Fri. Feb 21st, 2020

গোটা রুশ সরকারের পদত্যাগ

প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদ রাশিয়ার পুরো সরকার পদত্যাগ করেছে। রুশ প্রেসেডেন্ট পুতিন দেশটির সাংবিধানিক পরিবর্তনের প্রস্তাব দেয়ার পর বুধবার (১৫ জানুয়ারি) গোটা সরকার পদত্যাগ করে।

বিবিসি, সিএনএন, আল জাজিরাসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এখবর দিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রীসহ গোটা সরকারকে পদত্যাগ করিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন নিজেই। তিনি মূলত সংবিধান পরিবর্তন করে নিজের হাতে পূর্ণ ক্ষমতা নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন।

পদত্যাগের আগে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন পুতিন। তিনি বলেন, ‘রাশিয়ায় বড় ধরনের সাংবিধানিক পরিবর্তনের প্রয়োজন। সংবিধানের আমূল পরিবর্তনে দেশের মানুষের মধ্যে ভোট হওয়া প্রয়োজন বলে আমি মনে করছি।’

প্রধানমন্ত্রীসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পদের নির্বাচনে পার্লামেন্টকে ক্ষমতা দেয়ার প্রস্তাব দেন তিনি। দেশের সাংবিধানিক পরিবর্তনের জন্য গণভোটেরও প্রস্তাব দেন পুতিন।

এদিকে পুতিনের কাছে পদত্যাগপত্র দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদ এখন রাশিয়ার প্রভাব বিস্তারকারী নিরাপত্তা পরিষদের প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ‘পুতিন মূলত সংবিধান সংশোধন করে প্রেসিডেন্টের কিছু ক্ষমতা প্রধানমন্ত্রীর কাছে এবং সংসদে নিতে চাচ্ছেন। ২০২৪ সালের পর নিজে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরিকল্পনায় এই পথে হাঁটছেন চতুর রাজনীতিবিদ।’

১৯৯৯ সালে তৎকালীন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন হঠাৎ করেই অচেনা পুতিনকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত করেন। তার কয়েক মাস পর ইয়েলৎসিন অনেকটা নাটকীয়ভাবে পুতিনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্থলাভিষিক্ত করেন।

টানা ২০০৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ছিলেন পুতিন। এসম সংবিধান সংশোধন করে তিনি প্রেসিডেন্টের চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা বাড়িয়ে ওই বছর রুশ প্রধানমন্ত্রী হন। প্রেসিডেন্ট করেন দিমিত্রি মেদভেদেভকে। তারপর ২০১২ ও ২০১৮ সালে পুনরায় প্রেসিডেন্ট হন, তার মেয়াদ শেষ হবে ২০২৪ সালে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *