প্রয়োজনে যা যা দরকার, আমরা তা করব, পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গা শিবিরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর জোর দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এ ব্যাপারে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছি।

আমরা সেখানে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটতে দেব না। অবশ্যই আমরা শক্ত অবস্থান নেব। ভবিষ্যতে যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে, সে জন্য আমরা বসে থাকছি না। প্রয়োজনে যা যা দরকার, আমরা তা করব।

বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

আব্দুল মোমেন বলেন, মুহিবুল্লাহ রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার বিষয়ে আইনসম্মতভাবে আন্দোলন করছিলেন।

কেউ কেউ হয়তো এটা পছন্দ করেননি। হয়তো সে জন্য তাকে মেরে ফেলা হয়েছে। যারা তাকে মেরেছেন, আমরা তাদের শাস্তি দেব, যাতে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে। এমনিতে রোহিঙ্গা যারা আছেন, তাদের পূর্ণ নিরাপত্তা দিচ্ছি।

তাদের নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়েছে। সীমান্তে নজরদারি কড়াকড়ি করেছি, যাতে মাদক ব্যবসা ও মানবপাচারের তৎপরতা বন্ধ হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে এখানে অস্ত্র আসার তথ্য রয়েছে।

ভাসানচর থেকে রোহিঙ্গাদের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা পালিয়ে যাবে না কেন? এটা তো তাদের দেশ না। বিভিন্ন দেশে তাদের আত্মীয়স্বজন আছে। তারা তাদের ডাকাডাকি করছে। তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে, তারা সেখানে যাচ্ছে। তো তারা চলে গেলে আমাদের কী? আমরা তো তাদের দাওয়াত দিয়ে আনিনি।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.