২ জুন জিয়াউল হক তার ছোট ভাই জোবায়ের খন্দকারের কাছে টাকা চান।

ছোটভাই টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় জিয়াউল হক ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে জোবায়েরকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারতে যান। এ সময় তার মা জহুরা বেগম বাধা দিতে গেলে তাকে আসামি মারধর করেন।

এতে জহুরা বেগম গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা জহুরা বেগমকে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপালে ভর্তি করান। সেখানে তার অবস্থা অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওইদিন রাতেই জহুরা বেগম মারা যান। এই ঘটনায় নিহতের স্বামী নুরুল ইসলাম খন্দকার বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

ক্ষমা চেয়ে বিতর্কের অবসান ঘটালেন ডি কক

 

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেছিলেন কুইন্টন ডি কক। কিন্তু পরের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনি একাদশে ছিলেন না।

পরে জানা গেলো ব্যক্তিগত কারণেই নিজেকে সরিয়ে নেন দক্ষিণ আফ্রিকান এ ক্রিকেটার। যা নিয়ে পরবর্তীতে বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবে বিভিন্ন খেলাতেই খেলোয়াড়দের হাটু গেড়ে বসার দৃশ্যটি এখন বেশ নিয়মিতই হয়ে আসছে।

গত ২৩ অক্টোবর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংস শুরুর আগে হাটু গেড়ে বসে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের সমর্থন জানায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে ব্যতিক্রম ছিলেন ডি কক।

সমর্থন না জানিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন তো বটেই, দুই হাত কোমড়ে রেখে তার দাঁড়ানোর ভঙ্গিমাও দৃষ্টিকটু লেগেছে নেটিজেনদের। এক্ষেত্রে ডি ককের বক্তব্য ছিল, জোর করে কোনো নিয়ম চাপিতে দিতে পারে না বোর্ড।

 

অবশেষে নিজেই সেই বিতর্কের অবসান ঘটালেন এই ক্রিকেটার। ক্ষমা চেয়েছেন তিনি এবং বলেছেন, বোর্ডের আরোপিত নিয়ম মেনে চলবেন।

দুঃখ প্রকাশ করে ডি কক বলেন, প্রথমেই আমি সতীর্থ এবং সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আমি কখনোই এটিকে ইস্যু তৈরি করতে চাইনি।

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর গুরুত্ব আমি বুঝি। পাশাপাশি একজন ক্রীড়াবিদ হিসেবে উদাহরণ সৃষ্টি করার দায়িত্ব সম্পর্কে বুঝি।

যদি আমি হাঁটু গেঁড়ে বসলে অন্যদের জন্য তা শেখার বিষয় হয় এবং জীবনকে আরও ভালো করতে সহায়তা করে, আমি খুশি মনেই তা করবো।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে না খেলার মাধ্যমে আমি কাউকে অসম্মান করতে চাইনি। আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত এবং সবকিছুর জন্য মন থেকে ক্ষমা চাচ্ছি।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

জামিন পেলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান

 

তিন সপ্তাহ জেলে থাকার পর মাদক মামলায় জামিন পেলেন বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান।

বম্বে হাইকোর্ট বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

গত মঙ্গলবার এবং বুধবার আরিয়ানের জামিনের শুনানি অসমাপ্ত ছিল। তৃতীয় দিন বৃহস্পতিবার শুনানি শেষ হয়।

গত ২ অক্টোবর মুম্বাই থেকে গোয়াগামী প্রমোদতরী থেকে আটক করা হয়েছিল আরিয়ানকে। তার পর ৩ তারিখ তাকে গ্রেফতার করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো।

গ্রেফতারের পর বেশ কয়েকবার তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর হয়। তিন সপ্তাহ ধরে মুম্বাইয়ের আর্থার রোড জেলে বন্ধী ছিলেন ২৩ বছর বয়সী শাহরুখের ছেলে।

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

বাঁধনের জন্মদিন উদযাপন বলিউডে

 

 

ছোট পর্দার অভিনেত্রী হিসেবেই পরিচিত ছিলেন আজমেরী হক বাঁধন। এখন তিনি আলোচিত সিনেমার জন্য। চলতি বছর তার অভিনীত সিনেমা কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রশংসিত হয়েছে।

এরপর বলিউডের সিনেমাতেও নাম লিখিয়েছেন। সেই সুবাদে দুই সপ্তাহ ধরে তিনি সেখানেই অবস্থান করছেন। আজ ২৮ অক্টোবর বাঁধনের জন্মদিন। বলিউডে আনন্দ-উল্লাসে জন্মদিন উদযাপন করছেন এই অভিনেত্রী।

বলিউডের খ্যাতিমান নির্মাতা বিশাল ভরদ্বাজের নতুন সিনেমা ‘খুফিয়া’। এই সিনেমাতেই একজন বাংলাদেশি নারীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন বাঁধন।

বাঁধনের জন্মদিন আনন্দ-উল্লাসে উদযাপন করেছে খুফিয়া টিম। সবাইকে নিয়ে কেক কেটেছেন তিনি। সেই ছবি শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে।

অবশ্য ছবিগুলোতে খুফিয়া সিনেমার মূল চরিত্রে থাকা আলী ফজল কিংবা টাবুকে দেখা যায়নি।

জানা গেছে, সত্য ঘটনার অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে খুফিয়া। নেটফ্লিক্সের প্রযোজনায় নির্মাণাধীন এই সিনেমার সঙ্গে বাংলাদেশের বিষয়ও জড়িত রয়েছে।

বাঁধনের আগে সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য প্রস্তাব পেয়েছিলেন মেহজাবীন ও মিম। তারা দু’জনেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন।

উল্লেখ্য, বাঁধনের জন্ম ১৯৮৩ সালের ২৮ অক্টোবর মুন্সীগঞ্জে। বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ থেকে দন্ত বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন।

২০০৬ সালে সুন্দরী প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শোবিজে নাম লেখান। একই বছর থেকেই তিনি নাটকে কাজ শুরু করেন।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

সুদানে অভ্যুত্থান, সাহায্য বন্ধ বিশ্ব ব্যাংকের

 

সামরিক অভ্যুত্থানের জেরে সুদানে সাহায্য স্থগিত করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক।

গত সোমবারের অভ্যুত্থানে সুদানের বেসামরিক সরকার উৎখাত এবং রাজনৈতিক নেতারা বন্দি হওয়ার ঘটনায় দেশজুড়ে বিক্ষোভ উস্কে দিয়েছে।

এ ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও ব্যাপক নিন্দা-সমালোচনা শুরু হয়েছে।

এর আগে, অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখলের অভিযোগে আফ্রিকান ইউনিয়ন সুদানের সদস্যপদ স্থগিত ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে, যুক্তরাষ্ট্র ৭০ কোটি ডলারের সাহায্যও বন্ধ করেছে সুদানে।

সুদানের বিরুদ্ধে এইউ এবং বিশ্ব ব্যাংকের নেওয়া এমন পদক্ষেপ দেশটিতে বেসামরিক সরকার পুনর্বহাল করার জন্য অভ্যুত্থানের নেতা জেনারেল আব্দেল ফাত্তাহ আল-বুরহানের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি করেছে।

বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড মালপাস ওয়াশিংটন থেকে এক বিবৃতিতে জানান, সুদানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন আমি।

দেশটির আর্থ-সামাজিক ‍পুনরুজ্জীবন ও উন্নয়নের ওপর এই পরিস্থিতির যে নাটকীয় প্রভাব পড়তে পারে তা নিয়ে আমি শঙ্কায় আছি।

আমরা আশা করি সুদানে উত্তরণ প্রক্রিয়ায় সততা এবং শান্তি ফিরে আসবে, যাতে দেশটি আবার অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে যাত্রা শুরু করতে পারে এবং আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক অঙ্গনে সঠিক জায়গা করে নিতে পারে।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

পাকিস্তানকে সমর্থন করায় মুসলিমদের গ্রেফতার করছে ভারত

 

 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের রেশ যেন এখনো কাটছেই না।

গত রবিবার অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে বিরাট কোহলি এন্ড তার দলকে পরাজিত করেছে বাবর আজম বাহিনী। হারটি এখনো মেনে নিতে পারছে না অনেক ভারতীয় সমর্থক।

সেটিরই রেশ দেখা গেলো ভারতের উত্তর প্রদেশে। পাকিস্তানের জয় উদযাপন করায় তিন কাশ্মিরি মুসলিম ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে রাজ্যটির পুলিশ।

পুলিশ বলছে, ম্যাচ চলাকালীন ওই ছাত্ররা ভারত বিরোধী এবং পাকিস্তানের পক্ষে স্লোগান দিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে শত্রুতা প্রচার ও সাইবার সন্ত্রাসের অভিযোগ আনা হয়েছে।

কলেজ কর্তৃপক্ষও গত সোমবার ওই তিন কাম্মিরি ছাত্রকে বহিষ্কার করে দিয়েছে। পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের সমর্থনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করাতেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

উত্তর প্রদেশ পুলিশ বলছে, ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির কয়েকজন সদস্যের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর বুধবার ২৭ অক্টোবর তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

ফেসবুকে নিয়োগ পেলেন শাবিপ্রবির দুই শিক্ষার্থী

 

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী।

তারা হলেন-মওদুদ আহমেদ শাহরিয়ার ও এম. নাজিম উদ্দিন। এই দুই শিক্ষার্থী শাবিপ্রবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের ছাত্র।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই দুই শিক্ষার্থী ফেসবুকে চাকরি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মওদুদ আহমেদ শাহরিয়ার বলেন, ফেসবুকের ইউরোপের প্রধান অফিস লন্ডন থেকে গতকাল নিয়োগপত্র পাঠিয়েছে।

তারা জানতে চেয়েছে, লন্ডন ছাড়া ইউরোপের অন্য কোন অফিস জয়েন করতে চাই কী না। আমি লন্ডন অফিসে থাকার কথাই বলেছি।

তিনি বলেন, মোট তিনটা ধাপে আমার ভাইবা নিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তিন নম্বর ধাপে ৪টা ভাইবা ছিল। প্রতিটি ভাইবার জন্য সময় দিয়েছে ৪৫ মিনিট করে।

শাবিতে পড়াকালীন প্রোগ্রামিংসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতাম। এই প্রতিযোগিতাগুলোর অভিজ্ঞতা ফেসবুকের ভাইবায় খুব কাজে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ফেসবুকের মতো জনপ্রিয় একটা সাইটে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ পেয়ে সত্যিই খুব ভালো লাগছে।

আমাদের দেশের অনেক শিক্ষার্থী আছে যাদের ফেসবুক গুগলে চাকরি করার মতো যোগ্যতা রয়েছে। তবে সঠিক গাইডলাইন না থাকার কারণে তারা সেখানে যেতে পারছে না। এসব শিক্ষার্থীদের জন্য ভবিষ্যতে কাজ করবো যাতে তারা সঠিক গাইডলাইন পায়।

অপর শিক্ষার্থী এম. নাজিম উদ্দীন বলেন, ২০১৪ সালে যখন পোগ্রামিং শুরু করি, তখন থেকেই স্বপ্ন ছিলো পৃথিবীর টপক্লাস ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে টেক জায়ান্টে জব করার।

ভার্সিটি শেষ হওয়ার পর থেকেই প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করি গুগল, ফেসবুকের জন্য।

তিনি বলেন, প্রথম কয়েকবার এপ্লাই করে ব্যর্থও হই। কিন্তু সবসময়ই নিজের ওপর বিশ্বাস ছিলো। কখনোই মনোবল হারায়নি। অবশেষে এই বছর জুন মাসে ফেসবুক এবং গুগল থেকে যোগাযোগ করে ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য।

প্রায় দুই মাসব্যাপী ৬টা করে ইন্টারভিউ নেয় গুগল এবং ফেসবুক। সবগুলো ইন্টারভিউ ভালো হওয়ার পর দুই কোম্পানি থেকেই অফার করে।

সবকিছু বিবেচনায় আমি ফেসবুকের লন্ডন অফিসের অফার গ্রহণ করি। কোনো জটিলতা না থাকলে জয়েনিং আগামী ফেব্রুয়ারিতে।

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

কিরণ গোসাভিকে আটক করেছে পুলিশ

 

 

ভারতের মুম্বাইয়ের মাদককাণ্ডে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুন পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত।

২০১৮ সালের একটি প্রতারণা মামলায় গোসাভির বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি করে পুনে পুলিশ। পুলিশের দাবি, তারপর থেকেই খোঁজ মিলছিলো না তার।

কয়েকদিন আগে নিখোঁজ গোসাভি জানিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রে তিনি আতঙ্কে রয়েছেন। উত্তরপ্রদেশে লখনউে আত্মসমর্পণের কথা বলেছিলেন তিনি। যদিও পরে গোসাভির সেই দাবি নাকচ করে লখনউ পুলিশ।

মুম্বাইয়ের প্রমোদতরীতে এনসিবি যখন হানা দিয়েছিলো তখন সেখানে গোসাভি উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ।

পরে এনসিবির অফিসে আরিয়ান খানের সঙ্গে সেলফি তোলেন তিনি। দুই জায়গার ছবি-ভিডিওতে দেখা যায় শাহরুখ খানের সঙ্গে তার যোগাযোগের বিষয়টি।

রবিবার গোসাভির দেহরক্ষী হিসাবে দাবি করা এক ব্যক্তি ঘুষ সংক্রান্ত লেনদেনের অভিযোগ তুলেছিলেন তার বিরুদ্ধে।

প্রভাকর সইল নামে ওই ব্যক্তি দাবি করেন, টেলিফোনে ২৫ কোটি টাকা ঘুষের বিষয়টি নিয়ে গোসাভিকে কথা বলতে শুনেছিলেন তিনি।

সেই ২৫ কোটির মধ্যে ৮ কোটি টাকা এনসিবি কর্তা সমির ওয়াংখেড়েকে দেওয়ার কথাও হয়েছিলো। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেন গোসাভি।

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে অবনতি বাংলাদেশের

 

ঘরের মাঠ মিরপুরে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডকে নাস্তানাবুদ করে টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে অভাবনীয় সাফল্য পায় বাংলাদেশ।

এক লাফে ছয় নম্বরে উঠে এসেছিল টাইগাররা। ছয়ে থেকেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু করেছিল মাহমুদউল্লাহ বাহিনী।

তবে বিশ্বকাপে ব্যর্থ পারফরম্যান্সের পর ফের র‌্যাংকিংয়ে অবনতি ঘটল তাদের। দুই ধাপ পিছিয়ে গেল টাইগাররা।

মঙ্গলবার টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সর্বশেষ র‌্যাংকিং প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা – আইসিসি।

যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান আট নম্বরে দেখানো হয়েছে। ৩০ ম্যাচে বাংলাদেশের পয়েন্ট ৭০৮৬, রেটিং ২৩৬। র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের নিচে নয় ও দশ নম্বরে অবস্থান করছে শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আর ১৩ ম্যাচে ৩০৭২ পয়েন্ট ও সমান রেটিং নিয়ে ঠিক ওপর অবস্থান করছে রশিদ খানদের আফগানিস্তান।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

দুই মাসের মধ্যে নিবন্ধন নিতে হবে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে

 

 

আগামী দুই মাসের মধ্যে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে রেজিস্ট্রেশন নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর দুপুরে সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় মন্ত্রিসভার বৈঠক। এতে তিনি ভার্চুয়ালি অংশ নেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা রেখে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে রেজিস্ট্রেশন নিতে হবে।

যদি কোনো প্রতিষ্ঠান গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করে তা হলে সেই টাকা থেকে গ্রাহকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

খালি মাঠে গোল দেওয়ার চর্চা বিএনপির জন্মলগ্ন থেকে

 

 

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ১৫ ফেব্রুয়ারির খালি মাঠে নির্বাচনের কথা বিএনপি ভুলে গেলেও জনগণ এখনও ভোলেনি।

তিনি বৃহস্পতিবার তার বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনা সরকার কখনও খালি মাঠে গোল দিতে চায় না। সরকার চায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন, আর খালি মাঠে গোল দিতে আওয়ামী লীগ অভ্যস্তও নয়।

বিএনপিই জন্মলগ্ন থেকে এ চর্চা করে আসছে।

বিএনপি কর্মসূচির নামে কোনোরূপ সন্ত্রাস ও জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে আওয়ামী লীগ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কঠোরভাবে প্রতিহত করবে বলে হুশিয়ারি দেন সেতুমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সভা-সমাবেশ সবার সাংবিধানিক অধিকার; কিন্তু সমাবেশের অনুমতি না দিলে বিএনপি বলত সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না, আর অনুমতি দিলে হামলা, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে জনগণের সম্পদ বিনষ্ট করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির কর্মসূচি মানেই জনগণের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করা।

তিনি বলেন, নির্বাচন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে।

পূজামণ্ডপের ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারের মামলা দেওয়ার অভিযোগ সত্য নয় জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কে কোন দল করে সেটি দেখে নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখেই  চিহ্নিতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার মাধ্যমে বিএনপি পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে চেয়েছিল কিন্তু সরকার তা শক্ত হাতে দমন করেছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি জাতিকে বিভ্রান্ত করছে এবং বিভেদ তৈরি করছে।

তিনি বলেন, গত মঙ্গলবার নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা এবং সন্ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে, তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে সক্ষম নয়, তাদের কর্মসূচি মানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা।

মঙ্গলবারের কথিত সম্প্রীতি সমাবেশের আড়ালে বিএনপির ভিন্ন কোনো এজেন্ডা ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মনে করেন ওবায়দুল কাদের ।

ওবায়দুল কাদের প্রশ্ন রেখে বলেন, তবে কি অপরাধীদের বাঁচানোর জন্যই সম্প্রীতি সমাবেশের নামে বিএনপির এ সন্ত্রাস?

তিনি আরও বলেন, আসলে হামলা, সংঘর্ষ, ষড়যন্ত্র আর সন্ত্রাসী বিএনপির রাজনীতি,  সেটি পূজামণ্ডপে হোক আর নয়াপল্টনে হোক- বিএনপি এই বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

২০২২ সালে সরকারি ছুটি ২২ দিন

 

২০২২ সালে ছুটির তালিকা অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সাধারণ ও নির্বাহী আদেশ মিলিয়ে আগামী বছরও ২২ দিন ছুটি থাকবে।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ ছুটির তালিকা অনুমোদন দেওয়া হয়। তিনি বৈঠকে ভার্চুয়ালি অংশ নেন।

সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ছুটির তালিকা অনুমোদনের বিষয়টি জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ২০২২ সালে ১৪ দিন সাধারণ ছুটি এবং নির্বাহী আদেশে আট দিন সরকারি ছুটি থাকছে।

সব মিলিয়ে ছুটি থাকবে ২২ দিন। এর মধ্যে শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি পড়েছে ছয় দিন।

২০২১ সালেও ২২ দিন সরকারি ছুটি রয়েছে।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

 

ট্রাকের ধাক্কায়, বিকল ট্রেনের ইঞ্জিন

 

পাবনায় ট্রাকের ধাক্কায় আন্তঃনগর ঢালারচর এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়েছে। এতে পাবনা-রাজশাহী রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে পাবনা-রাজশাহী রেলরুটের মহেন্দ্রপুর রেলক্রসিং মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, সকালে ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢালারচরের উদ্দেশে ছেড়ে যায় আন্তঃনগর ঢালারচর এক্সপ্রেস।

ট্রেনটি পাবনা স্টেশন পার হয়ে মহেন্দ্রপুর রেলক্রসিং মোড়ে পৌঁছায়। এ সময় একটি চলন্ত ট্রাক ট্রেনটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়।

খবর পেয়ে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে আসেন। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ট্রাকচালক ভেবেছিলেন ট্রেনটি আসার আগেই পার হয়ে যেতে পারবেন। কিন্তু তখনই ট্রেনে ট্রাকের ধাক্কা লাগে।

