Mon. Jan 20th, 2020

সেভ দ্য রোড-এর জাতীয় সম্মিলন অনুষ্ঠিত

সেচ্ছাসেবি সংগঠন সেভ দ্য রোড-এর আকাশ-সড়ক-রেল ও নৌপথ নিরাপদ-এর জন্য করণীয় শীর্ষক অলোচনা সভা ও জাতীয় সম্মিলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ভবনের তৃতীয় তলাস্থ মিলনায়তনে ২৫ অক্টোবর সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত সম্মিলনে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহন খান এমপি। সেভ দ্য রোড-এর প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদীর সঞ্চালনায় ও চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম-এর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন নাজমা আকতার এমপি, সমাজসেবক লুৎফর রহমান স্বপন, শ্রমিক নেতা মো. তরিকুল ইসলাম, পরিবহন শ্রমিক নেতা কাজী সেলিম সরোয়ার ও কলকাতা সেভ দ্য রোড-এর সমন্বয়ক কবি সতিশ বিশ্বাস।

বক্তব্য রাখেন সেভ দ্য রোড-এর মহাসচিব শান্তা ফারজানা, ভাইস চেয়ারম্যান বিকাশ রায়, রিপন শান, সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি, জিয়াউর রহমান জিয়া, শ্রমিক নেতা শহীদুল্লাহ বাদল, সাহাবউদ্দীন চৌধুরী, এনামুল হক, অনলইন প্রেস ইফনিটির নবনির্বাচিত সভাপতি এরশাদুল হক দুলাল, সেভ দ্য রোড-এর যুগ্ম মহাসচিব আলতাফ হোসেন রায়হান, ঢাকা জেলার সভাপতি হাসিবুল হক পুনম, বাগেরহাট জেলা সভাপতি মহিদুল ইসলাম, ময়মনসিংহ জেলা সভাপতি মোকলেসুজ্জামান সুমন, ঢাকা মহনগর দক্ষিণের আহবায়ক আবু বকর রতন, যুগ্ম আহবায়ক ইসলাম উদ্দীন সরকার, মানিকগঞ্জ জেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হাসান, কায়েস সজিব, হাবিব মাস্টার, চট্টগ্রাম জেলা সদস্য মিনহাজউদ্দীন, সভাপার সভাপতি রাজিবুল ইসলাম, শ্রমিক নেতা শেখ ওমর ফারুক, বরিশাল শাখা সদস্য জিয়াউদ্দীন সুজন, নাসির উদ্দীন প্রমুখ। সারাদেশ থেকে ২৭৭ জন পথসৈনিক-এর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত সেভ দ্য রোড-এর জাতীয় সম্মিলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাজাহান খান বলেন, নৌমন্ত্রী থাকাকালিন সময়ে আমি অনেক কমিয়ে এনেছিলাম নৌ দূর্ঘটনা। আমি মনে করি শুণ্যের কোঠায় নৌ দূর্ঘটনাকে আনার মত দক্ষতা আমার যেমন রয়েছে, সেভ দ্য রোড-এর কর্মীদেরও রয়েছে দক্ষতা ও যোগ্যতা তিল তিল করে দেশকে গড়ে তোলার চেষ্টা আর ধারাবাহিকতা। তাদের ৭ দফার সাথে আমি সহমত।

বিশেষ তথ্য : সেভ দ্য রোড ২০০৭ সাল-এর ২৮ আগস্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে মোমিন মেহেদীর নেতৃত্বে সড়ক-আকাশ- রেল ও নৌ পথকে নিরাপদ করার জন্য নিবেদিত থেকে কাজ করে আসছে। সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন, প্রতিবেদন পাঠ, সংবাদ সম্মেলন, মতবিনিময় সহ বিভিন্ন কর্মসূচী সামর্থনুযায়ী করে আসছে। সেচ্ছাসেবি এই সংগঠনের সম্মানিত চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মহাসচিবদের পাশাপাশি অবৈতনিক সম্মানিত গবেষক ও সেচ্ছাসেবি টিম-এর মাধ্যমে কর্মসূচিগুলো বাস্তবায়ন করা হয়। আমাদের মনিটরিং টিংম গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ, হাইওয়ে পুলিশ ও বিভিন্ন জেলা উপজেলায় গঠিত সেভ দ্য রোড-এর শাখায় দায়িত্বপালনকারী সেচ্ছসেবিদের তথ্যর উপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন নির্মাণ করেছে। সেভ দ্য রোড-এর পক্ষ থেকে গত ১২ বছর যাবৎ ৪ পথ নিরাপদ করতে সেভ দ্য রোড-এর ৭ দফা দাবী নিয়ে এগিয়ে চলা অব্যহত রয়েছে ছাত্র-যুব-জনতা-আবাল-বৃদ্ধ-বণিতার ঐক্যবদ্ধতায়। আর সেই ৭ দফা হলো- ১. মিরেরসরাই ট্রাজেডিতে নিহতদের স্মরণে ১১ জুলাইকে ‘নিরাপদ পথ দিবস’ ঘোষণা করতে হবে। ২. ফুটপাত দখলমুক্ত করে যাত্রীদের চলাচলের সুবিধা দিতে হবে। ৩. সড়ক পথে ধর্ষণ-হয়রানি রোধে ফিটনেস বিহীন বাহন নিষিদ্ধ এবং কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণ ও জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যতিত চালক-সহযোগি নিয়োগ ও হেলপারদ্বারা পরিবহন চালানো বন্ধে সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। ৪. স্থল-নৌ-রেল ও আকাশ পথ দূর্ঘটনায় নিহতদের কমপক্ষে ১০ লাখ ও আহতদের ৩ লাখ টাকা ক্ষতি পূরণ সরকারীভাবে দিতে হবে। ৫. ‘ট্রান্সপোর্ট ওয়ার্কার্স রুল’ বাস্তবায়নের পাশাপাশি সত্যিকারের সম্মৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে ‘ট্রান্সপোর্ট পুলিশ ব্যাটালিয়ন’ বাস্তবায়ন করতে হবে। ৬. পথ দূর্ঘটনার তদন্ত ও সাজা ত্বরান্বিত করণের মধ্য দিয়ে সতর্কতা তৈরি করতে হবে এবং ট্রান্সপোর্ট পুলিশ ব্যাটালিয়ন গঠনের পূর্ব পর্যন্ত হাইওয়ে পুলিশ, নৌ পুলিশ সহ সংশ্লিষ্টদের আন্তরিকতা-সহমর্মিতা-সচেতনতার পাশাপাশি সকল পথের চালক-শ্রমিক ও যাত্রীদের আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। সকল পরিবহন চালকের লাইসেন্স থাকতে হবে। ৭. ইউলুপ বৃদ্ধি, পথ-সেতু সহ সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয়ে দূর্নীতি প্রতিরোধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যাতে ভাঙা পথ, ভাঙা সেতু আর ভাঙা কালভার্টের কারণে আর কোন প্রাণ দিতে না হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *