পাবনার পৌর মেয়র মিন্টুর আ’লীগে যোগদান

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ফিরলেন পাবনা জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও তিনবারের পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু।
রোববার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের হাতে ফুল দিয়ে তিনি ও তার অনুসারীরা আওয়ামী লীগে যোগ দেন।
এসময় তার সঙ্গে কয়েকশ নেতাকর্মীও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এসময় ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা পার্টির পক্ষ থেকে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি।
‘তবে আমার একটা কথা হচ্ছে— দল করলে দলের নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে।’
তিনি আরও বলেন, মাদক বিক্রেতা, ভূমি দখলকারী, চিহ্নিত চাঁদাবাজ, যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতাবিরোধী চক্র; এই ধরনের লোক আমরা আওয়ামী লীগে নেব না।
এসময় কামরুল হাসান মিন্টু বলেন, আমার মনে হয় না আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে এক চুলও বিচ্যুত হতে পেরেছি। শেখ হাসিনা মায়ের দৃষ্টিকোণ থেকে আমাদের ক্ষমা করে দিয়ে ঘরে তুলে নিয়েছেন। এজন্য আমি ব্যক্তিগতভাবে ও পাবনাবাসীর পক্ষ থেকে তাকে ধন্যবাদ জানাই। আমি ব্যক্তিগত ভাবে তার কাছে আরও ঋণী হয়ে গেলাম।
এসময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য আসনের সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকু বলেন, আওয়ামী লীগ ঘরানার নেতাকর্মীদের সঙ্গে তার (মিন্টুর) সম্পর্কচ্ছেদ হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত করবার লক্ষ্যেই ঘরের ছেলে আবার ঘরে ফিরে এসেছেন।
পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স বলেন, মিন্টু জন্মগতভাবে আওয়ামী লীগের ছেলে। সে বঙ্গবন্ধুর সৈনিক ছিল। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধ তার মধ্যে ছিল।
পরে রাতেই নেতাকর্মীদের নিয়ে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান কামরুল হাসান মিন্টু।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.