স্থানীয়রা জানান, দুর্ঘটনার সময় রেলক্রসিংয়ের ক্রসবার নামাননি গেটম্যান। ট্রাকচালক সম্ভবত রাতভর গাড়ি চালানোর ক্লান্তিতে ঝিমাচ্ছিলেন। ট্রেনের উপস্থিতি খেয়াল না করেই গাড়ি চালানোয় দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পাবনা সদর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে আসি। এ দুর্ঘটনায় রাস্তার দুই পাশে যানজট তৈরি হয়েছে। যানজট নিরসন করেছে পুলিশ।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক শাহীদুল ইসলাম বলেন, অল্প সময়ের মধ্যে বিকল্প ইঞ্জিন দিয়ে আমরা ট্রেনটি চালানোর ব্যবস্থা করব। দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি করা হবে।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

 

কাশ্মীর ভারতের মুকুটের রত্ন, অমিত শাহ

 

বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে ভারতে মানুষ ছুটে আসে কাশ্মীরের টানে- এটি নতুন কিছু নয়।

এমনকি ভারতেও অন্যতম পর্যটন গন্তব্য এই কাশ্মীর। এবার কাশ্মীরের রূপে মুগ্ধ হলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

মঙ্গলবার তিনি কাশ্মীরের বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেন টুইটারে।

জম্মু ও কাশ্মীরে তিন দিনের সরকারি সফর শেষ দিল্লি ফেরার পথে ছবিগুলো তোলা হয় বলে জানান ভারতের এ মন্ত্রী।

টুইটারে অমিত শাহ লেখেন- শ্বাসরুদ্ধকর ছবিগুলো তোলা হয়েছে পীর পাঞ্জাল মাউন্টেন রেঞ্জে মৌসুমের প্রথম তুষারপাতের পর।

কাশ্মীর হচ্ছে ভারতের মুকুটের রত্ন, যা পর্যটকদের অভ্যর্থনা জানাতে সম্পূর্ণ প্রস্তুত। ভারতের অত্যন্ত সুন্দর এ জায়গায় ভ্রমণ করুন।

সোমবার অমিত শাহ জম্মু ও কাশ্মীরের ট্যুরিজম বিভাগের আয়োজনে ডাল লেকে হাউসবোট উৎসবের উদ্বোধন করেন।

কাশ্মীরের গুলমার্গ, সোনামার্গ, পাহলগাম, শোপিয়ান এবং গুরেজ এলাকায় মাঝারি তুষারপাত হয়েছে। অপরদিকে লাদাখের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মিনামার্গ এবং দ্রাসেও হয়েছে তুষারপাত।

জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা ও কুলগাম জেলায়ও মাঝারি ধরনের তুষারপাতের ঘটনা ঘটেছে।

এটি ছিল জম্মু ও কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বাতিল করার পর অমিত শাহের প্রথম কাশ্মীর সফর।

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

সুইজারল্যান্ড ও সুইডেনের রাষ্ট্রদূতের রাঙামাটি সফর

 

 

পার্বত্য জেলা রাঙামাটি সফর করছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ড সরকারের রাষ্ট্রদূত নাথাইলে চুয়ার্ড এবং সুইডেন সরকারের রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার বার্জ ভন লিন্ডা।

সফরের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন তারা।

এর আগে প্রথম দিন বুধবার রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরীর সঙ্গে তার অফিসকক্ষে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন তারা।

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে উভয় দেশের রাষ্ট্রদূত বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে এটি তাদের প্রথম সফর।

তাদের সরকার বিভিন্ন দেশে জলবায়ু, মানবাধিকার, জেন্ডার বিষয়ে কাজ করে। এসব বিষয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকার পরিস্থিতি সম্পর্কে বুঝতে তাদের এ সফর।

এ ছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির আলোকে গঠিত পার্বত্য পরিষদগুলো কীভাবে উন্নয়নমূলক কাজ করে এবং করোনাকালীন এখানকার মানুষ কীভাবে নিজেদের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করছে, সে বিষয়েও জানতে আগ্রহ প্রকাশ করেন তারা।

এ সময় উভয় দেশের রাষ্ট্রদূতকে অভিনন্দন জানিয়ে পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী বলেন, পার্বত্য শান্তিচুক্তির পর ইউএনডিপির মাধ্যমে বিদেশি দাতাদের সহায়তায় পার্বত্য চট্টগ্রামে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করছে।

এসব কর্মকাণ্ডের মধ্যে রাঙামাটি জেলার প্রত্যন্ত এলাকার স্কুলগুলো জাতীয়করণ, ম্যালেরিয়া নির্মূল এবং কৃষিক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্য এসেছে।

সুইজারল্যান্ড ও সুইডেনের রাষ্ট্রদূতকে তিনি জানান, পার্বত্য শান্তিচুক্তি হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যার রাজনৈতিক সমাধানের অংশ হিসাবে। এটি ধারাবাহিকভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে।

তার ধারাবাহিকতায় পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ, ভারত প্রত্যাগত ও অভ্যন্তরীণ উদ্বাস্তু সমস্যা সমাধানে টাস্কফোর্স এবং ভূমি সমস্যা সমাধানে পার্বত্য ভূমি কমিশন কাজ করে যাচ্ছে।

কিন্তু প্রশাসনিক ও আমলাতান্ত্রিক ধীরগতির কারণে রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত এসব প্রতিষ্ঠান সক্রিয়ভাবে শক্তিশালী হতে পারছে না।

তবে শিগগির সমস্যাগুলোর সমাধান আসবে বলে মন্তব্য করে পার্বত্য চট্টগ্রামের দারিদ্র্য বিমোচন এবং জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় সুইজারল্যান্ড ও সুইডেন সরকারকে সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানা তিনি।

এ ছাড়া নারী শিক্ষা উন্নয়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় দাতা সংস্থাদের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন তিনি।

সফররত দুই দেশের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ইউএনডিপির বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি, সহকারী আবাসিক প্রতিনিধি প্রসেনজিৎ চাকমাসহ অন্য সফরসঙ্গী উপস্থিত ছিলেন।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

আরও এক বছর ডিএমপি কমিশনার থাকছেন শফিকুল

 

অতিরিক্ত আইজিপি মোহা. শফিকুল ইসলামকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার হিসেবে আরও এক বছর চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির আদেশে উপসচিব মো. অলিউর রহমানের সই করা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চুক্তি ও বৈদেশিক নিয়োগ শাখা এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ধারা-৪৯ অনুযায়ী বিসিএস ক্যাডারের কর্মকর্তা মোহা. শফিকুল ইসলামকে তার অবসর-উত্তর ছুটি ও তদসংশ্লিষ্ট সুবিধাদি স্থগিতের শর্তে আগামী ৩০ অক্টোবর অথবা যোগদানের তারিখ থেকে পরবর্তী এক বছর মেয়াদে পুলিশ কমিশনার, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ হিসেবে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ করা হলো।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, এ নিয়োগের শর্তাবলি অনুমোদিত চুক্তিপত্র দ্বারা নির্ধারিত হবে।

ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন। এর আগে তিনি সিআইডিপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন।

সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনার কারণে তার চাকরির মেয়াদ বাড়ানোর গুঞ্জন ওঠে।

২০১৯ সালের ৭ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনারের দায়িত্ব নেওয়া মোহা. শফিকুল ইসলাম বিসিএস অষ্টম ব্যাচের কর্মকর্তা।

১৯৮৯ সালের ২০ ডিসেম্বর এএসপি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন।  তার গ্রামের বাড়ি চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায়।

তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। কর্মজীবনে তিনি নারায়ণগঞ্জ, পটুয়াখালী, সুনামগঞ্জ ও কুমিল্লা জেলায় পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

মডেল বানানোর প্রলোভনে নারীদের আটকে অনৈতিক কর্মকাণ্ড

 

টিকটক ও শর্টফিল্মের মডেল বানানোর নামে নারীদের ডেকে এনে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করতো একটি চক্র।

মুক্তিপণ আদায়ের পর এসব নারীর বিবস্ত্র ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখতো। যারা মুক্তিপণ দিতে পারতো না তাদের দিয়ে জোর করে করানো হতো দেহব্যবসা। চক্রটির নেতৃত্বে রয়েছেন ২৩ বছর বয়সী এক তরুণী।

মঙ্গলবার নুরিতা ওরফে সুরাইয়া ওরফে প্রিয়া নামের ওই তরুণীকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর। এ সময় থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ উপস্থিত ছিলেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, দেখতে সুন্দর, বিউটি পার্লারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জব করে এবং যাদের অভিনয়ের প্রতি দুর্বলতা আছে- এমন মেয়েদের টার্গেট করে ফাঁদ পাতা হয়।

এরপর চক্রের প্রধান নুরিতা ফেসবুকে তাদের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলে। টিকটক ও শর্টফিল্মের অভিনয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে আনে বিভিন্ন জায়গায়। এরপর সেখান থেকে কৌশলে তাদের নিয়ে যাওয়া হয় ভাড়া করা ফ্লাটে।

হাত-পা বেঁধে করা হয় জিম্মি। পরে পরিবারের কাছে ফোন করে দাবি করা হয় মুক্তিপণ। মুক্তিপণ না পেলে জিম্মি করা নারীদের দিয়ে জোর করে করানো হতো দেহব্যবসা।

গত ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় চক্রটি এক তরুণীকে মডেল বানানোর নামে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের হাসনাবাদ এলাকার ভাড়া ফ্ল্যাটে নিয়ে আসে। সেখানে তাকে হাত-পা বেঁধে মারধর করা হয়।

এরপর বিবস্ত্র করে তার ছবি ও ভিডিও ধারণ করে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে। তার পরিবার ৮ হাজার টাকা মুক্তিপণ দেওয়ার পরদিন হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তাকে বসুন্ধরা রিভারভিউ প্রকল্পের নির্জন স্থানে ফেলে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

