ভরা মৌসুমেও সবজির দাম চড়া

চলতি সপ্তাহে রাজধানীর খুচরা বাজারে কমেছে মুরগি, মাছ ও ডিমের দাম। তবে শীত মৌসুম শুরু হলেও বেশিরভাগ সবজির দাম কমেনি।

 

শনিবার ৪ ডিসেম্বর রাজধানীর কাওরান বাজার, পলাশী বাজার, হাতিরপুল কাঁচা বাজার ঘুরে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

বাজারে প্রতি কেজি সিম ৪০-৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৭০ থেকে ৮০ টাকা, গাঁজর ৬০ টাকা, করলা ৫০ টাকায়, বাঁধা কপি আকারভেদে ৩০-৪০ টাকা, ফুলকপি আকারভেদে ৩০-৪০ টাকায়, মূলা ৩০ টাকা, নতুন আলু ৭০ টাকায়, সাধারণ আলু ২৫ টাকা, বেগুন ৩০-৪০ টাকায়, টমেটো ৯০-১০০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকায়, শসা ৪০ টাকায়, পেঁপে ২০ টাকায়, পটল ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজার ভেদে দামের পার্থক্য রয়েছে।

শীত মৌসুমে সবজির দাম না কমার কারণ হিসেবে পলাশি বাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মো. শামিম মিয়া জানান, পাইকারি বাজারে দাম বেশি।

 

এ কারণে খুচরা বাজারে দাম বেশি। তবে আগের চেয়ে সবজির দাম একটু কমলেও শীত মৌসুমে যতটা দাম কমে এবার তা কমেনি।

 

সপ্তাহের শেষে পাইকারিতে ব্রয়লার মুরগির ডিম প্রতি ডজন ১০০ টাকা করে বিক্রি হয়েছে। তবে খুচরা বাজার ১০৫ থেকে ১১০ টাকা ডজন বিক্রি হচ্ছে।

 

রাজধানীর কাওরান বাজারেরর নুরজাহান চিকেন ব্রয়লার হাউসের মালিক মো. ছায়েদুল জানান, গত সপ্তাহে মুরগির দাম কেজিতে ৫ টাকা কমেছে। ব্রয়লার মুরগি ১৫০-১৫৫ টাকা, সোনালি ২৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

 

এদিকে সয়াবিন তেলের দাম  আগের মতোই আছে বলে জানিয়েছেন কাওরান বাজারের মিলু স্টোরের স্বত্বাধিকারী বিপ্লব কুমার পাল। তিনি জানান, ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন ৭০০ থেকে ৭১০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে ইলিশসহ সব মাছের দাম কিছুটা কমেছে। এক কেজির বেশি ওজনের ইলিশ ৯০০ টাকা, ৮ শ থেকে সাড়ে ৯ শ গ্রাম সাইজের ইলিশের কেজি ৭০০ টাকা।

 

রুই আকার ভেদে ২০০ থেকে ৩২০ টাকা, চিংড়ি ৫০০-৬০০ টাকা, কাতল আকার ভেদে ২০০ থেকে সাড়ে তিনশ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

 

দাম কমার কারণ হিসেবে কাওরান বাজারের মাছ ব্যবসায়ী  জুনায়েদ হোসেন জানান, খাল-বিলে পানি কমে যাওয়ায় মাছের দাম কিছুটা কমেছে।

 

 

 

আরও পড়ুন

শিক্ষা  অপরাধ  স্বাস্থ্য  অর্থনীতি  রাজনীতি  আন্তর্জাতিক  খেলাধুলা  লাইফস্টাইল  সারাদেশ

সবজি

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.