চলে গেলেন প্রতীতি দত্ত, করে গেলেন দেহ দান

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি পরিচালক ঋত্বিক ঘটকের যমজ বোন প্রতীতি দত্ত মারা গেছেন। রোববার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। প্রতীতি দেবীর মৃত্যুর খবরটি তার মেয়ে আরমা দত্ত নিশ্চিত করেছেন। 

পারিবারিক সূত্রে জানানো হয়, নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত প্রতীতি দেবীকে মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) অজ্ঞান অবস্থায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার জ্ঞান আর ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়নি। রবিবার (১২ জানুয়ারি) রাত ৮টা ৪০ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। তিনি শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের পুত্রবধূ এবং তিনি উন্নয়নকর্মী ও বর্তমান সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য এরোমা দত্তের মা।

এদিকে তার কন্যা এরোমা সাংবাদিকদের জানান, ‘মার শেষ ইচ্ছানুসারে তার দেহ সোমবার (১৩ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে দান করা হবে।’

প্রতীতি দেবী ১৯২৫ সালের ৪ নভেম্বর জন্মেছেন পুরোনো ঢাকার হৃষীকেশ দাস রোডের এক বাড়িতে। ঋত্বিক ঘটক আর প্রতীতি দেবী ঘটক জন্মেছেন পাঁচ মিনিটের অনুজ সহোদরা হিসেবে। সে সময় যমজের ডাকনাম রাখা হয় ভবা ও ভবি। ভবা হচ্ছেন ঋত্বিক, ভবি হচ্ছেন প্রতীতি দেবী।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.