ঘটনার বিস্তারিত শুনে তদন্তে নামে পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ওই ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয় নুরিতাকে। অভিযানের সময় ফ্ল্যাট থেকে অপর এক তরুণীকে জিম্মি দশা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

তাকেও একইভাবে ওখানে এনে জিম্মি করা হয়েছিল। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে গেছে নুরিতার অন্যতম সহযোগী মারুফ আহমেদ সৌরভ ওরফে ওয়াসিম।

এ ঘটনায় ভিকটিম নুরিতা ও মারুফ আহমেদসহ অজ্ঞাত কয়েকজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছেন।

তিনি আরও জানান, কিছুদিন পূর্বে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল নুরিতা। কিন্তু জামিনে বের হয়ে সে একই কাজ শুরু করে।

নুরিতাসহ তার সহযোগীরা বেশিদিন এক জায়গায় অবস্থান করে না। রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় ১/২ মাসের জন্য বাসা ভাড়া নিয়ে অপকর্ম করে অন্যত্র চলে যায়।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, নুরিতার গ্রামের বাড়ি বগুড়া জেলায়। পিতার নাম আলমগীর ফকির। মডেল হওয়ার আশায় সেও একদিন ঢাকায় পাড়ি জমায়। প্রায় ৫ বছর পূর্বে নুরিতার সঙ্গেও একই ঘটনা ঘটেছিল।

ওই ঘটনায় নুরিতা আশুলিয়া থানায় বর্তমান পার্টনার মারুফ আহমেদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

সেই মামলায় মারুফ জামিনে আসার পর নুরিতা স্বেচ্ছায় মারুফের সঙ্গে যোগ দিয়ে এভাবে নারীদের জিম্মি করে টাকা আদায়ের পথ বেছে নেয়।

একজন নারী হওয়ায় সহজেই অন্য নারীদের বশে আনতে পারতো নুরিতা। এ কারণে এক সময় দলের প্রধান হয়ে উঠে।

ওসি আরও জানান, চক্রটিতে কারা কারা জড়িত, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। অপরাধীদের শনাক্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

 

খাদ্যশস্যের দাম জ্বালানির মতোই, অর্থমন্ত্রী

 

বিশ্বে খাদ্যশস্যের দাম জ্বালানির মতোই বাড়ছে। তবে বর্তমানে ইনফ্লেশন আমাদের ধারণার মধ্যেই আছে। সার্বিকভাবে মূল্যস্ফীতি হয়নি। মূল্যস্ফীতি প্রতিনিয়তই পর্যালোচনা করা হচ্ছে। এখনো কোনো সমস্যা হয়নি।

বুধবার অর্থনৈতিক বিষয় ও সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

ওই বৈঠকে বাংলাদেশের কাফকো, কাতারের মুনতাজাত ও সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন  থেকে ৯০ হাজার টন ইউরিয়া সার কেনার তিনটি প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে মোট ব্যয় হবে প্রায় ৫৬৬ কোটি টাকা।

অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ডলারের মূল্য আমরা নির্ধারণ  করে রাখিনি, এটা ফিক্সড না। এটি চাহিদা ও সরবরাহের ওপর নির্ভর করে। অতীত থেকে আমরা যেভাবে করে আসছি, সেভাবেই হয়ে আসছে।

তিনি আরও বলেন, ডলারের মূল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল কী বলেছে, আমি জানি না। সংস্থাটি পরামর্শ দিতে পারে।

কারণ তারা আমাদের উন্নয়ন অংশীদার। আমাদের অর্থনীতির সঙ্গে তারা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। কিন্তু তারা আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে বলতে পারে না।

মুস্তফা কামাল বলেন, আমরা মনে করি- আমাদের নিজস্ব যে প্যাগড কারেন্সি সেটি ফ্ল্যাক্সিবলই আছে। ডলার বেচাকেনা কীভাবে হয়, ব্যাংকগুলোর কাছে যখন ডলারের পরিমাণ বেশি থাকে তখন বাংলাদেশ ব্যাংক কিছু ডলার কিনতে পারে।

অন্যান্য দেশেও এমনটা হয়ে থাকে। অন্যান্য দেশে এটা ফিক্সড করা থাকে, মার্কেট আপগ্রেড করুক বা না করুক, ফিক্সড রেটেই নিতে হবে। আমাদের দেশে এমন নয়।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে অনুমোদিত প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সামসুল আরেফিন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন কর্তৃক কাফকো বাংলাদেশ থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে ব্যয় হবে ১৮৬ কোটি টাকা।

বিসিআইসি কর্তৃক কাতারের মুনতাজাত থেকে ৩০ হাজার টন ইউরিয়া সার কেনা হবে। এর ব্যয় ধরা হয় ১৮৯ কোটি টাকা। আর এসএবিআইসি সৌদি আরব থেকে ৩০ হাজার টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কেনা হবে। দাম হবে ১৯০ কোটি টাকা।

 

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

ফেসবুক-ইউটিউব নিয়ন্ত্রণে ক্ষমতা বাড়ছে সরকারের

 

 

ফেসবুক-ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যখন যার যা খুশি, তাই সম্প্রচার করতে পারবে না।

সরকারের দৃষ্টিতে ক্ষতিকর সম্প্রচারের বিষয়গুলো চাইলেই বন্ধ করে দিতে পারবে কর্তৃপক্ষ। এর দ্বারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরকারের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লাইভ ও ভিডিও বন্ধ করতে পারব। যখনই প্রয়োজন হবে আমরা তখনই বন্ধ করতে সক্ষম হব।

বুধবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত সংলাপে অংশ নিয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, কুমিল্লার ঘটনায় ৩০০ লিংকে রিপোর্ট করেছি। এবার আমরা ৩৬৪টি লিংক বন্ধ করেছি।

ফেসবুকের সঙ্গে ২০১৮ সাল থেকে আলোচনা চলছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমি এখন পর্যন্ত ফেসবুকের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করছি। বাংলাদেশে তাদের বিশাল বাজার।

আশা করছি, বাংলাদেশের পরিস্থিতি ফেসবুক-ইউটিউব বুঝতে শুরু করেছে।

টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে যেভাবে চাপ দেওয়া দরকার সেই চাপ অব্যাহতভাবে দেওয়া হচ্ছে। তার পরিপ্রেক্ষিতে তারা ভ্যাট দেয়।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমি তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা কুমিল্লার বিষয়ে ফেসবুককে খুব কড়া ভাষায় অবহিত করেছি। যাতে মাথা ব্যথার কারণে মাথা কেটে ফেলতে না হয়।

তিনি বলেন, মাথা ব্যথা হলে মাথা কেটে ফেলা সমাধান নয়। ওষুধ দিয়ে সমস্যা সমাধান করতে হবে।  এক সময় গুজব রটানো কঠিন হয়ে যাবে।

বিএসআরএফ সভাপতি তপন বিশ্বাসের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হকের সঞ্চালনায় সংলাপে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধান তথ্য অফিসার শাহেনুর মিয়া।

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

নদীবন্দরে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি শ্রমিকদের

 

বরিশাল নদীবন্দরে থ্রি হুইলার থেকে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন শ্রমিকরা। পাশাপাশি নগরীতে বিক্ষোভ মিছিলও করেছেন থ্রি হুইলার শ্রমিকরা।

বুধবার বরিশাল নদীবন্দরের সামনে থ্রি হুইলার চালক-শ্রমিকদের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শ্রমিক মো. জালাল বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে মাহিন্দ্রা ও সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিকদের আয় কমে গেছে।

এর মধ্যে প্রতি রাতে নদীবন্দর এলাকায় লঞ্চের যাত্রী পরিবহন করার জন্য আমরা গাড়ি নিয়ে আসলে ভাটারখাল এলাকার সুমন ও চাঁদমারী মাদ্রাসা গলির  রাজিব, ফয়সাল ও মিলন  সিরিয়াল দেওয়ার জন্য চাঁদা আদায় করেন। আমাদের নানা সমস্যার কথা অনেকবার বলেছি ইউনিয়নকে। তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

একাধিক শ্রমিক জানান, থ্রি হুইলার মাহিন্দ্র, সিএনজি যাত্রী পরিবহন করার জন্য নদীবন্দরে আসলে সুমন ও তার সহযোগীরা সিরিয়াল দেওয়ার জন্য অগ্রিম ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা এবং প্রতি রাতে গাড়ি প্রতি ১০০ টাকা আদায় করেন।

প্রতিবাদ করলে মারধরের শিকার হতে হয়। তাই চাঁদাবাজি বন্ধের প্রতিবাদে আমরা সব শ্রমিক গাড়ি বন্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করি।

বরিশাল মহানগর শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক পরিমল চন্দ্র দাস বলেন, আমি সবসময় সাধারণ শ্রমিকদের পাশে আছি। নদীবন্দর এলাকায় কোন গাড়ি থেকে কেউ চাঁদাবাজি করলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্ৰহণ করব।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সুমন, ফয়সাল, রাজিব বা মিলনের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

 

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

ড্যান্ডি নেশায় আসক্ত টঙ্গীর পথশিশুরা

 

 

সর্বনাশা মাদকের ছোবলে যুবক, বয়স্কদের পাশাপাশি টঙ্গীতে ড্যান্ডি নেশায় এখন পথশিশুরাও আসক্ত।

ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে অন্ধকার জীবনে। এসব শিশুদের বেশিরভাগই নিম্নবিত্ত পরিবারের সন্তান, যাদের বয়স ৮ থেকে ১৫ বছর বয়সের মধ্যে।

টঙ্গী-কালীগঞ্জ সড়ক, স্টেশন রোড ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উভয় পাশ, শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের বাউন্ডারি দেয়াল সংলগ্ন ফুটপাত, রেলওয়ে জংশনের প্ল্যাটফর্ম, বাসস্ট্যান্ড ও বস্তির খুপরি ঘরসহ অধিকাংশ ঘনবসতি এলাকায় ২০-২৫ জন পথশিশুকে প্রকাশ্যে নেশাজাতীয় দ্রব্য ড্যান্ডি সেবন করতে দেখা যায়।

