ভবন মালিকদেরকে বিশেষ হোল্ডিং কর রেয়াত দেয়া হবে, ডিএনসিসি মেয়র

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন-ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেছেন, যেসব ভবনে রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে, সেসব ভবন মালিকদেরকে বিশেষ হোল্ডিং কর রেয়াত দেয়া হবে।

২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ তারিখ রোজ- শুক্রবার সকালে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটি আয়োজিত ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা সমস্যা ও প্রতিকার শীর্ষক সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র একথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রকৃতিকে ধ্বংস করার কারণেই প্রকৃতি এখন প্রতিশোধ নিচ্ছে, তাই প্রকৃতিকে আর ধ্বংস নয়, সবাই মিলে প্রকৃতিকে রক্ষা করতে হবে। মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসি এলাকার রিটেনশন পন্ডে বায়ো ইকো পার্ক গড়ে তোলা হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, হাতিরঝিলের মতো একটি জলাধার দিয়ে কখনও নগরীর জলাবদ্ধতা সমস্যা সমাধান করা সম্ভব নয়, এই সমস্যার সমাধানকল্পে সুপরিকল্পিত একাধিক জলাধার প্রয়োজন। তিনি বলেন, কল্যাণপুর জলাধারের জন্য নির্ধারিত ১৭৩ একর জমির মধ্যে মাত্র ৩ একর জমিতে জলাধার রয়েছে আর বাকি ১৭০ একর জমিই অবৈধ দখলদারদের দখলে রয়েছে, যা খুবই দুঃখজনক।

মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, সবাই মিলে অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে হবে, অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। ডিএনসিসি মেয়র অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, মাস্তানি করে খাল দখলের দিন শেষ, বিনা নোটিশে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে।

তিনি বলেন, জনগণের সহায়তায় খাল উদ্ধার ও পরিস্কার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। প্রতিটি খালের দুই পাড়ের সীমানা নির্ধারণ করে তা যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন এবং দূষণ নিয়ন্ত্রণে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন কাজ করে যাচ্ছে।

ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তারা কখনও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ কিংবা সুস্থ-সুন্দর ঢাকা দেখতে চায়না। তাই সকল ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করে সবাই মিলে সবার ঢাকাকে সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকায় রূপান্তরিত করতে হবে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ মোঃ হোসেন মনসুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.