এবার গোপনাঙ্গ কাটলেন কাশিমপুর কারাগারের সেই বন্দি

নিজের গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেছে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে বন্দি এক হাজতী। শনিবার বিকেলে কারাগারের ভিতর এ ঘটনা ঘটে। এরআগেও তিনি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ বন্দি থাকাবস্থায় ব্লেড দিয়ে নিজের গলা কেটে জখম হয়েছিলেন।
ওই বন্দির নাম মোহাম্মদ হোসেন (৩১)। তিনি ঢাকার সাভার থানার জামসিংহ দক্ষিণপাড়া এলাকার বাসিন্দা।
কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো: শফিকুল ইসলাম খান জানান, ২০১৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর মোহাম্মদ হোসেনকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়। কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে তার হাজতি নং ৫০৬২/১৯। তিনি ঢাকার সাভার থানার একটি হত্যা মামলার আসামি।

শফিকুল ইসলাম খান আরো জানান, দীর্ঘদিন ধরে পরিবারের কেউ মোহাম্মদ হোসেনের সাথে সাক্ষাৎ করতে কারাগারে যাচ্ছে না। এছাড়াও তার জামিন হচ্ছে না। এতে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন তিনি। এর জেরে শনিবার বিকেল তিনটার দিকে মোহাম্মদ হোসেন অ্যালুমিনিয়ামের প্লেটের কিনারা ঘষে ধারালো করে। পরে ওই ধারালো অংশ দিয়ে তার গোপনাঙ্গ প্রায় ৪০ ভাগ কেটে ফেলে, তবে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়নি। এতে তিনি রক্তাক্ত হয়ে ডাকচিৎকার শুরু করে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কারা হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাকে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। দীর্ঘদিন ধরে তার পরিবারের কেউ তার সাথে সাক্ষাৎ করতে কারাগারে যাচ্ছে না এবং তার জামিন না হওয়াসহ নানা হতাশায় ভুগে এঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে সে কারা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে।
কারা সুপার আরো জানান, এর আগে মোহাম্মদ হোসেন কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ বন্দি ছিলেন। সেখানে থাকার সময় ব্লেড দিয়ে নিজের গলা কেটে জখম হয়। এরপর তাকে ওই কারাগার থেকে এ কারাগারে স্থানান্তর করা হয়।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.