কেউ দাঁড়িয়ে আছে, কেউবা দেয়ালে হেলান দিয়ে বসে আছে। সবার হাতে পলিথিন। ফুঁ দিয়ে ফুলিয়ে নাক মুখ তাতে ঢুকিয়ে কয়েক মিনিট চেপে ধরছে।

ভেতরে আঠালো হলুদ কিছু পদার্থ। কিছুক্ষণ গন্ধ শুকার পর একজন ফুটপাতেই চোখ বুজে শুইয়ে আছে, অন্যজন আকাশের দিকে তাকিয়ে অদৃশ্য কি যেন খুঁজছে।

প্রায় প্রতিদিনই কম-বেশি এ দৃশ্য চোখে পড়ে। একই দৃশ্য দেখা যায় নতুনবাজার যাওয়ার পথে সড়কের দুই পাশেও।

নেশার জগতে বিশেষ করে নিম্নবিত্তের কাছে প্রচলিত এ মাদকটির নাম ডেনড্রাইট। অনেকে বুস্টিক হিসেবে চিনে। তবে মাদকসেবীদের কাছে এটি পরিচিত ড্যান্ডি নামেই।

দিন দিন বাড়ছে এর চাহিদা। এক সময় টোকাই শ্রেণির শিশু-কিশোরদের মধ্যে এর ব্যবহার প্রচলিত থাকলেও বর্তমানে অনেক ধনীর দুলালও এটি গ্রহণ করায় ক্রমশ মাদকসেবীদের কাছে প্রিয় হয়ে উঠছে এটি।

জানা গেছে, ডেনড্রাইট বা বুস্টিক একধরনের আঠালো পদার্থ। কাঁচ, রাবার, চামড়া কিংবা রেক্সিন জাতীয় বস্তু জোড়া লাগাতে এটি আইকা বা গাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়। গ্যালন, কৌটা বা টিউবে পাওয়া যায় এটি।

যে কোন হার্ডওয়ারের দোকান থেকে এটি খুব সহজেই যে কেউ কিনতে পারে। প্রধানত ভারত ও নেপাল থেকে এটি এদেশে আসছে। ডেনড্রাইট, ড্যান্ডি বা জুতা তৈরির আঠায় টলুইন নামক এক ধরনের আঠালো তরল পদার্থ থাকে।

এটি বাষ্পীভূত হয়ে নিঃশ্বাসের সঙ্গে সেবনকারী শিশুদের দেহে প্রবেশ করলে ক্ষণস্থায়ীভাবে ঝিমুনি, মাথাব্যথা, ক্ষুধা না লাগা ও নিয়ন্ত্রণহীনতার উদ্রেক করে। ডেনড্রাইট স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

বুধবার স্টেশনরোড ফুটপাতে গেলে দেখা যায়, ফুটপাতে কয়েকজন বসে ড্যান্ডি সেবন করছিল। এক শিশু পলিথিনে মুখ ঢুকিয়ে নি:শ্বাস টানছে।

জিজ্ঞাসা করতেই শুয়ে থাকা শিশুটি চোখ বুজে উত্তর দেয় ড্যান্ডি খাই ড্যান্ডি। এইডা খাইলে নিশা অয়, ঘুম আইয়ে। খিদা লাগে না। দুনিয়াদারির কোন হুঁশ থাহে না।

নাম জানতে চাইলে একে একে বলে উঠল- নুর মোহাম্মদ, হৃদয়, রিফাত, রাসেল, সূর্য, ময়না, শান্ত।

নেশার টাকা কীভাবে জোগাড় করে জানতে চাইলে হৃদয় জানায়, ভিক্ষা করে টাকা জোগাই আবার বড় ভাইদের নেশা আইন্না দিলে তারা টাকা দেয়। সেই টাকা দিয়া ড্যান্ডি কিনি।

তবে নেশার টাকা জোগাতে পথ যাত্রীদের মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাইসহ বাসা-বাড়ি ও দোকানপাটে ছোট-বড় চুরির ঘটনাও ঘটাতে দেখা যায় তাদের।

টঙ্গীতে পথশিশুদের নিয়ে কাজ করা টোকাই উন্নয়ন সোসাইটির অর্গানাইজার অলিউল ইসলাম ভয়ংকর একটি তথ্য দেন।

তিনি জানান, ড্যান্ডি সেবনকারী পথশিশুদের অনেকে দাঁতের ফাঁকে ব্লেডের টুকরো ঢুকিয়ে রাখে। মাঝে মধ্যে ব্লেডে চাপ দেয়। এতে মাড়ি কেটে রক্ত বের হয়। ড্যান্ডির গন্ধ শুঁকার পর নোনতা রক্তের স্বাদে নাকি নেশা বেশি হয়।

এ ধরনের বেশ কয়েকজন শিশুকে পেয়েছেন জানিয়ে অলিউল ইসলাম বলেন, অন্য শিশুদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তাদের এখানে রাখা যায় না।

আমরা ড্যান্ডিসহ বিভিন্ন নেশা সেবনকারী পথশিশুদের এনে পুনর্বাসনের চেষ্টা করি। এক্ষেত্রে সরকারী সহায়তা পেলে কাজটি চালিয়ে যেতে আরও সহজ হতো।

এ প্রসঙ্গে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গাম জাতীয় কেমিকেল সেবন করলে কিডনি ও লিভার অকার্যকর হতে পারে।

এর প্রভাবে ক্রনিক ডিজিজ যেমন ক্যান্সার হতে পারে। এমনকি মস্তিষ্কবিকৃতি হওয়ারও অধিক সম্ভাবনা থাকে।

টঙ্গী সরকারি কলেজের প্রফেসর কানিজ ফাতেমা এসব ড্যান্ডিসেবীদের ভবিষ্যতের ভয়াবহ পরিণতি সম্পর্কে বলেন, গ্লুগাম বা মাদক হিসেবে পরিচিত ড্যান্ডিতে টলুইন, ন্যাপথালিন, বেনজিন মিথাইল ও কার্বন ড্রাই ক্লোরাইড নামক পদার্থ ব্যবহৃত হয় যা বিশেষ গন্ধযুক্ত, অধিক উদ্বায়ী ও বাষ্পীয়।

এটি সেবনে দেহে প্রথমে শিহরণ জাগে এবং পরে অবসন্ন ভাব, চলাফেরায় অসংলগ্নতা, মাথা ঘোরা ও বমি বমি ভাব হয়। দীর্ঘমেয়াদি সেবনে লিভার কিডনিসহ ব্রেইনের গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলোকে নিষ্ক্রিয় করে ফেলে ড্যান্ডি অর্থাৎ টলুইন।

এছাড়া নিয়মিত ড্যান্ডি সেবনে বেনজিন মিথাইলের প্রভাবে পথশিশুদের মস্তিষ্ক বিকৃতির আশঙ্কা রয়েছে শতভাগ।

এটি সেবনে মানসিক সমস্যা, নিউরোলজিক্যাল সমস্যা, মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ এমনকি নার্ভাস সিস্টেম বন্ধ হয়ে মৃত্যুও হতে পারে। তবে এদের মরণ নেশা থেকে ফিরিয়ে আনতে হলে সরকারি ভূমিকার বিকল্প নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

রাজশাহীর বিসিএস পরীক্ষা নিয়ে পুলিশের নির্দেশনা

 

 

রাজশাহী মহানগরীর ৪৪টি কেন্দ্রে আগামী শুক্রবার ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি টেস্ট পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়ে বিশেষ নির্দেশনা জারি করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পরীক্ষা চলাকালে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চতুর্দিকে ২০০ গজের মধ্যে সব প্রকার মিছিল, মিটিং, সমাবেশ, বিক্ষোভ প্রদর্শন, মাইকিং, বিস্ফোরক দ্রব্য ও অস্ত্রশস্ত্র বহন এবং চারজনের অধিক একত্রে চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তার ওপর অর্পিত ক্ষমতাবলে এ আদেশ জারি করেছেন। আদেশ অমান্য করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

সব ধর্মের মানুষের জন্য মাদ্রাসা উন্মুক্ত করে দিন, জাফরুল্লাহ

 

সব ধর্মের মানুষের জন্য মাদ্রাসাগুলো উন্মুক্ত করে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, সব ধর্মের মানুষের জন্য মাদ্রাসাগুলো উন্মুক্ত করে দেওয়া হোক। যেখানে যে কোনো ধর্মের লোক পড়তে পারবে।

বুধবার সকাল ১১টায় শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে নৈতিক সমাজ নামের একটি সংগঠন আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ দাবি জানান।

সমাজের চুরি, সন্ত্রাস, লুটপাট বন্ধ করতে হলে নৈতিক সমাজ প্রতিষ্ঠা ছাড়া কোনো উপায় নেই বলে সমাবেশে মন্তব্য করেন জাফরুল্লাহ।

তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক হামলা হয়েছে- তা সরকারের প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক ব্যর্থতা। এই ধরনের ঘটনা আর ঘটতে দেওয়া যাবে না। এই ঘটনা ঘটার অন্যতম আরেকটি কারণ আমরা নৈতিকতা ধারণ করিনি।

সমাবেশে নৈতিক সমাজের সংগঠক মেজর জেনারেল (অব.) আমসা আমিন বলেন, এই সাম্প্রদায়িক হামলা পাগলদের দিয়ে চালানো হয়েছে ঠিক, কিন্তু যারা এর পেছনে আছে তারা পাগল নয়।

যারা এর পেছনে আছে তারা সাম্প্রদায়িকতাকে ক্যাপিটাল হিসেবে ব্যবহার করে স্বাধীন সার্বভৌমত্ব রাষ্ট্রকে অস্থিতিশীল করতে চায়। রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়।

 

 

 

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

শ্বশুরবাড়িতে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে জামাইয়ের মৃত্যু 

 

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের বিশ্বনাথপুরে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে গিয়ে মতিউর রহমান মতি নামে এক ব্যক্তি বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন।

বুধবার এ ঘটনা ঘটে। মৃত মতিউর অচিন্তপুর ইউনিয়নের খালিজুড়ী গ্রামের মো. আইয়ুব আলীর পুত্র।

