‘ডুব’, ‘গণ্ডি’ কোনটাতেই কাজ করা হল না অঞ্জন দত্তের

গতকাল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র সংসদ আয়োজিত ১৯তম ‘আমার ভাষার চলচ্চিত্র উৎসব-১৪২৬’–এর আয়োজনে টিএসসির অডিটরিয়ামে সিনেমা শুরুর ১০ মিনিট আগেই হলের ওপর–নিচ ভর্তি। কারণ, সিনেমার নাম ফাইনালি ভালোবাসা। আর আগেই জানানো হয়েছিল, উপস্থিত থাকবেন এই ছবির পরিচালক ও মূল অভিনয়শিল্পীদের একজন, খুব চেনা, অঞ্জন দত্ত।

সিনেমা শেষে সেখানেই প্রশ্নোত্তর পর্বে এক ভক্ত জানতে চাইলেন, বাংলাদেশের সিনেমায় অভিনয় করবেন না? উত্তরে এই বৈচিত্র্যময় গুণের অধিকারী মানুষটা জানালেন, কেবল অভিনয়ই নয়, তিনি বাংলাদেশের ছবি পরিচালনাও করতে চান। 

জানালেন, দুবার অভিনয়ের বিষয়ে আলাপ হলেও ছবি করা হয়নি। বাংলাদেশে তার একজন প্রিয় পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। অঞ্জন দত্ত বললেন, “ডুব” সিনেমায় হুমায়ূন আহমেদের চরিত্রটা আমার করার কথা ছিল। কিন্তু সময় মেলেনি। তাই আমিই ওকে ইরফান খানকে নেওয়ার জন্য বললাম। আর “গণ্ডি” সিনেমায় যে চরিত্রটা সব্যসাচী করল, সেটিও আমার করার কথা ছিল। পরিচালক গিয়েছিল আমার বাসায়। আমি তো খুবই আগ্রহী। ছবিটার জন্য ওজন বাড়াতেও রাজি হলাম। কিন্তু ওই এক সমস্যা। কিছুতেই সময় মিলেনি।’

এদিকে তার ছবিতে কেন কেমন একটা একাকিত্ব, দুঃখবোধ থাকে,  এ প্রশ্নের জবাবে অঞ্জন দত্ত বললেন, দাঁত বের করা হাসির চেয়ে চুপ করে নীরবে কাঁদার দৃশ্য বেশি ভালো লাগে।

যে তরুণদের চোখে নির্মাতা হওয়ার স্বপ্ন, তাদের উদ্দেশে বললেন, কেবল গল্প নয়, গল্পটা কীভাবে বলা হচ্ছে, সেটিও গুরুত্বপূর্ণ। ক্যামেরার পেছনে দাঁড়িয়ে সহজ কথা সহজে বলা যাবে না। বলতে হবে ঘুরিয়ে, পেঁচিয়ে আর শৈল্পিকভাবে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.