স্বাস্থ্যমন্ত্রীই ভাঙলেন স্বাস্থ্যবিধি

দেশে ওমিক্রন রোধে স্বাস্থ্যবিধি মানতে চলছে জোর প্রচারণা। এরইমধ্যে সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের পক্ষ থেকে ১১দফা নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সকল সভা-সমাবেশ।

 

ঠিক সেই সময়েই মানিকগঞ্জের ২৫০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে খোদ স্বাস্থ্যমন্ত্রীই ভাঙলেন স্বাস্থ্যবিধি।

 

শনিবার ১৫ জানুয়ারি মানিকগঞ্জের ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ৫ শয্যা বিশিষ্ট্য ডায়ালাইসিস ইউনিট এবং সিটি স্ক্যান মেশিন উদ্বোধন করতে আসেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ সময় স্বাস্থ্যকর্মীসহ শতাধিক নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উদ্বোধন করলেন ডায়ালাইসিস ইউনিট এবং সিটি স্ক্যান মেশিন। ছিল না সামাজিক দূরত্বও।

 

যদিও প্রধান অতিধির বক্তব্যে তিনি স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলেন। তিনি বলেন, লকডাউন দেওয়া মানে দেশের ক্ষতি, অর্থনীতির মারাত্মক ক্ষতি ও মানুষের ক্ষতি।

 

সরকারের ১১টি গাইডলাইন মেনে চললে আমাদের লকডাউনের প্রয়োজন হবে না। আমাদের নিজের জন্য, পরিবারের জন্য, দেশের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

 

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের টিকার কোনো ঘাটতি নেই। ইতোমধ্যে সোয়া ১৪ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৭০ লাখ শিক্ষার্থী টিকা পেয়েছে।

 

মন্ত্রী বলেন, প্রতিটি জেলা হাসপাতালে সিটিস্ক্যান মেশিন ও দশ বেডের ডায়ালাইসিস ইউনিট স্থাপন করা হবে।

 

স্বাস্থ্যবিধি ভাঙার বিষয়ে জানতে চাইলে সদর হাসপাতলের তত্বাবধায়ক মো. আরশ্বাদ উল্লাহ জানান, স্বাস্থ্যবিধি মানার চেষ্টা ছিল। কিন্তু সামাজিক দূরত্ব মানা সম্ভাব হয়নি। এদিকে এমন দুইটি ইউনিট উদ্বোধনে খুশি জেলাবাসী।

 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আহমেদুল কবির, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, কর্ণেল মালেক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন, মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আরশাদ উল্লাহ, সিভিল সার্জন মোয়াজ্জেম হোসেন খান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম, পৌর মেয়র মো. রমজান আলী প্রমুখ।

 

 

 

আরও পড়ুন

শিক্ষা  অপরাধ  স্বাস্থ্য  অর্থনীতি  রাজনীতি  আন্তর্জাতিক  খেলাধুলা  লাইফস্টাইল  সারাদেশ

স্বাস্থ্যমন্ত্রীই স্বাস্থ্যমন্ত্রীই 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.