পরিবার ও পুলিশ সূত্র জানায়, মতি ২০১৪ সালে একই উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের বিশ্বনাথপুরে মো. দুলাল মিয়ার কন্যা শারমিন আক্তারকে বিয়ে করেন।

দাম্পত্য জীবনে দুই পুত্রসন্তান রয়েছে। বড় ছেলে আজমাইন হোসেন ও ছোট ছেলে আরমান হোসেন।

শারমিন আক্তার জানান, তার স্বামী সকালে ঘরের ফ্যান মেরামত করতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে আহত হন। তাকে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ডা. মনিকা সরকার জানান, বিদ্যুৎপৃষ্ট রোগীটি হাসপাতালে নিয়ে আসার অনেক আগেই মারা গেছেন।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী জানান, এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

Edited By: Kanij Fatema

 

 

সব কোচিং সেন্টার বন্ধ, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

 

আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে মোট ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ শিক্ষার্থী।

এ কারণে আগামী ৮ থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে সারা দেশে শুরু হচ্ছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। পরীক্ষায় অংশ নেবে মোট ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন পরীক্ষার্থী।

সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খানসহ সংশ্লিষ্ট র্কমকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

ভারতে ইলিশ রপ্তানির সময় বাড়ল

 

ভারতে ইলিশ রপ্তানির সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। আগামী ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে ইলিশ রপ্তানি করা যাবে বলে জানিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের রফতানি-২ শাখার উপসচিব তানিয়া ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এরআগে গত ৪ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত দেশে ইলিশের প্রজনন রক্ষায় ইলিশ শিকার, পরিবহণ ও বিক্রয় বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়। এসময় বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ ছিল।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৪০ মেট্রিক টন করে মোট ১১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ইলিশ রফতানির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে দেশে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহণ, মজুত, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ থাকায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো অনুমোদনকৃত ইলিশ রফতানি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারেনি।

 

 

 

হীরায় মোড়ানো গাড়ি ব্যবহার করেন সৌদি যুবরাজ 

 

সৌদি আরবের যুবরাজ আল-ওয়ালিদ। বিলাসবহুল জীবনযাপনের জন্য সারা বিশ্বে জনপ্রিয় তিনি।

ওয়ালিদ একজন ব্যবসায়ী এবং বিনিয়োগকারীও। অন্তত ২০০টি বহুমূল্য গাড়ি রয়েছে তার। তালিকায় রয়েছে হীরা খচিত একটি গাড়িও। এমন কথা প্রচলিত রয়েছে গাড়িটিকে ছুঁয়ে দেখতে গেলেই নাকি গুনতে হবে লাখ টাকা।

সেটি আসলে একটি মার্সিডিজ গাড়ি। কিন্তু গাড়িটি আগাগোড়া হীরা দিয়ে মোড়া। এসএল৬০০ মডেলের গাড়িটির দাম ৪৮ লাখ ডলার বা ৩৬ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

আল-ওয়ালিদ অত্যন্ত বিলাসবহুল জীবনযাপন করেন। শুধুমাত্র সৌদি আরবেই তিনটি প্রাসাদ রয়েছে তার। তবে মধ্য রিয়াদের প্রাসাদেই বেশির ভাগ সময় কাটান তিনি। ওই প্রাসাদে রয়েছে অন্তত ৩১৭টি ঘর।

এই বিশাল প্রাসাদ বানাতে খরচ হয়েছিল ১৩ কোটি ডলার। অন্য দেশে ভ্রমণ করতে গেলে ব্যক্তিগত বিমানেই যাতায়াত করেন ওয়ালিদ।

জানা গেছে, ১৩ জন বিশেষজ্ঞের চেষ্টায় গাড়িটিকে এমন হীরা দিয়ে সাজানো সম্ভব হয়েছিল। যার জন্য সময় লেগেছিল দুই সপ্তাহ। মার্সিডিজ এসএল৬০০ মডেলের গাড়িটির দাম ৪৮ লক্ষ ডলার।

২০০৭ সালে দুবাইয়ের একটি প্রদর্শনীতে মার্সিডিজের ৫০ তম জন্মদিন উপলক্ষে গাড়িটি দেখানো হয়েছিল। তার পরই সেটি কিনে নেন যুবরাজ ওয়ালিদ।

পুরোটাই হীরা দিয়ে মোড়া থাকায় আলো পড়লেই ঝলমল করে ওঠে ওই গাড়ি।

 

 

আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হবে কেন 

 

ফেসবুক ব্যবহারের শর্তাবলি না মানলে আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হতে পারে।

যেমন ফেসবুকে ভুয়া নাম ব্যবহার করলে, অন্য কারও পরিচয়ে অ্যাকাউন্ট খুললে, অবৈধ কিছু পোস্ট করলে, কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড লঙ্ঘন করলে, কিংবা কাউকে হয়রানি করলে বন্ধ হতে পারে আপনার অ্যাকাউন্ট।

সেটা ২৮ তারিখেও হতে পারে, যদি ফেসবুক সেদিন আপনার অ্যাকাউন্টে ত্রুটি খুঁজে পায়।

তবে এখন পর্যন্ত সে তালিকার কোথাও বলা নেই, ফেসবুক প্রটেক্ট সচল না করলে ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট সাময়িক অথবা স্থায়ীভাবে বন্ধ কিংবা নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হবে।

সবচেয়ে বড় কথা প্রটেক্ট নামের নিরাপত্তা সুবিধাটি সবার জন্য না। নির্দিষ্ট শ্রেণিতে না পড়লে চাইলেও তা চালু করতে পারবেন না। চলুন দেখা যাক, সুবিধাটি আসলে কী এবং কাদের জন্য।

 

ফেসবুক প্রটেক্ট কী?

ফেসবুক ওয়েবসাইটে এ সম্পর্কে বলা হয়েছে, নির্বাচনে প্রার্থী, তাঁদের প্রচারণা কর্মী এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাকাউন্টগুলোর বাড়তি নিরাপত্তা প্রয়োজন।

নির্বাচনের সময় অ্যাকাউন্টগুলো বাড়তি ঝুঁকির মুখে থাকায় তাঁদের বাড়তি নিরাপত্তা দিতে ফেসবুক প্রটেক্ট নামের কর্মসূচি চালু করা হয় এবং সেটা ঐচ্ছিক।

নির্বাচনে প্রার্থী, তাঁদের প্রচারণা কর্মী এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ‘চাইলে’ তাঁদের অ্যাকাউন্ট এবং পেজে প্রটেক্ট নামের সুবিধাটি সচল করতে পারেন। বিশেষ করে হ্যাকিং থেকে সুরক্ষার জন্য সুবিধা কাজের।

 

ফেসবুক প্রটেক্ট চালু করলে কী হবে?

সুবিধাটি যাঁদের জন্য, তাঁরা যদি সচল করেন, তবে ফেসবুক তাঁদের অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য নির্দেশনা দেবে। যেমন টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু কিংবা হ্যাকিংয়ের চেষ্টা হচ্ছে কি না, তা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা।

পেজের ক্ষেত্রে সব অ্যাডমিনের পোস্ট পাবলিশ করার জন্য নতুন করে অনুমোদন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

যাঁরা ওই গুরুত্বপূর্ণ পেজগুলো ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছেন, তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট একটির বেশি থাকা চলবে না, অবশ্যই নিজের আসল নাম ব্যবহার করতে হবে এবং নিরাপত্তার জন্য টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করতে বলা হবে। পাশাপাশি যে দেশে অবস্থান করছেন, সেটাও নিশ্চিত করতে হবে।

 

কীভাবে সচল করবেন?

প্রটেক্ট সুবিধাটি ঐচ্ছিক। তবে নিরাপত্তার জন্য ভালো। যাঁরা প্রটেক্ট সচল করার নোটিফিকেশন পেয়েছেন, তাঁরা পর্দায় দেখানো নির্দেশনা মেনে সচল করতে পারেন।

আর যাঁরা সে নোটিফিকেশন পাননি, তাঁদের চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। তবু চাইলে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য সেটিংস থেকে সিকিউরিটি অ্যান্ড লগইনে গিয়ে টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন অপশন সচল করে নিতে পারেন। তবে কেবল এ নিয়ে বাড়তি চিন্তার কিছু নেই।

 

 

পাটুরিয়ায় ফেরিডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে ফেরিডুবির ঘটনায় চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ এই তথ্য জানান।

ঘাটসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ঘাট থেকে ১৭টি পণ্যবাহী গাড়ি নিয়ে পাটুরিয়ার উদ্দেশে রওনা হয় ফেরি আমানত শাহ।

এ সময় ফেরিতে ১২ থেকে ১৫টি মোটরসাইকেলে আরোহী ছিলেন। সকাল পৌনে ১০টায় পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ঘাটে পন্টুনে আসার পর তিনটি গাড়ি ও কয়েকটি মোটরসাইকেল ফেরি থেকে নেমে যায়।

এ সময় ফেরিটিতে পানি ওঠায় তা কাত হয়ে অর্ধেক ডুবে যায়। এতে ১৪টি পণ্যবাহী গাড়িসহ কয়েকটি মোটরসাইকেল পদ্মা নদীতে পড়ে যায়।

এ সময় বেশ কয়েকজন গাড়িচালক ও মোটরসাইকেল আরোহী লাফিয়ে নদীতে পড়েন। পরে তাঁরা সাঁতরে তীরে ওঠেন। এ ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে।

দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়।

বেলা একটায় উদ্ধারকারী জাহাজ দিয়ে একটি মোটরসাইকেল, এর কিছুক্ষণ পর একটি পণ্যবাহী ট্রাক নদী থেকে উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জ থেকে উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয় পাটুরিয়ার উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।

মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ বলেন, ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে।

ভারপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সানোয়ারুল হককে কমিটির প্রধান করা হয়েছে।

 

 

মুক্তি পাচ্ছে রোমানার সিনেমা 

 

