অতিরিক্ত ওজন কমাবে ডিম

ডিম একটি আর্দশ খাদ্য সবার জন্য। পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ডিম নিয়মিত খাওয়ার অভ্যাসে মিলবে অনেক উপকার। বিজ্ঞানীরা এত দিন ডিম গ্রহণের বিপক্ষে মত দিলেও এখন এর উপকারী দিক বিবেচনায় নিয়ে নিয়মিত ডিম খাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন। ডিম পুষ্টিগুন সমৃদ্ধ একটি খাবার। এতে শর্করা, প্রোটিন, স্নেহ, বিভিন্ন খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন রয়েছে। এসকল পুষ্টির কারণে ডিমের উপকারিতা অনেক। আমাদের দেশে সাধারণত মুরগীর ডিম, হাঁসের ডিম, কোয়েল পাখির ডিম মানুষ বেশি পছন্দ করে থাকে।

অতিরিক্ত মেদের কথা ভেবে ডিম খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন। মেদ কমাতে যাবতীয় উপায় অবলম্বন করেছেন তাতে কী লাভ হয়েছে। ভয় নে্ি আপনার অতিরিক্ত মেদ কমাতে সাহায্য করবে ডিম।

আপনি জানেন কি তিন উপায়ে ডিম খেয়ে ওজন কমাতে পারেন। ডিম হচ্ছে প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার। ডিম খেলে দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা থাকে, তাই ক্ষুধা কম লাগে। ফলে অতিরিক্ত খাওয়ার চাহিদা কমে, তাই ওজনও কমে। ওজন কমাতে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় ডিম রাখতে পারেন। তবে ভুনা ডিম বা পোচ নয়।

আসুন জেনে নিই অতিরিক্ত ওজন কমাতে চাইলে কীভাবে ডিম খাবেন?

১. হাঁড়িতে পানি নিয়ে তাতে অল্প ভিনিগার মিশিয়ে নিন। পানি ফুটে উঠলে তাতে ডিম ভেঙে ছেড়ে দিন। কিছুক্ষণ পরই পোচটিকে আলতো করে তুলে নিন পানি থেকে। ডিমের সবটুকু পুষ্টিগুণ মেলে এই পোচ থেকে। আর পেটের অতিরিক্ত চর্বি কমে।

২. আপনার প্রতি দিনের খাবার তালিকায় সালাদ থাকে, এতে নতুনত্ব আনতে যোগ করুন সিদ্ধ ডিমের কুঁচানো অংশ। এর সঙ্গে মেশান গোলমরিচ ও লেবুর রস। এতে পুরো ডিমের পুষ্টিগুণ তো মিলবে। আর মেদও ঝরবে দ্রুত।

৩. ডিমের সঙ্গে ওটমিল মিশিয়ে খেতে পারেন। ওটমিল শরীরে বাড়তি কোলেস্টেরল ও ট্রাইগ্লিসারাইড জমার পথে বাধা দেয়। আর ডিম জোগায় প্রোটিন। ওটমিল ও ডিম একসঙ্গে খেলে মেদ বাড়বে না।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.