এখন থেকে আমিও কাউকে চিনব না’

এক সময়কার ব্যস্ততম চলচ্চিত্র অভিনেত্রীদের একজন নাসরিন। চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের ২৭ বছরে কমপক্ষে ৭০০ ছবিতে অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। প্রয়াত কৌতুক অভিনেতা দিলদারের নায়িকা হিসেবে দর্শকমহলে বেশ খ্যাতি কুড়িয়েছেন নাসরিন। মাঝে অভিনয় থেকে খানিকটা বিরতি নিলেও, সম্প্রতি কাজে ফিরেছেন তিনি। অভিনয় করছেন আবু তাওহীদ হিরণের ‘আদম’ ও মুস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘আনন্দ অশ্রু’ ছবিতে।
সম্প্রতি এই অভিনেত্রী ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করে লিখেছেন- ‘আজকে খুব মনে পড়ছে আমাদের মান্না ভাইকে। সে মৃত্যুর আগে একটা ইন্টারভিউতে বলেছিলো, “চলচ্চিত্রের কেউ আপন নয়”। অনেক বছর কাজ করে বেস্ট ফ্রেন্ড হিসেবে পাশে পেয়েছিল শুধু একজনকে। নাম উল্লেখ করেছিল মুসলিম ভাইয়ের। কথাটা শুনে আমারও কেন জানি বিশ্বাস করতে মন চায়নি। কিন্তু আজকে বিশ্বাস করতে বাধ্য হয়েছি।’

তিনি আরও লিখেছেন- ‘আমিও যাদেরকে আপন ভেবে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম। তাদের কাছে যখন খুব উৎসাহিত মন নিয়ে গিয়েছিলাম। তাদের তাকানো দেখে মনে হয়েছিল যে, কে এসে দাঁড়িয়েছে? তুই কে? আজব, খুবই দুঃখজনক। আসলে চলচ্চিত্রে সবাই অনেক বেশি স্বার্থপর, কেউ কারও না। যখন সময় ভালো, তখন সবাই পাশে থাকে। যখন সময় খারাপ, তখন না চেনার ভান করে। মনে অনেক কষ্ট হয়। তবে আর দুঃখ করি না। এখন থেকে আমিও কাউকে চিনব না।’
কথাগুলো তিনি কাকে উদ্দেশ্য করে বা কেন বলেছেন? জানতে ফোন করা হলে দৈনিক আমাদের সময় অনলাইনকে নাসরিন বলেন, ‘মনটা ভালো নেই। গতকাল রাতে এই কথাগুলো বলেছি এই কারণে, “সত্তা” চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আমি অনেক আশাবাদী ছিলাম। এর জন্য বাচসাস পুরস্কার পেয়েছি। চলচ্চিত্রের নির্মাতা, প্রযোজক ও সহশিল্পীদের বিশ্বাস ছিল, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পাবো। কিন্তু যখন জানতে পারি, এই পুরস্কারটি আমি পাচ্ছি না। তখন তো মন খারাপ হবেই। গতকাল যখন পুরস্কার দিচ্ছিল, তখন কথাগুলো ফেসবুকে লিখেছি। আর কিছুই না।’

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.