মডেলিং থেকে টেলিভিশন নাটকে, এরপর এক সময় সিনেমায়ও নাম লিখিয়েছিলেন রোমানা খান। শেষ পর্যন্ত সবকিছু ছেড়ে দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন তিনি।

সেখানেই সংসার করছেন। হয়েছেন সন্তানের মা। সেই রোমানাকেই আবারও দেখা যাবে সিনেমা হলের পর্দায়।

১০ বছর আগে এফ আই মানিকের পরিচালনায় ও ডিপজলের প্রযোজনায় এ দেশ তোমার আমার নামে একটি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন রোমানা। সে সিনেমাটি আগামী ৫ নভেম্বর মুক্তি পাবে বলে জানা গেছে।

এ সিনেমায় আরও অভিনয় করেছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল, পারভীন সুলতানা দিতি, মিজু আহমেদ, সোহেল রানা, জায়েদ খান, ডিজে সোহেল, আলী রাজ, রুমানা রাব্বানী, রোমানা নীড়, রাবিনা বৃষ্টি, আমান রেজা, আন্না, শাকিল রাজসহ অনেকে।

সিনেমাতে অভিনয় প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র থেকে রোমানা জানান, ঠিক মনে নেই আসলে কত বছর আগে এ সিনেমাতে অভিনয় করেছিলাম। তবে ১০ বছর তো হবেই।

তখন আমি নাটকে এবং সিনেমাতে সমানতালে কাজ করছিলাম। তাদের সঙ্গে কাজ করার স্মৃতি চোখে স্পষ্ট।

দর্শকের কাছে বিশেষ অনুরোধ থাকবে, এ দেশে তোমার আমার’ সিনেমাটি হলে গিয়ে যেন দেখেন। এটা দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হওয়ার সিনেমা।

জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান এই অভিনেত্রী।

সর্বশেষ তিনি রহমতুল্লাহ তুহিনের নির্দেশনায় ২০১৪ সালে অভিনয় করেন যত দূরে যাবে বন্ধু নাটকে। এরপর তাকে আর সিনেমা কিংবা নাটকে অভিনয় করতে দেখা যায়নি।

২০১৫ সালে রুমানা খান যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ব্যবসায়ী এলিন রহমানকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই স্বামীর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তিনি।

 

সৌদি খেজুর চাষে ঋণ দেবে ব্যাংক 

 

সৌদি খেজুরসহ নতুন চার ফসলে কৃষিঋণ দেওয়ার নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষিঋণ বিভাগ থেকে এসংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

 

দেশে কার্যরত সব তপশিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো ঐ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ২০২১-২০২২ অর্থবছরের কৃষি-পল্লি ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচিতে বর্ণিত শস্য, ফসল, ফল-ফুল ইত্যাদির সঙ্গে সৌদি খেজুর, ভিয়েতনামি নারকেল, সুইট কর্ন ও কফি চাষ অন্তর্ভুক্ত হবে।

সৌদি খেজুর চাষে একরপ্রতি ১০ লাখ ৫ হাজার ৪০০ টাকা ঋণ পাবেন একজন কৃষক।

ভিয়েতনামি নারকেল উত্পাদনে একজন কৃষককে ৪ লাখ ২৯ হাজার টাকা ঋণ দেওয়া হবে।

সুইট কর্ন চাষে একরপ্রতি ৬৬ হাজার টাকা এবং কফি চাষ করার জন্য একরে সর্বোচ্চ ৩ লাখ ৮৪ হাজার টাকা ঋণ দেওয়া হবে প্রত্যেক কৃষককে।

প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়, সৌদি খেজুর, ভিয়েতনামি নারকেল ও কফি চাষের জন্য সারা বছর ঋণ নিতে পারবেন কৃষক। তবে সুইট কর্নে ঋণ দেওয়া হবে ১৫ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ঋণ পরিশোধের স্বাভাবিক সময়সীমা ফসল সংগ্রহের পর থেকেই শরু হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে ২৮ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা কৃষিঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর মধ্যে সরকারি খাতের ব্যাংক ১১ হাজার ৪৫ কোটি টাকা এবং বেসরকারি ও বিদেশি ব্যাংক ১৭ হাজার ৩৪৬ কোটি টাকা বিতরণ করবে।

গত অর্থবছরে ২৬ হাজার ২৯২ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বিতরণ করা হয়েছে ২৫ হাজার ৫১১ কোটি টাকা।

 

মাস্কের ২ শতাংশ সম্পদে মিটবে বিশ্ব খাদ্যসংকট 

 

বিশ্বের শীর্ষ ধনী টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের ২ শতাংশ সম্পদ দিয়েই বিশ্বের চলমান খাদ্যসংকট মেটানো সম্ভব।

এক সাক্ষাৎকারে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) পরিচালক ডেভিড বিসলি এমন দাবি করেন।

তিনি বলেন, বিশ্বের শীর্ষ ধনীরা যদি তাদের সম্পদের সামান্য অংশ দান করেন, তাহলে বিশ্বের বহু মানুষের মুখে দুমুঠো খাবার জুটবে। এজন্য ধনীদের উচিরত এগিয়ে আসা।

তিনি আরও বলেন, ৪ কোটি ২০ লাখ মানুষ বিশ্বজুড়ে চরম খাদ্যসংকটে ভুগছে। তাদের বিপদ থেকে রক্ষায় ৬০০ কোটি মার্কিন ডলারের সাহায্য প্রয়োজন।

সম্প্রতি ১ লাখ কোটির মাইলফলক তিক্রম করেছে ইলন মাস্কের বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলা।

ব্লুমবার্গের এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্কের সম্পদ বর্তমানে ২৮৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমপরিমাণ। তিনি যদি তার সম্পদের মাত্র ২ শতাংশ দান করেন তাহলে মিটে যাবে চরম এই খাদ্যসংকট।

 

মাহির জন্মদিনে স্বামীর সারপ্রাইজ 

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি। ১৯৯৩ সালের ২৭ অক্টোবর তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

বুধবার ছিলো তার জন্মদিন। স্ত্রীর জন্মদিনের প্রথম প্রহরেই জমকালো আয়োজন করে তাকে সারপ্রাইজ দেন মাহির দ্বিতীয় স্বামী রাকিব।

রাত ১২টা বাজতেই স্বামী ও তার আত্নীয়দের সঙ্গে কেক কাটেন মাহি। মাহি তার ফেসবুক পেইজ থেকে লাইভে এসে জন্মদিনের প্রথম প্রহরের কেক কাটার মূহুর্ত শেয়ার করেন তার ভক্তদের সঙ্গে। মুহূর্তেই হয়ে যায় ভাইরাল।

২৮টি ফানুস ওড়ানো হয়। তার সঙ্গে ছিলো আতশবাজির ঝলকানি। সেই সঙ্গে স্ত্রীকে কোচুরি পানা-দোলনচাঁপা উপহার দেন রাকি।

আসলে, মাহি ২৮ বছর পেরিয়ে ২৯ বছরে পা দিলেন সেজন্য ২৮টি ফানুস ওড়ানো হয়। জন্মদিনে স্বামীর এমন আয়োজনে মুগ্ধ মাহি।

প্রথমপ্রহরের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অনেক অতিথি। রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী স্বামী, তার আমন্ত্রিত অতিথিই চোখে পড়লো।

ছিলেন আত্মীয় স্বজনরাও। নায়িকাকে দেখা গেলো এই আয়োজনটা উপভোগ করছেন। সহাস্য বদনে কেক কাটলেন, স্বামীসহ উপস্থিত প্রিয়জনদের কেক খাইয়ে দিলেন।

মাহির জন্ম রাজশাহীতে। তার আসল নাম শারমিন আক্তার নিপা। পড়াশোনা করেছেন ঢাকায়। ২০১২ সালে জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ভালোবাসার রঙ সিনেমার মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। এরপর অনেকগুলো আলোচিত সিনেমায় দেখা গেছে তাকে।

শিগগিরই মাহী শুরু করবেন বায়োস্কোপের প্রযোজনায় ড্রাইভার শিরোনামের একটি ওয়েব ফিল্মের কাজ। এটি পরিচালনা করছেন ইফতেখার চৌধুরী।

এতে মাহীর সঙ্গে থাকবেন মোশাররফ করিম ও আবদুন নূর সজল। ইফতেখার চৌধুরীর পরিচালনায় মাহী এর আগে ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র অগ্নি ও অগ্নি-২ তে কাজ করছেন। হাতে থাকা কাজগুলো ছাড়াও মাহীর একাধিক চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিয়ে করেছিলেন সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে। তবে চলতি বছরের মে মাসে সেই সংসারে বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন মাহি।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর গাজীপুরের ব্যবসায়ী রাকিব সরকারের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন এ নায়িকা।

 

আফগান অলরাউন্ডার নাবিকে হটিয়ে ফের শীর্ষে সাকিব 

 

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অসাধারণ অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স দেখিয়ে চলেছেন সাকিব আল হাসান। প্রথম রাউন্ডে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির ম্যাচে ম্যাচসেরা হয়েছেন।

শ্রীলংকার বিপক্ষে তার ব্যাট সেভাবে না হাসলেও বল হাতে দুটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট শিকার করেছেন।

এবার আরো একটি পুরস্কার উঠল সাকিবের হাতে। আফগানিস্তানের অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নাবিকে হটিয়ে  টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ে আবার শীর্ষে উঠে এসেছেন সাকিব।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাকিবের শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল ।

এবারের বিশ্বকাপে সাবেক পাক অলরাউন্ডার শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে থেকে মাঠে নেমেছিলেন সাকিব। সুপার টুয়েলভ রাউন্ডের প্রথম ম্যাচেই আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে যান তিনি।

শ্রীলংকা ইনিংসে জোড়া আঘাত হেনে এককভাবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হন সাকিব।

ক্রিকেটের আধুকিতম সংস্করণের বিশ্ব আসরে ৩৪ ম্যাচ খেলে ২৩.২৫ গড়ে ৩৯ উইকেট নিয়েছেন আফ্রিদি।  পাঁচ ম্যাচ কম খেলেই ৪১ উইকেট নিয়েএ রেকর্ডের চূড়ায় উঠলেন।

 

 

শূন্য বয়স থেকেই এনআইডি দেবে সরকার

 

জাতীয় পরিচয়পত্র কার্যক্রম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে এলে শূন্য বয়স থেকেই নাগরিকদের এনআইডি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বর্তমানে ১৮ বছরের পর থেকে নাগরিকদের এনআইডি দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন ।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত এক সংলাপে অংশ নিয়ে তিনি একথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আগে যারা ভোটার তাদেরই কেবল এনআইডি দেওয়া হতো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শূন্য বয়স থেকে এনআইডি চালুর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

তবে এনআইডি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আসার কিছু আইনি জটিলতা দেখা দেওয়ায় ফাইল আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে জননিরাপত্তা বিভাগ এবং অপরটি সুরক্ষা ও সেবা বিভাগ। দুই বিভাগে ছোটবড় মিলিয়ে বেশ কয়েকটি অনুবিভাগ করা হয়েছে।

তার মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আরেকটি বিভাগ যুক্ত হয়েছে। সেটি হচ্ছে জাতীয় পরিচয়পত্র কার্যক্রম। পরিকল্পিতিভাবে সামনের দিকে এগোনো হচ্ছে। এতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে।

নির্বাচন কমিশনের হাত থেকে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন কার্যক্রম চলে যাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন সুরক্ষা সেবা বিভাগের হাতে।

এজন্য জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন আইন, ২০১০ এ সংশোধনী আনার প্রয়োজন হবে। আইনে উল্লিখিত নির্বাচন কমিশন- এর স্থলে সরকার শব্দ অন্তর্ভুক্ত করার প্রয়োজন হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনা বাস্তবায়ন হলে সেই কার্যক্রম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হাতে চলে যাবে। ভোটার তালিকা আইন, ২০০৯ অনুসারে নতুন ভোটার অন্তর্ভুক্তি বা মৃতদের নাম তালিকা দেওয়ার এখতিয়ার ইসির হাতেই থাকবে। যদিও নতুন ভোটার অন্তর্ভুক্তি ও জাতীয় পরিচয় সংক্রান্ত সেবা একই সার্ভার থেকে দিয়ে আসছে ইসি।

 

 

 

ভিকিকে বিয়ে করছেন ক্যাটরিনা 

 

বলিউড সেনসেশন ক্যাটরিনা কাইফ ও ভিকি কৌশলের প্রেমের গুঞ্জন বলিউডে বহুল চর্চিত বিষয়।

শোনা যাচ্ছে দীর্ঘ প্রেমের পর বিয়ে করতে যাচ্ছেন তারা। ডিসেম্বরেই নাকি রাজস্থানে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান।

১৮ আগস্ট ক্যাট ও ভিকির বাগদান হয়ে গেছে বলে তাদের নিকটজনরা দাবি করেছেন। কিন্তু ভিকি এসব তথ্যকে উড়িয়ে দিয়েছেন।

জানিয়েছেন শিগগিরই বিয়ে করবেন তিনি। ভিকি কাকে বিয়ে করবেন সেটি উল্লেখ না করায় ভিকি-ক্যাটের ভক্তরা ধরে নিয়েছেন এ দুজন গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন।

গেল ১৮ আগস্ট গোপনে ভিকির সঙ্গে রোকা অনুষ্ঠান সেরেছেন ক্যাটরিনা। এবার ভারতের অন্যতম এ শীর্ষ সংবাদমাধ্যম জানাল, সম্পর্কের পরবর্তী ধাপে যাচ্ছেন ভিকি-ক্যাটরিনা।

শিগগিরই তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন। বিয়ের প্রস্তুতিও নেওয়া শুরু করেছেন ক্যাট-ভিকি। তাদের বিয়ের পোশাক ডিজাইন করছেন সব্যসাচী।

তারা এখন কাপড় নির্বাচন করছেন। ক্যাটরিনার পছন্দ সিল্কের কাপড়, যা দিয়ে লেহেঙ্গা বানানো হবে। নভেম্বর-ডিসেম্বরের মধ্যে বিয়ে হবে।

তবে বুধবার বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বলিউড লাইফ বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করে দাবি করেছে, ক্যাটরিনা কাইফের ডিসেম্বরের বিয়ের খবরটি সত্য নয়।

পোর্টালটিকে ক্যাটরিনা কাইফ জানিয়েছেন, ওই খবর মিথ্যা এবং তিনি বিয়ে করছেন না। তা হলে এ নিয়ে এত মাতামাতি কেন- এমন প্রশ্নে ক্যাটরিনা বলেছেন, ১৫ বছর ধরে তিনি এ পরিস্থিতি মোকাবিলা করে আসছেন।

 

মাধ্যমিকে অংশ নেবে ২২ লাখ ২৭ হাজার শিক্ষার্থী 

 

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ৯ মাস পিছিয়ে যাওয়া এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার অংশ নিচ্ছে ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ শিক্ষার্থী।

বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগের ঘোষণা অনুযায়ী ১৪ নভেম্বর থেকে মোট ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা হবে।

১৮ লাখ ৯৯৮ জন আট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি, ৩ লাখ ১ হাজার ৮৮৭ জন মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দাখিল এবং ১ লাখ ২৪ হাজার ২২৮ জন কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীয় বসবে।

মহামারি পরিস্থিতির কারণে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে কেবল তিনটি নৈর্বচনিক বিষয়গুলোর পরীক্ষা নেওয়া হবে।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি আগেই জানিয়েছিলেন, বাংলা, ইংরেজির মতো আবশ্যিক বিষয়গুলোতে পরীক্ষা না নিয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে।

 

 

সামরিক আদালতে প্রথম সাক্ষ্য দিলেন সু চি 

 

সেনাবাহিনীর অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত ও গৃহবন্দি মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চি জান্তা আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। প্রথম সাক্ষ্যে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি।

মঙ্গলবার মিয়ানমারের রাজধানী নেইপিদোতে জান্তা গঠিত বিশেষ আদালতে সাক্ষ্য দেন সু চি। গত জুন থেকে নেইপিদোর বিশেষ সামরিক আদালতে এসব মামলার বিচার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তার আইনজীবী দলের এক সদস্য বলেন, সু চি খুব ভালোভাবেই নির্দোষ প্রমাণ করতে পেরেছেন। আইনজীবী এর বাইরে কোনো তথ্য দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

কারণ মামলার শুনানির বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

আগামী সপ্তাহে আদালত এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ বিষয়ক বিবরণী লিখিত আকারে প্রকাশ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

কোন মামলায় তিনি সাক্ষ্য দিয়েছেন, তা আদালত লিখিত আকারে প্রকাশের আগ পর্যন্ত জানা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে সূত্র।

সু চির বিরুদ্ধে করোনার বিধিনিষেধ লংঘন, অবৈধভাবে ওয়াকিটকি আমদানি ও রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা রয়েছে।

বিচারে সেনা সরকারের পক্ষে রায় এলে তাকে আমৃত্যু কারাগারে থাকতে হতে পারে। গত ফেব্রুয়ারিতে গণতান্ত্রিক সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী।

এরপর থেকে গৃহবন্দি আছেন সাবেক সরকারি দলের নেতা সু চি। প্রত্যেকটি অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার সর্বোচ্চ ১৫ বছর করে কারাদণ্ড হতে পারে।

 

 

আরিয়ানকে নিয়ে পূজা দাদলানির পোস্ট ভাইরাল 

 

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানকে নিয়ে শাহরুখের ম্যানেজার পূজা দাদলানির একটি পুরনো পোস্ট ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

২০১৯ সালে আরিয়ানের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে ওই পোস্টটি করেছিলেন পূজা দাদলানি।

বুধবার আরিয়ানের জামিন আবেদনের শুনানি চলছে মুম্বাই হাইকোর্টে। এ সময় পূজা খান পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করে পুরনো ওই পোস্টটি নতুন করে রিপোস্ট করলে মুহুর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে পূজা লিখেছিলেন- জন্মদিনে আরিয়ানের জন্য অনেক শুভেচ্ছা। সে খুবই হৃদয়বান, কোমল হৃদয়ের এবং স্পর্শকাতর একটি ছেলে।

২০১২ সাল থেকে শাহরুখের সঙ্গে কাজ করছেন পূজা। খান পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে খুবই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে উঠেছে তার।

গত ২ অক্টোবর মুম্বাই থেকে গোয়াগামী প্রমোদতরী থেকে আটক করা হয়েছিল আরিয়ানকে। তার পর ৩ তারিখ তাকে গ্রেফতার দেখায় নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো।

নিম্ন আদালতে দুবার তার জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যায়। যুক্তি হিসেবে বলা হয়- জামিনে ছাড়া পেলে আরিয়ান তার বিরুদ্ধে যাবতীয় তথ্য ও প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করতে পারে।

আরিয়ানের জন্য তৃতীয়বারের মতো মঙ্গলবার জামিন আবেদন করা হয় মুম্বাই হাইকোর্টে। বুধবার বিকালে রায় হওয়ার কথা রয়েছে।

 

 

 

রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী

রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী

রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী রাজশাহী

 

কুমিল্লার ঘটনায় সরকারকে দায়ী করে যা বললেন ফখরুল

সব কোচিং সেন্টার বন্ধ, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

শ্বশুরবাড়িতে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে জামাইয়ের মৃত্যু

ভারতে ইলিশ রপ্তানির সময় বাড়ল

হীরায় মোড়ানো গাড়ি ব্যবহার করেন সৌদি যুবরাজ

চিকেন থাই স্যুপ

উড্ডয়নের ২২ মিনিট পরই ফিরে আসে বিমানট্রাকের

জামিন পেলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান

বাঁধনের জন্মদিন উদযাপন বলিউডে

সুদানে অভ্যুত্থান, সাহায্য বন্ধ বিশ্ব ব্যাংকের

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

পেট্রল পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল  পেট্রল 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.